Bangladesh Pratidin || Highest Circulated Newspaper
শিরোনাম
প্রকাশ : রবিবার, ১৩ জানুয়ারি, ২০১৯ ০০:০০ টা
আপলোড : ১২ জানুয়ারি, ২০১৯ ২২:৩৮

বুরুজবাগান স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স

মুখ থুবড়ে পড়েছে চিকিৎসাসেবা

বকুল মাহবুব, বেনাপোল

মুখ থুবড়ে পড়েছে চিকিৎসাসেবা

জনবলের অভাবে মুখ থুবড়ে পড়েছে যশোরের শার্শা উপজেলার নাভারন বুরুজবাগান স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের চিকিৎসাসেবা। হাসপাতালটিতে ডাক্তারের ২২টি পদ থাকলেও কর্মরত আছেন মাত্র ৬ জন। ১৬টি শূন্য পদ নিয়েই চলছে এ অঞ্চলের প্রায় সাড়ে ৩ লাখ মানুষের একমাত্র চিকিৎসা কেন্দ্র ৫০ শয্যার নাভারন বুরুজবাগান স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স। বাংলাদেশের সর্ববৃহৎ স্থলবন্দর বেনাপোলে কাজ করে কয়েক হাজার শ্রমিক। বিভিন্ন কাজ করতে গিয়ে প্রায়ই শ্রমিকরা আহত হন। ডাক্তারের অভাবে তখন রোগী নিয়ে যেতে হয় বেনাপোল থেকে প্রায় ৪০ কিলোমিটার দূরে যশোর জেনারেল হাসপাতালে। যেতে যেতে পথেই রোগীর মৃত্যু হয়েছে- আছে এমন অভিযোগও। সম্প্রতি হাসপাতালটি ৩১ থেকে ৫০ শয্যায় উন্নীত করা হলেও নতুন ডাক্তার বা জনবল নিয়োগ দেওয়া হয়নি। প্রতিদিন গড়ে ৩০০-৪০০ রোগী বহির্বিভাগে চিকিৎসা সেবা নিতে আসেন। সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, সকাল সাড়ে ৮টা থেকে হাসপাতালের কার্যক্রম শুরুর কথা থাকলেও সাড়ে ১০টার আগে কোনো চিকিৎসকের দেখা মেলে না। আবার বেলা ১টায়ই হাসপাতালে খুঁজে পাওয়া যায় না কোনো ডাক্তার। আছে ডাক্তার, নার্স ও টেকনিশিয়ানদের দুর্ব্যবহারের অভিযোগ। কখনও দূর-দূরান্ত থেকে আসা রোগীরা ঘণ্টার পর ঘণ্টা দাঁড়িয়ে থেকে ডাক্তার না পেয়ে চলে যাচ্ছেন। রওশনারা, তাহেরা নামে দুজন অভিযোগ করেন, সকাল ৮টায় টিকিট কেটে ডাক্তারের অপেক্ষায় বসে আছি। ১০টা বাজতে চললো এখনও ডাক্তার আসেনি। তাদের ভাষ্য, হাসপাতালে রোগীর পরীক্ষা-নিরীক্ষার ব্যবস্থা থাকলেও সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তা তার পছন্দের ক্লিনিকে যেতে রোগীদের পরামর্শ দিয়ে থাকেন। উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা অশোক কুমার সাহা বলেন, ‘হাসপাতালে ডাক্তারের ২২টি পদ থাকলেও নিয়োগ আছে মাত্র ছয়জনের। নতুন করে জনবল নিয়োগ দিলে সব সমস্যা সমাধান হয়ে যাবে।


আপনার মন্তব্য