শিরোনাম
প্রকাশ : ১৪ আগস্ট, ২০১৯ ১৯:৫৯
আপডেট : ১৪ আগস্ট, ২০১৯ ২১:২২

বগুড়ায় ১১৬ ডেঙ্গু রোগীর হাসপাতালে ঈদ

নিজস্ব প্রতিবেদক, বগুড়া

বগুড়ায় ১১৬ ডেঙ্গু রোগীর হাসপাতালে ঈদ
ফাইল ছবি

১১৬ জন ডেঙ্গু রোগী ঈদ করলেন বগুড়ার বিভিন্ন সরকারি-বেসরকারি হাসপাতালে। ঈদেও আগের দিনে এবং ঈদের দিনেও বেশ কিছু ডেঙ্গু জ্বরে আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হয়। এর মধ্যে বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ ও মোহাম্মদ আলী হাসপাতালে ঈদ করেছেন ৬৩ জন পুরুষ, ১৫ জন নারী ও পাঁচজন শিশু। অন্যান্য বেসরকারি চিকিৎসা কেন্দ্রে ৩৩ জন রোগী ঈদ করেছেন বলে জানান বগুড়ার সিভিল সার্জন ডা. গওসুল আজিম চৌধুরী। 

জানা যায়, গত ৪০ দিনে বগুড়ায় দুই সরকারি হাসপাতালে ৪৩৭ জনসহ মোট ৫১৮ জন ডেঙ্গু রোগী বিভিন্ন হাসপাতালে চিকিৎসা নিয়েছেন।

বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ (শজিমেক) হাসপাতালের সহকারী পরিচালক (প্রশাসন) ডা. আবদুল ওয়াদুদ জানান, মঙ্গলবার সকাল পর্যন্ত ২৪ ঘণ্টায় এই হাসপাতালে ৯ জন ডেঙ্গু রোগী ভর্তি হয়েছেন। গত ৪০ দিনে হাসপাতালটিতে চিকিৎসা নেন ৪০৩ জন। সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেও গেছেন ৩১৭ জন। ছয় জন উন্নত চিকিৎসা নিতে ঢাকায় যান। বর্তমানে চিকিৎসা নিচ্ছেন ৮০ জন। 
ঈদের ছুটিতে ডেঙ্গু রোগী বাড়ার আশঙ্কায় প্রয়োজনীয় প্রস্তুতি নেওয়া হলেও রোগী তেমন বাড়েনি।

বগুড়া মোহাম্মদ আলী হাসপাতালের আরএমও ডা. শফিক আমিন কাজল জানান, এই হাসপাতালে  মোট ৩৪ জন ডেঙ্গু রোগী চিকিৎসা নিয়েছেন। এর মধ্যে ২৯ জন ছুটি নিয়ে বাড়ি চলে গেছেন। দু’জনকে বগুড়া শজিমেকে পাঠানো হয়েছে।

ডা. গওসুল আজিম চৌধুরী জানান, গত কয়েকদিনে বগুড়া শজিমেক হাসপাতালে ৪০৩ জন, মোহাম্মদ আলী হাসপাতালে ৩৪ জন এবং স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সসহ বিভিন্ন বেসরকারি ক্লিনিক-হাসপাতালে ৮১ জনসহ ৫১৮ জন ডেঙ্গু রোগী চিকিৎসা নিয়েছেন। মঙ্গলবার সকাল পর্যন্ত চিকিৎসাধীন রয়েছেন ১১৬ জন। এর মধ্যে শজিমেকে ৮০ জন, মোহাম্মদ আলীতে ৩ জন, শেরপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ৫ জন, আদমদীঘি উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ১ জন, রফাতউল্লাহ কমিউনিটি হাসপাতালে ১৪ জন, শামসুন্নাহার ক্লিনিকে৫ জন, ইসলামী হাসপাতালে ৩ জন, ডক্টরস ক্লিনিক ইউনিট-২ এ ৩ জন ও সিটি ক্লিনিকে ২ জন। 

তিনি বলেন ‘বগুড়ায় ডেঙ্গু জ্বর নিয়ে ভয়ের কোনও কারণ নেই। স্বাস্থ্য বিভাগের ডেঙ্গু মোকাবিলায় সব ধরনের প্রস্তুতি রয়েছে।

 

বিডি প্রতিদিন/ ওয়াসিফ


আপনার মন্তব্য