শিরোনাম
প্রকাশ : রবিবার, ২৮ ফেব্রুয়ারি, ২০২১ ০০:০০ টা
আপলোড : ২৭ ফেব্রুয়ারি, ২০২১ ২৩:২৫

বরেন্দ্র অঞ্চলে চমক বল সুন্দরী বরই

নওগাঁ প্রতিনিধি

বরেন্দ্র অঞ্চলে চমক বল সুন্দরী বরই
Google News

বরেন্দ্র এলাকা হিসেবে পরিচিত নওগাঁর সাপাহার ও পোরশা উপজেলায় কৃষিতে চমক সৃষ্টি করেছে ফল বল সুন্দরী (উন্নত জাতের বরই)। রসালো ও সুস্বাদু এ বরইর চাহিদা রয়েছে বাজারে। দামও ভালো পাওয়ায় সন্তোষ প্রকাশ করছেন স্থানীয় চাষিরা। স্বল্প সময়ে অধিক ফলন পাওয়ায় বল সুন্দরী চাষে আগ্রহ দেখাচ্ছেন অনেকে।

সাপাহার কৃষি সম্প্রসারণ কর্মকর্তা মনিরুজ্জামান জানান, চলতি বছর এ উপজেলায় ৫১ হেক্টর জমিতে চাষ হয়েছে বিভিন্ন জাতের বরই। যার মধ্যে ১২ হেক্টরে কাশ্মীরী এবং ৩৯ হেক্টরে রয়েছে বল সুন্দরী। এ ছাড়া এ অঞ্চলে বাউকূল, আপেল কূলও চাষ হচ্ছে। চাহিদা বেশি থাকায় সাপাহারে বেশি আবাদ হচ্ছে বল সুন্দরী জাত। জানা যায়, বরেন্দ্র অঞ্চলের আবহাওয়া ও মাটির গুণগতমান ভালো হওয়ায় বরই চাষ কৃষকদের জন্য লাভজনক ও অনুকূল।

সাপাহারের চাষি সিরাজুল জানান, এ বারই প্রথম বরই বাগান করেছেন তিনি। চলতি বছর বরইর ফলন অনেক ভালো। বাজারে বল সুন্দরী জাতের বরই মণপ্রতি বিক্রি হচ্ছে ২৫০০ থেকে ২৬০০ টাকা। বাজার স্থিতিশীল থাকলে বরই চাষে অনেক লাভবান হওয়া সম্ভব। আরেক বরই চাষি মামুন জানান, অন্য ফসলের তুলনায় বরই চাষ অধিক লাভজনক। বরই বাগানে তেমন পরিচর্যা করতে হয় না। পোরশা উপজেলার গাংঙ্গোর গ্রামের বাগান ইজারাদার মজিবুর রহমান বলেন, ১৯ বিঘা বল সুন্দরী বরইর বাগানে ফুল দেখে আট লাখ ১০ হাজার টাকায় এক বছরের জন্য ইজারা নিয়েছিলাম। তিন মাস পরিচর্যা করে সবসহ প্রায় ১২ লাখ টাকা খরচ হয়েছে। চট্টগ্রাম থেকে পাইকার এসে বরই কিনে নিয়ে গেছেন। পোরশা উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা মাহফুজ আলম বলেন, ভালো দাম পাওয়ার আশায় কৃষক এখন নতুন নতুন ফসল ও ফল চাষে আগ্রহী হচ্ছেন। কাশ্মীরী ও বল সুন্দরী বরইর দাম ভালো পাওয়ায় কৃষকদের ওই জাতের বরই চাষে পরামর্শ দেওয়া হচ্ছে।

এই বিভাগের আরও খবর