Bangladesh Pratidin || Highest Circulated Newspaper
শিরোনাম
প্রকাশ : শনিবার, ২৩ জুন, ২০১৮ ০০:০০ টা
আপলোড : ২২ জুন, ২০১৮ ২২:৪৬

ইন্টারভিউ♦পূজা চেরী

ভাঙা বেঞ্চে বসে ছবিটি দেখেছি

ভাঙা বেঞ্চে বসে ছবিটি দেখেছি

নবাগত চিত্রনায়িকা পূজা চেরীর দ্বিতীয় ছবি রায়হান রাফির ‘পোড়ামন টু’। মুক্তির পর থেকেই পূজার অভিনয় দর্শক প্রশংসিত হয়েছে। জাজ মাল্টিমিডিয়ার প্রযোজনায় এই ছবিতে পূজা চেরীর সঙ্গে জুটি বেঁধেছেন সিয়াম। মুক্তিপ্রাপ্ত এই ছবি ও শিশুশিল্পী থেকে নায়িকা হয়ে ওঠার গল্প নিয়ে তার সঙ্গে কথা বলেছেন— পান্থ আফজাল

 

কেমন আছেন? ব্যস্ত মনে হচ্ছে?

বেশ ভালো আছি। হুমম... অনেকটাই ব্যস্ত বলা যায়। এখন শুটিংয়ে, মেকআপ নিচ্ছি।

 

কোন ছবির শুটিং চলছে?

রায়হান রাফির ‘দহন’ ছবির। সঙ্গে সিয়াম রয়েছে। ঈদের আগে ৭-৮ দিন শুটিং করা হয়েছিল। ঈদের পরে গত ৪ দিন ধরে একটানা কাজ করছি। আমি আশা নামের একজন গার্মেন্ট মেয়ের চরিত্রে অভিনয় করছি।

 

এবার একটু অন্য বিষয়ে আসি। ‘পোড়ামন-টু’ নিয়ে দর্শক সাড়া কেমন?

বলার কোনো ভাষা খুঁজে পাচ্ছি না। আমি দর্শকের ব্যাপক সাড়ায় খুবই আনন্দিত। ঈদের দিন আমি, সিয়াম, আজিজ ভাই, রাফি ভাই আর আম্মু ঢাকার মধ্যে পাঁচটি হল-স্টার সিনেপ্লেক্স, ব্লকবাস্টার, শ্যামলী, বলাকা আর বর্ষাতে গিয়েছিলাম। সব হলই হাউসফুল ছিল, ছিল উপচে পড়া ভিড়। অনেকে টিকিটই পায়নি। ছবিটি দেখে দর্শক হেসেছে, কেঁদেছে। সবাই ছবি দেখে হল থেকে চোখ মুছতে মুছতে বের হয়েছে। দর্শক আমাদের সঙ্গে সেলফি তুলেছেন, ছবিটি নিয়ে প্রশংসা করেছেন। আমি ও সিয়াম দুজনই এ ব্যাপারগুলো খুবই উপভোগ করেছি। এর চেয়ে বড় প্রাপ্তি আর কী আছে বলুন!

 

শুনলাম দর্শক টিকিট না পেয়ে টুল, মোড়া, বেঞ্চ নিয়ে হলে ছবি দেখেছে?

ঠিকই শুনেছেন। সিয়ামের বাড়ি তো পিরোজপুর। সেখানকার হলে দর্শকরা সিট না পেয়ে টুল, মোড়া, বেঞ্চ নিয়ে ছবি দেখেছে। আর আমি ছবিটি ভালো করে দেখতেই পারিনি, টিকিট পায়নি। স্টার সিনেপ্লেক্সে সিঁড়িতে বসে ছবি দেখার নিয়ম নেই। তাই আমাদের হল থেকে বের করে দিয়েছে। জয়দেবপুরের বর্ষাতেই কোনো সিট পায়নি। আমি, সিয়াম ও আজিজ ভাই একটা ভাঙা বেঞ্চে আর আম্মু-রাফি ভাই সিঁড়িতে বসে ছবি দেখেছি। তবে আমি এই বিষয়গুলো খুবই উপভোগ করেছি।

 

তাহলে তো সিয়াম-পূজা জুটি টিকে গেল...

হা হা... তা এখন বলতেই পারেন! দর্শক আমাদের জুটিকে ভালোবেসেছে, একসেপ্ট করেছে। আমরা অনেক হলে ইন্টারভেলের পর আর ছবি শেষে ঢুকেছি। সেই মুহূর্তে দর্শক আমাদের দেখে জড়িয়ে ধরবে না কি করবে ভেবে উঠতে পারছিল না! সে সময় অনেকের চোখে জল ছিল।

 

সহশিল্পী হিসেবে সিয়াম কেমন?

এক্ষেত্রে আগে বলব, সে একজন ভালো মানুষ। তারপর তার অভিনয়। হি ইজ অ্যা ভেরি গুড অ্যাক্টর। সে সহশিল্পী হিসেবে খুবই হেল্পফুল। আর অফস্ক্রিনে তার সঙ্গে আমার মারামারি, ঝগড়া, খুনসুটি তো লেগেই আছে।

 

অন্য সহশিল্পীরা কেমন করেছেন?

তাদের নিয়ে কোনো কিছু বলার যোগ্যতা আমার নেই। তাদের আমি বড় একজন ফ্যান। তারা তাদের উচ্চতায় সর্বোচ্চ পারফরম্যান্স দিয়েছে। তাদের সম্পর্কে আর কী বলব বলেন!

 

‘নূরজাহান’-এর পর ‘পোড়ামন টু’। জার্নিটা কেমন লাগছে?

প্রথমত, শিশুশিল্পী, এরপর ‘নূরজাহান’ এবং শেষমেশ পোড়ামন টু-জার্নিটা বলতে গেলে স্বপ্নের মতো! অনেক অভিজ্ঞতা হয়েছে। সবাই এখন আমাকে সিনেমার নায়িকা হিসেবে অন্যভাবে চেনে। ভাবতে ভালোই লাগে।

 

নায়িকা এখন। আগের সেই বাচ্চামি স্বভাব এখনো কি আছে?

অনেকখানি! আমি তো এখনো সব সময় দুষ্টুমি করি। সিয়ামের সঙ্গে আমার সব সময় কোনো না কোনো খুনসুটি লেগেই থাকে। আমি সিয়াম ও আজিজ ভাই-দুজনকেই কিন্তু মিমিক্রি করে দেখাতে পারি।

 

শিশুশিল্পী থেকে নায়িকা, চ্যালেঞ্জও বটে...

হ্যাঁ, তা তো অবশ্যই। সে বিষয়টা মাথায় রেখেই চেষ্টা করেছি, করেছি অভিনয়। কারণ এর আগে সব অন্য ধরনের শিশু ক্যারেক্টার প্লে করতাম। এখন একজন হিরোইন হিসেবে। তাছাড়া হিরোইন হিসেবে পুরো ছবি আমাকেই টানতে হয়। আমি সব সময় চেষ্টা করি অভিনয়ের সেরাটা ঢেলে দিতে।

 

অভিনয় আর পড়াশোনার সমন্বয় হচ্ছে কীভাবে?

এটা সত্য, পড়াশোনার পাশাপাশি অন্য দিকে মনোযোগ দিতে গেলে একটু হ্যাম্পার হয় ঠিকই, কিন্তু সেই ক্ষতিটা পূরণ করার চেষ্টা করি। সামনে এসএসসি পরীক্ষা দেব। তাই যে কোনো জায়গায় বই-খাতা নিয়ে যাই, সুযোগ পেলেই পড়ার চেষ্টা করি। এছাড়া শিক্ষক-শিক্ষিকারাও হেল্প করেন।

 

অভিনয় না গ্লামার-কোনটাকে বেশি প্রাধান্য দিয়েছেন?

আসলে গ্লামার দেখে কাজ করা শুরু করলে আর অভিনয় হয়ে উঠে না। তাই আমি অ্যাকটিংটা আগে দেখি, পড়ে নিজের গ্লামার নিয়ে চিন্তা করি। আজ আমি অভিনয় দিয়ে এই পর্যায়ে, পরে আমার সৌন্দর্য।

 

জাজের সঙ্গে চুক্তিবদ্ধ আছেন, মাঝে যদি অন্য ব্যানার থেকে ভালো ছবির অফার আসে...

হিরোইন হিসেবে জাজের সঙ্গে চুক্তিবদ্ধ আছি। ভালো ছবির অফার এলে অবশ্যই করব। এক্ষেত্রে জাজের অনুমতি তো লাগবেই। আর গল্প ও কাজ ভালো হলে কেন তারা অনুমতি দেবে না!

 

‘প্রেম আমার টু’ ছবির খবর কী?

এ ছবিটির শিলিগুড়ি ও কলকাতা অংশের শুটিংয়ের ৫০% কাজ শেষ। বাকি কাজ হবে বাংলাদেশে।


আপনার মন্তব্য