শিরোনাম
প্রকাশ : বৃহস্পতিবার, ৫ মার্চ, ২০২০ ০০:০০ টা
আপলোড : ৪ মার্চ, ২০২০ ২৩:৩৪

টাইগারদের সিরিজ জয়

হার না মানা মনোভাব জিইয়ে রাখতে হবে

টাইগারদের সিরিজ জয়

জিম্বাবুয়ের বিরুদ্ধে ওয়ানডেতে সিরিজ জয় বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের শিরস্ত্রাণে সোনালি পালক সংযোজন করেছে। সিলেটে প্রথম খেলায় টাইগাররা সফরকারী দলের বিরুদ্ধে ১৬৯ রানের বিশাল ব্যবধানে হেসেখেলে জিতলেও দ্বিতীয় ম্যাচে জয় এসেছে ঘাম ঝরিয়ে। বলা যায়, হারতে হারতে জয় পেয়েছে বাংলাদেশ। হারলেও অষ্টম জুটিতে জিম্বাবুয়ের লড়াকু মনোভাব ক্রিকেটপ্রেমীদের মুগ্ধ করেছে। হার না মানা মনোভাব নিয়ে লড়াইয়ের জন্য কৃতিত্বের দাবিদার সফরকারী দল। সিলেট ক্রিকেট স্টেডিয়ামে মঙ্গলবার প্রথমে ব্যাট করে বাংলাদেশ করেছিল ৩২২ রান। জিম্বাবুয়ের বিরুদ্ধে এটি একটি রেকর্ড। আফ্রিকার দলটির বিরুদ্ধে আগের ম্যাচেই ৩২১ রান করেছিল মাশরাফি বাহিনী। তবে ৩২৩ রানের পাহাড় টপকাতে নেমে লড়াকু মনোভাবের কারণে জয়ের খুব কাছে চলে গিয়েছিল জিম্বাবুয়ে। কিন্তু ৩১৮ রানে আটকে যায় তাদের ইনিংস। এ ম্যাচে ১৫৮ রানের ইনিংস খেলে ইতিহাস গড়েছেন তামিম ইকবাল। বাংলাদেশি ব্যাটসম্যানদের মধ্যে ব্যক্তিগত সর্বোচ্চ রানের এটি নতুন রেকর্ড। এর আগে সর্বোচ্চ ১৫৪ রানের রেকর্ডটিও ছিল তামিমের। ৫০ বলে ৫৫ রানের দারুণ একটি ইনিংস খেলেছেন মুশফিকুর রহিমও। ৩২৩ রানের লক্ষ্য তাড়া করতে নেমে ২২৫ রান করতেই ৭ উইকেট হারায় জিম্বাবুয়ে। তখন মনে হচ্ছিল জয় যেন সময়ের ব্যাপার। কিন্তু অষ্টম উইকেট জুটিতে তিরিপানো ও মুতুম্বজি মাত্র ৪৪ বলে ৮০ রান করে ম্যাচের চিত্র পাল্টে দেন। শেষ ওভারের নাটকে অবশ্য জিতে যায় বাংলাদেশ। এ ওভারে জয়ের জন্য জিম্বাবুয়ের প্রয়োজন ছিল ২০ রান। জিম্বাবুয়ের ব্যাটসম্যানদের পণ তখন মন্ত্রের সাধন কিংবা শরীর পাতন। বোলার ব্যাটসম্যান তিরিপানো টানা ২ বলে ছক্কা হাঁকালে উজ্জ্বল হয়ে ওঠে জিম্বাবুয়ের সম্ভাবনা। শেষ ২ বলে তাদের দরকার ছিল ৬ রান। কিন্তু আল আমিন পরাজয় এড়াতে সক্ষম হন কৌশলী বল করে। জিম্বাবুয়ের বিরুদ্ধে সিরিজ জয়ের ফলে এখন সফরকারীদের হোয়াইটওয়াশের স্বপ্ন দেখছে বাংলাদেশ। ওয়ানডেতে মঙ্গলবার অর্জিত হয়েছে বাংলাদেশের ২৫তম সিরিজ জয়। এর মধ্যে ১১টিই জিম্বাবুয়ের বিরুদ্ধে। কঠিন হলেও জয় মানেই জয়। শেষ মুহূর্তেও স্নায়ুর চাপ ঠিক রাখার পুরস্কার পেয়েছে টাইগাররা। আরও এগিয়ে যেতে এমন হার না মানা মনোভাব জিইয়ে রাখার বিকল্প নেই।


আপনার মন্তব্য