শিরোনাম
প্রকাশ : ১ জানুয়ারি, ২০২১ ০১:৪১
প্রিন্ট করুন printer

টেকনাফে স্বামীর ছুরিকাঘাতে স্ত্রী নিহত, ঘাতক স্বামী আটক

অনলাইন ডেস্ক

টেকনাফে স্বামীর ছুরিকাঘাতে স্ত্রী নিহত, ঘাতক স্বামী আটক

টেকনাফে পারিবারিক কলহের জের ধরে বার্মাইয়া রাখাইন স্বামীর ছুরিকাঘাতে স্থানীয় ৩ সন্তানের মা নিহত হয়েছেন। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শনের পর অভিযান চালিয়ে ঘাতক স্বামীকে আটক করেছে। 

প্রতিবেশীরা জানায়, বৃহস্পতিবার (৩১ ডিসেম্বর) বিকালে উপজেলার হ্নীলা চৌধুরীপাড়া রাখাইন পল্লীতে উছিংগ্যার মেয়ে চ খিং ওয়ান (৪৩) এবং তার স্বামী বার্মাইয়া উক্য ওয়ান এর সাথে পারিবারিক বিষয়াদি নিয়ে কথা কাটাকাটি ও ঝগড়ার সৃষ্টি হয়। এক পর্যায়ে বার্মাইয়া উক্য ওয়ান তার স্ত্রীর বুকের দুই পাশে, তলপেট ও হাতে এলোপাতাড়ি ছুরিকাঘাত করলে সে রক্তাক্ত হয়ে পড়ে যায়। তখন ছুরিকাঘাতে গুরুতর আহত ওই নারীর ২য় ছেলে প্রতিবেশীদের সহায়তায় দ্রুত তাকে চিকিৎসার জন্য টেকনাফ উপজেলা সদর হাসপাতালে নিয়ে যায়। সেখানে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক ওই নারীকে মৃত ঘোষণা করেন। এ খবর ছড়িয়ে পড়ার পর ঘাতক স্বামী আটক এড়াতে পালিয়ে যায়।

নৃশংস হত্যাকাণ্ডের ঘটনার খবর পেয়ে টেকনাফ মডেল থানার এসআই রফিকুল ইসলাম সঙ্গীয় ফোর্স নিয়ে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে গ্রাম সর্দারসহ স্থানীয়দের সাথে কথা বলেন। এরপর ঘাতক পানখালী পাহাড়ি ঢালায় আত্নগোপন করে আছে এমোণ খবর পেয়ে উপস্থিত জনসাধারণের সহায়তায় স্বামীকে আটক করে পুলিশ।

রাখাইন পল্লীর সর্দার মাষ্টার মংথিং অং জানান, ঘাতক স্বামী ছোটকাল হতে বার্মা থেকে এসে এই গ্রামে বসবাস করছিল এবং নিহত নারীর সাথে তার বিয়ে হয়। তাদের সংসারে ৩ জন সন্তান আছে। এরপূর্বেও ঘাতক স্বামী তার স্ত্রীকে দুইবার ছুরিকাঘাত ও গলাটিপে হত্যার চেষ্টা চালিয়েছিল। যা স্থানীয়ভাবে সমাধান করে দেওয়া হয়। এ ধরনের ঘটনা খুবই দুঃখজনক। তবে ঘাতক স্বামীকে সাথে সাথে আটক করায় পুলিশকে ধন্যবাদ জানাচ্ছি।

টেকনাফ মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মোঃ হাফিজুর রহমান বলেন, ঘটনার খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে। মৃতদেহ উদ্ধার করে মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে। অপরদিকে ঘাতক স্বামীকে আটক করে থানায় আনা হয়েছে।

 

বিডি-প্রতিদিন/ তাফসীর আব্দুল্লাহ


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর