Bangladesh Pratidin || Highest Circulated Newspaper
শিরোনাম
প্রকাশ : ২১ অক্টোবর, ২০১৯ ১৭:৪৩

ছাত্রলীগের নেতা নির্বাচনে নেওয়া হল পরীক্ষা-ডোপ টেস্ট!

লক্ষ্মীপুর প্রতিনিধি:

ছাত্রলীগের নেতা নির্বাচনে নেওয়া হল পরীক্ষা-ডোপ টেস্ট!

মেয়াদ উত্তীর্ণ বিভিন্ন শাখা কমিটি গঠনে ব্যতিক্রমী উদ্যোগ নিয়েছে লক্ষ্মীপুর জেলা ছাত্রলীগ। নেতা নির্বাচনে ডোপ টেস্ট, লিখিত পরীক্ষা, জীবন বৃত্তান্ত সংগ্রহ করাসহ সাংগঠনিক দক্ষতার উপর গুরুত্ব দেওয়া হচ্ছে। 

বঙ্গবন্ধুর আদর্শকে লালন করে দেশের সেবায় শেখ হাসিনার বলিষ্ঠ নেতৃত্ব  সম্পর্কে জ্ঞান অর্জন, মাদকমুক্ত থেকে শিক্ষাঙ্গনে শিক্ষার পরিবেশ সু-নিশ্চিত করা ও মেধাবী  শিক্ষার্থীদের ছাত্রলীগের নেতৃত্বে আনতে এসব কর্মসূচি হাতে নেওয়া হয়েছে বলে জানান ছাত্রলীগ নেতারা। ঐতিহ্যবাহী ছাত্র সংগঠন বাংলাদেশ ছাত্রলীগের ভাবমূর্তি রক্ষায় সারাদেশে এ কর্মসূচি গ্রহণের দাবিও জানান তারা।

জানা যায়, লক্ষ্মীপুর জেলার মধ্যে সদর, কমলনগর, রায়পুর, রামগঞ্জ উপজেলা ও বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়সহ মোট ১৫টি ইউনিটে ছাত্রলীগের কমিটি মেয়াদ উত্তীর্ণ অবস্থায় চলছিল। 

দেশব্যাপী প্রধানমন্ত্রীর চলমান শুদ্ধি অভিযানে কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগ ও স্থানীয় আওয়ামীলীগ নেতাদের সমন্বয়ে এসব কমিটি ভেঙ্গে নতুন নেতৃত্ব গঠনের লক্ষ্যে সম্মেলনের তারিখ ঘোষণা করে জেলা ছাত্রলীগ। সম্প্রতি ব্যাপক উৎসাহ উদ্দিপনায় কমলনগর উপজেলা, উপকূল ডিগ্রী কলেজ ও চন্দ্রগঞ্জ থানা কমিটির সম্মেলন করে সংগঠনটি। ভেঙে দেওয়া হয় কমিটিগুলো। কমিটির পরবর্তী নেতা নির্বাচনে ভিন্ন আঙ্গিকে ব্যতিক্রমী উদ্যোগ নেয় ছাত্রলীগ। পদপ্রত্যাশীদের জীবন বৃত্তান্ত সংগ্রহ, পারিবারিক ও সামাজিক অবস্থান নির্নয়, মেধাবী ও সাংগঠনিক দক্ষতা যাচাইয়ে বঙ্গবন্ধু ও শেখ হাসিনার রাজনৈতিক জীবন চারন নিয়ে লিখিত পরীক্ষা এবং মাদকমুক্ত কিনা জানতে ডোপ টেষ্টের আয়োজন করে জেলা ছাত্রলীগ। 

আগ্রহী প্রার্থীরাও এসব পরীক্ষা-নিরীক্ষায় অংশ নেন। সোমবার স্থানীয় শ্যামলী আইডিয়াল টেকনিক্যাল স্কুল এন্ড কলেজে ৫০ মার্কের লিখিত পরীক্ষায় অংশ নেন চন্দ্রগঞ্জ থানা ছাত্রলীগের পদ প্রত্যাশীরা। এসময় কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের যুগ্ম  সাধারণ সম্পাদক তাহসান আহমেদ রাসেল,  সাংগঠনিক সম্পাদক নাজিম উদ্দিন, জেলা ছাত্রলীগ সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকের কঠোর পর্যবেক্ষনে প্রার্থীদের লিখিত পরীক্ষা নেওয়া হয়। এর আগে স্থানীয় হাজিরপাড়া উচ্ছ বিদ্যালয়ে হাজারো নেতা-কর্মীদের মূহুর্মূহ শ্লোগানে সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। এতে স্থানীয় সংসদ সদস্য একে এম শাহজাহান কামাল, জেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি-সাধারণ সম্পাদকসহ আওয়ামী লীগ ও ছাত্রলীগ নেতারা উপস্থিত ছিলেন।

কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক তাহসান আহমেদ রাসেল জানান, একজন কর্মী, দেশের স্বাধীনতা, মুক্তিযুদ্ধ ও বঙ্গবন্ধু এবং শেখ হাসিনার নেতৃত্ব সম্পর্কে যেন জানতে পারে সে লক্ষেই কাজ করছে বাংলাদেশ ছাত্রলীগ।

জেলা ছাত্রলীগ সভাপতি শাহাদাত হোসেন শরীফ জানান, বঙ্গবন্ধু-বাংলাদেশ ও প্রধানমন্ত্রীর ইতিহাস জানতে এবং ঐতিহ্যবাহী সংগঠন ছাত্রলীগকে ঢেলে সাজাতে নিজেদের দায়িত্ব পালন করছি মাত্র।  

সাধারণ সম্পাদক জিয়াউল করিম নিশান জানান, ছাত্রলীগের গঠনতন্ত্র অনুযায়ী সম্মেলন করে নতুন নেতৃত্ব সৃষ্টির মাধ্যমে বঙ্গবন্ধুর আদর্শ ও জননেত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্ব ফুটিয়ে তুলে ছাত্র সমাজকে ছাত্রলীগের পতাকা তলে আবদ্ধ করতে কাজ করছে জেলা ছাত্রলীগ।
 
বিডি প্রতিদিন/হিমেল


আপনার মন্তব্য