শিরোনাম
প্রকাশ : রবিবার, ২২ নভেম্বর, ২০২০ ০০:০০ টা
আপলোড : ২১ নভেম্বর, ২০২০ ২৩:১৫

বেনাপোল বন্দর ঘিরে সক্রিয় চোরাচালান সিন্ডিকেট

বেনাপোল প্রতিনিধি

যশোরের বেনাপোল স্থলবন্দর ঘিরে সক্রিয় হয়ে উঠেছে চোরাচালান সিন্ডিকেট। অভিযোগ আছে- স্থলবন্দরের অসাধু কিছু কর্মকর্তা-কর্মচারীর সহায়তায় চোরাচালানের কাজে ভারতীয় ট্রাক ব্যবহার করছে তারা। স্থানীয় ব্যবসায়ীরা জানান, বেনাপোলের কিছু চিহ্নিত ট্রাক ড্রাইভার প্রতিদিন অবৈধভাবে পণ্য নিয়ে ভারতে যান। ফেরার পথে ভারতের বনগাঁও ও কলকাতার ট্রাক চালকদের সঙ্গে চুক্তি করে বিভিন্ন পণ্য ভারতীয় ট্রাকের কেবিনে লুকিয়ে বেনাপোল বন্দরে নিয়ে আসছেন। মাঝেমধ্যে আমদানি করা বৈধ মালের সঙ্গেও আনা হচ্ছে এসব মালামাল। কখনো বন্দরের ট্রাক টার্মিনাল থেকে আবার কখনো বন্দরের অভ্যন্তর থেকে চোরাচালানি এসব পণ্য বাইরে বের করে দেওয়া হচ্ছে। বৈধ পণ্যের সঙ্গে আনা এসব চোরাচালানি পণ্য বহনের কারণে হয়রানির শিকার হচ্ছেন আমদানিকারকরা। এসব অনিয়মের তদন্ত করে জরুরি ভিত্তিতে জাতীয় রাজস্ব বোর্ডকে ব্যবস্থা নেওয়ার জোর দাবি জানিয়েছে ব্যবসায়ী সংগঠনগুলো। আমদানিকারক প্রতিষ্ঠান অ্যালটেক এলুমিনিয়াম লির সিঅ্যান্ডএফ প্রতিষ্ঠান ট্রিম ট্রেডের মালিক জিয়া উদ্দিন জানান, বন্দর একটি বৈধ বন্ডেড এরিয়া। এখানে কীভাবে চোরাচালান সিন্ডিকেট গড়ে উঠল।

 সরকারকে রাজস্ব পরিশোধ করেও তাদের কেন হয়রানির শিকার হতে হচ্ছে। জরুরি ভিত্তিতে বন্দরের অভ্যন্তরে মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করে আন অথরাইজড লোকজনকে আটক করতে হবে। বেনাপোল কাস্টমস কমিশনার আজিজুর রহমান জানান, চোরাচালান সিন্ডিকেটের কারণে বৈধ আমদানিকারকরা প্রতিনিয়তই নানাভাবে হয়রানির শিকার হচ্ছেন বন্দরে। বিষয়টি নিয়ে জরুরি ভিত্তিতে তদন্ত কমিটি গঠন করা হবে। তাছাড়া কাস্টমসের পক্ষ থেকে চোরাচালানিদের বিরুদ্ধে মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর