শিরোনাম
প্রকাশ : শুক্রবার, ১ জানুয়ারি, ২০২১ ০০:০০ টা
আপলোড : ১ জানুয়ারি, ২০২১ ০০:০৬

বাগমারার ভবানীগঞ্জে স্বতন্ত্র প্রার্থীর কর্মীকে মারধর

নিজস্ব প্রতিবেদক, রাজশাহী

রাজশাহীর ভবানীগঞ্জ পৌরসভা নির্বাচনে স্বতন্ত্র মেয়র প্রার্থীর সমর্থককে পিটিয়ে গুরুতর আহত করা হয়েছে। আওয়ামী লীগের দলীয় প্রার্থী ও বর্তমান মেয়র আবদুল মালেকের সমর্থকদের বিরুদ্ধে এই অভিযোগ। বুধবার রাতে ভবানীগঞ্জে আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী মেয়র প্রার্থী মামুনুর রশীদের ওই সমর্থকের ওপর হামলার ঘটনা ঘটে। আহত ব্যক্তির নাম দুখু সরকার (৩০)।  রাতে নিজের দোকানের সামনে মামুনের পোস্টার টানাচ্ছিলেন দুখু। খবর পেয়ে লোহার রড ও লাঠিসোঁটাসহ মালেকের সমর্থকরা ভবানীগঞ্জ বাজারের গোডাউন এলাকায় দুখুর ওপর হামলা করে। পরে গুরুতর আহত অবস্থায় তাকে বাগমারা উপজেলা স্বাস্থ্য কেন্দ্রে ভর্তি করা হয়। অবস্থার অবনতি হলে রাতেই তাকে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ৮ নম্বর ওয়ার্ডে ভর্তি করা হয়। হাসপাতালে দুখু সরকারের আত্মীয় সুলতানা খাতুন বলেন, পৌর আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক মামুনুর রশীদ আগামী ১৬ জানুয়ারি অনুষ্ঠেয় ভবানীগঞ্জ পৌর নির্বাচনে স্বতন্ত্র প্রার্থী হয়েছেন।  জগ প্রতীক পেয়ে মামুন গণসংযোগ শুরু করেছেন। বুধবার রাতে গোডাউন এলাকায় পোষ্টার লাগাচ্ছিলেন মামুনের কর্মী দুখু সরকারসহ আরও কয়েকজন। এসময় নৌকা প্রতীকের মেয়র প্রার্থী মালেকের কর্মী নাহিদ হোসেনের নেতৃত্বে একদল যুবক লাঠিসোঁটা ও লোহার রড নিয়ে দুখুকে ঘেরাও করে মারধর করে।

অন্যরা পালাতে পারলেও দুখু মালেকের সমর্থকদের হাতে ধরা পড়ে যান।

এ সময় তাকে পিটিয়ে হাত-পাসহ সারা শরীরে লোহার রড ও লাঠি দিয়ে আঘাত করা হয়। এতে দুখু অচেতন হয়ে পড়লে হামলাকারীরা ঘটনাস্থল ত্যাগ করে। দুখুকে প্রথমে বাগমারা উপজেলা স্বাস্থ্য কেন্দ্রে ও পরে গভীর রাতে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়। রামেক হাসপাতালের ৮ নম্বর ওয়ার্ডের কর্তব্যরত  একজন চিকিৎসক জানান, দুখুর সারা শরীরে মারধর করা হয়েছে। আরও ২৪ ঘণ্টা পার না হলে কিছু বলা যাবে না। তার সারা শরীরে শক্ত কিছু দিয়ে আঘাত করা হয়েছে। দুখুকে পর্যবেক্ষণে রাখা হয়েছে। এক্স-রে করে দেখা গেলে আঘাতের মাত্রা জানা যাবে। বাগমারা থানার ওসি মোস্তাক আহাম্মেদ জানান, দুখুর ওপর হামলার ঘটনায় থানায় কোনো অভিযোগ হয়নি। প্রাথমিকভাবে ঘটনা জেনে তদন্ত হচ্ছে। ঘটনাস্থলে পুলিশ গিয়ে প্রাথমিক তথ্য সংগ্রহ করেছে। দ্রুত আইনি ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে ওসি জানিয়েছেন। বিদ্রোহী প্রার্থী মামুনুর রশীদ জানিয়েছেন, বর্তমান মেয়র ও আওয়ামী লীগের মনোনীত মেয়র প্রার্থী আব্দুল মালেকের সমর্থকরা ভবানীগঞ্জ পৌর এলাকার কোথাও তাকে পোষ্টার লাগাতে দিচ্ছে না। তার কর্মীদের ওপর হামলা করছে। তিনি প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে উপজেলা নির্বাচন অফিসার গোলাম মোস্তফার কাছে গতকাল একটি লিখিত আবেদন করেছেন। প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থীর কর্মী সমর্থকদের ওপর হামলার অভিযোগ অস্বীকার করে মেয়র প্রার্থী আবদুল মালেক বলেন, সব প্রার্থী স্বাধীনভাবে প্রচারণা চালাচ্ছেন। দুখু সরকারের ওপর হামলা কারা করেছে তা তিনি জানেন না।


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর