শিরোনাম
প্রকাশ : ১৮ ফেব্রুয়ারি, ২০২১ ১৫:৪৮
প্রিন্ট করুন printer

শেরপুরে আলুর বাম্পার ফলন

শেরপুর প্রতিনিধি

 শেরপুরে আলুর বাম্পার ফলন

এ বছর  আলু উৎপাদনে বেশ চমক দেখিয়েছে শেরপুরের আলু চাষিরা। কবছর বাম্পার ফলন হলেও আলুর ন্যায্য মূল্য না পেয়ে আলু উৎপাদনে কিছুটা আগ্রহ হারিয়ে ফেলছিল চাষিরা। তবে গত বছর আলুর ভাল দাম পাওয়ায় এবার আলু লাগানোর জমির পরিমাণে সকল রেকর্ড ভঙ্গ হয়েছে। জেলার কৃষি বিভাগ মনে করে এ বছর আলুর উৎপাদনের রেকর্ড হবে। চাষিরা মনে করছে দৈব কোন ঘটনা না ঘটলে বাম্পার ফলন হবে এবার। 

কৃষি বিভাগের তথ্য মতে, শেরপুর জেলার সব উপজেলায় কমবেশি আলুর চাষ হয়েছে। তবে অন্যান্য উপজেলার চেয়ে শেরপুর সদর ও নকলা উপজেলায় সবচেয়ে বেশি আলুর আবাদ হয়েছে। তথ্য মতে, এ বছর  জেলায় ৫ হাজার ১৫১ মে. টন জমিতে আলুর চাষ হয়েছে। উৎপাদনের লক্ষ্যমাত্রা স্থির করা হয়েছে ১ লক্ষ ২০ হাজার ৩২২ মে. টন। যা আগে কখনও হয়নি। ২০১৬-১৭ অর্থবছরে আবাদ হয়েছিল ৪  হাজার ৮২৭ হেক্টর জমিতে। উৎপাদন হয় ৯৪ হাজার ৬০৯ মে. টন। ২০১৭-১৮  অর্থবছরে আবাদ হয় ৪ হাজার ৯৮০ হেক্টর জমিতে । উৎপাদন হয় ১ লক্ষ ৯ হাজর ৫৬০ মে.টন। ১৮-১৯ অর্থবছরে আবাদ হয় ৫ হাজার ২৫ হেক্টর জমিতে। উৎপাদন হয় ১ লাখ ১০ হাজার ৫৫০ মে. টন। ২০১৯-২০ অর্থবছরে লাগানো হয় ৫ হাজার ১১০ হেক্টর জমিতে। উৎপাদন হয় ১ লাখ ১০ হাজার ৪৮৭ মে. টন।

উল্লিখিত ৫ বছরের মধ্যে জেলায় এবারই তুলনামূলক সবচেয়ে বেশি জমিতে আলুর চাষ হয়েছে এবং লক্ষমাত্রাও বেশি। কৃষি অফিসের দেওয়া তথ্যের বাইরে এবার আরও বেশি জায়গাতে আলুর চাষ হয়েছে বলে প্রান্তিক কৃষকরা জানিয়েছে। দুবছর ধরে আলুর দাম ভাল বলে আগ্রহ নিয়ে এবার চাষিরা আলুর আবাদ করেছে বলে চাষিদের দাবি। ২০১৫ সালের পর থেকে ক্রমাগত লোকসান হওয়ায় আলু উৎপাদনে ভাটা পড়লেও দুবছর ধরে আলুর আবাদ বাড়ছে। চাষিদের মত এবার আলু উৎপাদন উপযোগী আবহাওয়া, সরকারি সহযোগিতা ও অভিজ্ঞতার কারণে আলুর বাম্পার ফলন হবে। তবে দাম কমে যাওয়ার আতংকও রয়েছে বেশ। কৃষকদের দাবি দেশে উৎপাদিত আলুর একটা অংশ বিদেশে রফতানি করা হোক। সদরে ব্যক্তি মালিকানাধীন একটি, বিএডিসির (শুধুমাত্র সরকারি বীজ রাখা হয়) ও নকলা উপজেলায় সরকারি একটি মোট তিনটি হিমাগার আছে। এই হিমাগারগুলোতে শেরপুরে উৎপাদিত আলু রাখার মত জায়গা সংকুলান হয়ে উঠে না। বাধ্য হয়ে বেশি মূল্যে অন্য জেলার বেসরকারি হিমাগারে আলু রাখতে হয় । চাষিরা চান, আলু রাখতে আরও সরকারি হিমাগার করা হোক।

শেরপুরের আলু চাষি আতাউর রহমান জানিয়েছেন, গতবার আলুতে ভাল লাভ পেয়েছি। এবার আরও বেশি জমিতে আলুর চাষ করেছি। কদিন পর আলু ঘরে উঠাবো। বাম্পার ফলনের আশায় আছি। 
জেলা কৃষি সম্প্রসারণ বিভাগের উপপরিচালক মোহিত কুমার পাল জানিয়েছেন, দুবছর ধরে আলুর ভাল দাম পেয়েছে কৃষকরা। ফলে আলু উৎপাদনে আগ্রহ বেড়েছে। বাজারে আলুর চাহিদা বেড়েছে, কৃষকদের খাদ্য অভ্যাস পরিবর্তন হয়েছে। সবজি হিসেবে আলুর চাহিদা বেড়েছে। তবে আলু বিদেশে রপ্তানি করতে পারলে কৃষক আলুর আরও ভাল দাম এবং আলু চাষে কৃষকরা আরও মনোযোগী হতো।  

বিডি প্রতিদিন/আল আমীন            
         

 


আপনার মন্তব্য

পরবর্তী খবর

প্রকাশ : ২৫ ফেব্রুয়ারি, ২০২১ ১৯:৩৬
প্রিন্ট করুন printer

নাটোরে ২২ মাদকসেবী গ্রেফতার

নাটোর প্রতিনিধি

নাটোরে ২২ মাদকসেবী গ্রেফতার
নাটোরে ২২ মাদকসেবী গ্রেফতার।

নাটোরে মাদক সেবনের সময় ২২ মাদকসেবীকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব। এসময় তাদের কাছে থেকে ৫ গ্রাম গাঁজা ও ২৫০ গ্রাম চোলাই দেশী মদসহ মাদক সেবনের উপকরণ জব্দ করা হয়। বুধবার রাতে সদর উপজেলার একডালা গ্রাম থেকে তাদের গ্রেফতার করা হয়।

গ্রেফতার ব্যক্তিরা হলেন-মো. মিঠু (৪৮), রওশান আলী (৬২), মো. মোতালেব (৫৫), শরিফুল ইসলাম (৪৫), মো. রিয়াজ (৩৫), মো. হৃদয় (২২), মো. বিপ্লব (২৫), মো. আনোয়ার হোসেন (৪৮), আবু সাইদ (৬২), সামছের জোয়ার্দ্দার (৪৬), মামুন বিশ্বাস (২৭), মো. বাবু প্রমানিক (৩২), মো. ইউসুফ (৫০), চান্দের মণ্ডল (৪০), রাব্বানী মোল্লা (২৪), শরিফুল ইসলাম (৩৮), মো. আজিজুল (২২), মো. ইমতাজ (৪৮), বিপ্লব কুমার দাস (৩৮), মো. শামীম (২০), নাহিদ (২৩) ও তোফাজ্জেল হোসেন (৫৬)।

বিষয়টি নিশ্চিত করে সিপিসি-২ র‌্যাব-৫ নাটোর ক্যাম্পের কোম্পানি কমান্ডার এএসপি মো. মাসুদ রানা জানান, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে বুধবার সন্ধ্যার পর তার নেতৃত্বে সদর উপজেলার একডালা গ্রামে অভিযান চালায় র‌্যাব সদস্যরা।

এসময় একত্রে মাদকসেবনের সময় ওই ২২ জনকে হাতেনাতে গ্রেফতার করা হয়। তারা বিভিন্ন এলাকা থেকে এসে একত্রে বসে মাদক সেবন করছিল। গ্রেফতার ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে সদর থানায় মামলা করা হয়েছে বলেও জানান তিনি।

বিডি প্রতিদিন/এমআই


আপনার মন্তব্য

পরবর্তী খবর

প্রকাশ : ২৫ ফেব্রুয়ারি, ২০২১ ১৯:২১
প্রিন্ট করুন printer

বাগেরহাটে গ্রাম আদালত সম্পর্কে জনসচেতনতা বৃদ্ধিতে সভা

বাগেরহাট প্রতিনিধি

বাগেরহাটে গ্রাম আদালত সম্পর্কে জনসচেতনতা বৃদ্ধিতে সভা

বাগেরহাটে গ্রাম আদালত সম্পর্কে জনসচেতনতা বৃদ্ধিতে সরকারি ও বেসরকারি প্রতিষ্ঠানসমূহের অংশগ্রহণে সমন্বিত পরিকল্পনা প্রণয়ন সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

বাগেরহাট জেলা প্রশাসনের আয়োজনে গ্রাম আদালত সক্রিয়করণ (২য় পর্যায়) প্রকল্পের আওতায় বৃহস্পতিবার সকালে ডিসি অফিসের সম্মেলন কক্ষে এ সভা অনুষ্ঠিত হয়।

বাগেরহাট স্থানীয় সরকারের উপ-পরিচালক দেব প্রসাদ পালের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন বাগেরহাট জেলা প্রশাসক আ ন ম ফয়জুল হক।

এসময় অন্যান্যের মধ্যে অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক খোন্দকার মো. রিয়াজুল করিম, নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট খাদিজা আক্তার, বাগেরহাট প্রেস ক্লাবের সভাপতি নীহার রঞ্জন সাহা, বাগেরহাট ফাউন্ডেশনের সাধারণ সম্পাদক আহাদ উদ্দিন হায়দার উপস্থিত ছিলেন।

আরও উপস্থিত ছিলেন গ্রাম আদালত সংক্রিয়করণ প্রকল্পের ডিস্ট্রিক্ট ফ্যাসিলেটর মহিতোষ কুমার রায়সহ বাগেরহাট জেলার ৬টি উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা, সাংবাদিক, জনপ্রতিনিধি ও এনজিও প্রতিনিধিরা।

বিডি প্রতিদিন/এমআই


আপনার মন্তব্য

পরবর্তী খবর

প্রকাশ : ২৫ ফেব্রুয়ারি, ২০২১ ১৯:১৮
প্রিন্ট করুন printer

নাটোরে আইনজীবী সমিতির নির্বাচনে ভোট গ্রহণ

নাটোর প্রতিনিধি

নাটোরে আইনজীবী সমিতির নির্বাচনে ভোট গ্রহণ

নাটোরে জেলা আইনজীবী সমিতির নির্বাচন-২০২১ এর ভোট গ্রহণ করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার সকাল ৯টা থেকে জেলা আইনজীবী সমিতির কার্যালয়ে এই নির্বাচনের ভোট গ্রহণ শুরু হয়। ভোট গ্রহণ চলেছে বিকেল ৩টা পর্যন্ত।

নির্বাচনে সম্মিলিত আইনজীবী সমন্বয় পরিষদ (টগর-পারভেজ পরিষদ) ও জাতীয়তাবাদী আইনজীবী ঐক্য পরিষদ (রুহুল আমিন তালুকদার টগর-শরিফুল হক মুক্তা পরিষদ) এই দুইটি প্যানেলে ১১ জন করে মোট ২২ জন প্রার্থী নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন।

সমিতির তালিকাভুক্ত ২৮৩ জন সদস্য এই নির্বাচনে তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করবেন। প্রধান নির্বাচন কমিশনার অ্যাডভোকেট আসাদুল ইসলামসহ ৫ সদস্য বিশিষ্ট নির্বাচন কমিশন এই নির্বাচন পরিচালনা করছেন।

সকাল ৯টা থেকেই আইনজীবী সদস্যদের সারিবদ্ধভাবে দাঁড়িয়ে তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করতে দেখা গেছে। সুষ্ঠু ও সুশৃংখলভাবে নির্বাচন সম্পন্ন করতে বিপুল সংখ্যক পুলিশ ও ডিবি সদস্যরা নিয়োজিত রয়েছেন।

বিডি প্রতিদিন/আল আমীন


আপনার মন্তব্য

পরবর্তী খবর

প্রকাশ : ২৫ ফেব্রুয়ারি, ২০২১ ১৯:১৭
প্রিন্ট করুন printer

ভালুকায় ছাত্রদলের আনন্দ মিছিলে পুলিশি বাধার অভিযোগ

ভালুকা (ময়মনসিংহ) প্রতিনিধি

ভালুকায় ছাত্রদলের আনন্দ মিছিলে পুলিশি বাধার অভিযোগ

 

দীর্ঘ ১৮ বছর পর ভালুকা উপজেলা, পৌর ও কলেজ শাখা ছাত্রদলের আহ্বায়ক কমিটি ঘোষণা করায় আনন্দ মিছিল বের করা হয়।

বৃহস্পতিবার বেলা সাড়ে ১১ টার সময় উপজেলার ছাত্রদলের আহ্বায়ক লুৎফর রহমান খান সানি ও সদস্য সচিব রিয়াদ পাঠানের নেতৃত্বে শহরের বিভিন্ন স্থান থেকে খন্ড খন্ড মিছিল বের করে। এ সময় পুলিশ ও ক্ষমতাসীন দলের ছাত্র সংগঠন ছাত্রলীগের নেকাকর্মীরা তাতে বাধা সৃষ্টি করে বলে নবগঠিত কমিটির নেতৃবৃন্দরা অভিযোগ করেন। 
উপজেলার ছাত্রদলের আহ্বায়ক লুৎফর রহমান খান সানি ও সদস্য সচিব রিয়াদ পাঠান, ভালুকা সরকারী কলেজ শাখার আহ্বায়ক এস এম আলী রাজ ও সদস্য সচিব মাহিদ আল হাসান মৃদুল, পৌর শাখার আহ্বায়ক মিয়াদুল হক খান ও সদস্য সচিব শাকিল খান এবং সোনার বাংলা কলেজ শাখার আহ্বায়ক সোহেল রানা ও সদস্য সচিব মনির হোসেনের নেতৃত্বে আলাদা আলাদা আনন্দ মিছিল অনুষ্ঠিত হয়। 

বিডি-প্রতিদিন/সালাহ উদ্দীন


আপনার মন্তব্য

পরবর্তী খবর

প্রকাশ : ২৫ ফেব্রুয়ারি, ২০২১ ১৯:০৮
প্রিন্ট করুন printer

কুমিল্লায় কর্মকর্তা-কর্মচারীদের অচেতন করে ব্যাংক লুটের চেষ্টা!

কুমিল্লা প্রতিনিধি

কুমিল্লায় কর্মকর্তা-কর্মচারীদের অচেতন করে ব্যাংক লুটের চেষ্টা!
চান্দিনা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি ব্যাংক কর্মকর্তা ও কর্মচারী।

কুমিল্লার চান্দিনায় কৃষি ব্যাংকের একটি শাখার চারজন কর্মকর্তা-কর্মচারীকে অচেতন করে ব্যাংকটি লুটের চেষ্টা করে দুর্বৃত্তরা। বুধবার রাত ৮টায় চান্দিনা উপজেলার মাইজখার ইউনিয়নের বদরপুর বাজারের কৃষি ব্যাংক শাখায় এ ঘটনা ঘটে। 

এ সময় অচেতন অবস্থায় চার জনকে উদ্ধার করে চান্দিনা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়। তারা হলেন, ব্যাংকের দ্বিতীয় কর্মকর্তা নওশের আলী (৫৫), ক্যাশ কর্মকর্তা আরিফুজ্জামান (৩১), কর্মকর্তা ফেরদৌস আলম (৩২) ও নিরাপত্তা প্রহরী আমির হোসেন (৩২)। 

হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ব্যাংক কর্মকর্তা আরিফুজ্জামান জানান, অন্যান্য দিনের তুলনায় বুধবার কাজের প্রচুর চাপ থাকায় সেগুলো সামাল দিতে আমরা ৩ জন কর্মকর্তা ও একজন প্রহরী ব্যাংকে কাজ করছিলাম। রাত আনুমানিক ৮টার দিকে আমার চোখ মুখ অন্ধকার করে বমি বমি ভাব লাগছিল। এ সময় দেখি বাকিরা কেউ টেবিলেই মাথা রেখে ঘুমিয়ে পড়ছে, আবার কেউবা বমি করছে। পরে আমি আর কিছুই বলতে পারবো না। 

ব্যাংক ম্যানেজার রুহুল আমিন জানান, আমি সন্ধ্যা সাড়ে ৭টায় ব্যাংক থেকে বের হই। ওই সময় বিদ্যুৎ না থাকায় জেনারেটর চলছিল। রাত ৮টার দিকে নৈশ প্রহরী রফিকুল ইসলাম এসে দেখেন নিরাপত্তা প্রহরী আমির হোসেন বমি করে অজ্ঞান হয়ে পড়ে আছেন। ভেতরে গিয়ে দেখেন বাকিদেরও একই অবস্থা। তাৎক্ষণিক আমাকে ফোন করে বিষয়টি জানান। এ সময় স্থানীয়দের সহযোগিতায় তাদেরকে উদ্ধার করে চান্দিনা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়। 

তিনি আরও বলেন, বুধবার বিকাল থেকে বদরপুর বাজারের পাশে একটি মাহফিল চলছিল। সেই সুবাদে সন্ধ্যার পর বাজার অনেকটাই জনশূন্য। আমরা ধারণা করছি, অজ্ঞান পার্টি কোন বিষক্রিয়া প্রয়োগ করে সকলকে অচেতন করে লুট করার চেষ্টা করেছিল। যথা সময়ে আমাদের ব্যাংকের নৈশ প্রহরী আসায় সকলকে উদ্ধার করা সম্ভব হয়েছে। আমাদের ব্যাংকের কোনো প্রকার ক্ষতি হয়নি। 

চান্দিনা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডা. তানভীর হাসান জানান, যে চার জনকে আনা হয়েছে তাদেরকে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে ভর্তি করা হয়েছে। তবে এখন পর্যন্ত সঠিক ভাবে তাদের অজ্ঞান হওয়া ও বমি করার কারণ নির্ণয় করা সম্ভব হয়নি। রোগীদের পর্যবেক্ষণে রাখা হয়েছে।

চান্দিনা থানার অফিসার ইনচার্জ শামসউদ্দিন মোহাম্মদ ইলিয়াছ জানান, আমরা ঘটনাস্থলে গিয়েছি। লুটের কোনো আলামত এখনও আমরা পাইনি। আহত সকলের সাথে পৃথক ভাবে কথা বলেছি। যারা বমি করেছে তাদের নমুনা সংগ্রহ করেছি। আমাদের তদন্ত চলছে। তদন্ত সাপেক্ষে যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহণ করবো। 

বিডি-প্রতিদিন/বাজিত হোসেন


আপনার মন্তব্য

পরবর্তী খবর