Bangladesh Pratidin || Highest Circulated Newspaper
শিরোনাম
প্রকাশ : বুধবার, ১ মে, ২০১৯ ০০:০০ টা
আপলোড : ৩০ এপ্রিল, ২০১৯ ২১:৫১

সবাই ছুটছে ওয়েব ফিল্ম সিরিজে

আলাউদ্দীন মাজিদ

সবাই ছুটছে ওয়েব ফিল্ম সিরিজে

নানা কারণে প্রযোজকরা যখন চলচ্চিত্র নির্মাণ থেকে মুখ ফিরিয়ে নিচ্ছেন তখনই বড় পর্দায় চলচ্চিত্র দেখার স্থানটি দখল করে নিয়েছে নেট দুনিয়া। ইন্টারনেটে  ওয়েব ফিল্ম বা ওয়েব সিরিজ দেখতেই এখন স্বাচ্ছন্দ্যবোধ করেন দর্শক। দর্শক গ্রহণযোগ্যতার কারণেই বর্তমান সময়ে নির্মাতারা ওয়েব ফিল্ম আর ওয়েব সিরিজ নির্মাণে ব্যস্ত হয়ে পড়েছেন। তারকাশিল্পীরাও চলচ্চিত্রের অভাবে জনপ্রিয় নতুন এই মাধ্যমটির দিকে ছুটছেন। এসব তারকার মধ্যে কয়েকজন হলেন-পপি, রিয়াজ, নিপুণ, সম্রাট, অপূর্ব, বিদ্যা সিনহা মিম, মোশাররফ করিম, তিশা, ইমন, আমান, চঞ্চল, মম, আঁচল, সিয়াম, নাবিলা, পরীমণি, আইরিন, একে আজাদ, আমান রেজা, রিও, ইমতু, পরীমণি, সাফা প্রমুখ। অন্যদিকে নির্মাতাদের মধ্যে রয়েছেনÑঅনন্য মামুন, সাফিউদ্দীন সাফি, সৈকত নাসির, গিয়াসউদ্দিন সেলিম, শিহাব শাহিন, দীপঙ্কর দীপন, তৌহিদ মিতুল, তৌকির আহমেদ প্রমুখ। গিয়াসউদ্দিন সেলিম পরীমণিকে নিয়ে নির্মাণ করলেন ‘প্রীতি’। শিহাব শাহিনের ওয়েব ফিল্ম ‘দ্বিতীয়  কৈশোর’-এ অভিনয় করেছেন তাহসান, অপূর্ব, আফরান নিশো, সানজীদা প্রীতি প্রমুখ। দীপঙ্কর দীপন ভারতের ভেঙ্কটেশ ফিল্মসের ডিজিটাল প্লাটফর্ম ‘ ইৈচৈ’য়ের ব্যানারে তৈরি করেছেন ওয়েব ফিল্ম ‘লিলিথ’। সিয়াম আহমেদ এবং নাবিলা অভিনয় করছেন ‘লিলিথে’। এ ছাড়া অনন্য মামুনের ‘ইন্দুবালা’, অনিমেষ আইচের ‘বিউটি অ্যান্ড দ্য বুলেট’, শামীম জামানের ‘আলটিমেটাম’, মোস্তফা কামাল রাজের কুয়াশা, অনন্য মামুনের জার্নি,  সৈকত নাসিরের ট্রাপড, ব্যাড বয়েজ, তৌহিদ মিতুলের গার্ডেন গেম। এ ছাড়াও ওয়েব সিরিজ হিসেবে আছে দীপঙ্কর দীপনের নীল দরজা, তৌকীর আহমেদের  ফেলুদা ইত্যাদি। ওয়েব ফিল্ম ‘বিরহ উত্তর’ নির্মাণ করেছেন তৌকীর আহমেদ।  ‘বিউটি অ্যান্ড দ্য বুলেট’ নির্মাণ করেছেন অনিমেষ আইচ। এতে অভিনয় করেছেন সুবর্ণা মোস্তফা, সব্যসাচী মুখার্জি, তাহসান, জাকিয়া বারী মম, আফরান নিশো, বিদ্যা সিনহা মিম, ইমন, মিম মানতাশা প্রমুখ। অমিতাভ রেজা নির্মাণ করেন ‘ঢাকা মেট্রো’। এতে অভিনয় করেছেন ফেরদৌস হাসান নেভিল, অপি করিম প্রমুখ। এরপর তিনি নেটফ্লিক্সের জন্য নির্মাণ করেন ‘নিঃশব্দতার শহর’ নামে স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র। অমিতাভ রেজা বলেন, ‘সারাবিশ্বেই এখন ওয়েব সিরিজ নির্মিত হচ্ছে। আমাদেরও সেই পথে এগিয়ে যাওয়া দরকার।’ নির্মাতা মিজানুর রহমান আরিয়ান বেশ কয়েকটি ওয়েব সিরিজ নির্মাণ করেছেন। তিনি বলেন, ‘ডিজিটাল’ প্লাটফর্মের আলাদা কিছু দর্শক রয়েছে। তারা টিভি নাটক খুব বেশি দেখে না। ডিজিটাল প্লাটফর্মগুলো ভালো বাজেট দিচ্ছে। আমরাও তাই ওয়েব সিরিজ নির্মাণে আগ্রহ পাচ্ছি।’ অভিনেত্রী সাফা কবির বি প্রীতম ও ইমরান ইমনের যৌথ পরিচালনায় ‘প্রজাপতির সংসার’ নামের ওয়েব সিরিজে কাজ করেছেন। এতে আরও আছেন জোভান। চলচ্চিত্রকার এবং দর্শকদের মধ্যে বেশিরভাগই বলছেন, আগামী দিনে ‘ওয়েব সিরিজ’ আর ‘ওয়েব ফিল্ম’ হতে যাচ্ছে বিনোদনের প্রধান মাধ্যম। ওয়েব সিরিজ বা ফিল্ম কেন? এর উত্তরে দীপঙ্কর দীপন বলেন, গল্প বলার স্বাধীনতা রয়েছে এই মাধ্যমে। চলচ্চিত্রে চাইলেই সব গল্প দর্শকদের দেখানো যায় না, বাধ্যবাধকতা থাকে। আর দর্শক চাইলেই পৃথিবীর যে কোনো স্থানে বসে ওয়েব সিরিজ যে কোনো সময়ই দেখে ফেলতে পারছেন। গিয়াসউদ্দিন সেলিম বলেন, বর্তমানে নতুন একটা ট্রেন্ড ওয়েব সিরিজ। আমার কাছে তো বেশ মজারই লাগে। আর দর্শকরাও ওয়েব সিরিজ নিয়ে বেশ এক্সসাইটেড। বিশ্বের নির্মাতারা ওয়েব সিরিজ নির্মাণ করছেন। আমরা পিছিয়ে থাকব কেন? অনিমেষ আইচের ‘বিউটি অ্যান্ড দ্য বুলেট’ নামের ওয়েব সিরিজে কাজ করছেন বিদ্যা সিনহা মিম। তিনি বলেন, নতুন প্লাটফর্মের এ কাজটি করে বেশ ভালো লাগছে। এ ছাড়া শামীম জামানের পরিচালনায় মোশাররফ করিম ‘আলটিমেটাম’ নামের ওয়েব সিরিজে কাজ করেছেন। যারা ওয়েব সিরিজ নির্মাণ করছেন কিংবা যেসব শিল্পী ও কলাকুশলীরা এর সঙ্গে যুক্ত হচ্ছেন, তারা বলছেন ওয়েব সিরিজ সত্যিই একটা আশীর্বাদ। কারণ টিভি নাটকে এখন সিনিয়র-জুনিয়রের কোনো সম্মান এবং দায়বদ্ধতা নেই, চিত্রনাট্য ছাড়াই নাটক নির্মাণ হচ্ছে, একদিনেই একটা নাটক শেষ করা হচ্ছে, নামমাত্র একটা পারিশ্রমিক দেওয়া হচ্ছে, অনেক সময় সেটাও বাকির খাতায় লেখা হচ্ছে। কিন্তু ওয়েব সিরিজে গোছানো একটা পরিবেশ রয়েছে। চাহিদা অনুযায়ী পারিশ্রমিক দেওয়া হচ্ছে, তা ছাড়া ওয়েব সিরিজে দর্শকের কাছ থেকে তাৎক্ষণিক একটা প্রতিক্রিয়া পাওয়া যাচ্ছে।


আপনার মন্তব্য