শিরোনাম
প্রকাশ : ১৬ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯ ১৯:৩৯

শেখার আছে কতো কিছু

শওগাত আলী সাগর

শেখার আছে কতো কিছু
শওগাত আলী সাগর

১১ বছর বয়সী স্কুলছাত্রী রিয়া রাজকুমারের মৃত্যুর ঘটনা পুরো কানাডাকে প্রবল ঝাঁকুনি দিয়েছে। বাবার সঙ্গে জন্মদিন পালন করতে গিয়ে আর ফিরে আসেনি রিয়া। বাবার বাড়ির বেসমেন্ট থেকে পুলিশ তার মরদেহ উদ্ধার করেছে। এই পর্যন্ত যা বললাম- তাতে মনে হতে পারে- এটি নিছক একটি মৃত্যুর ঘটনা। 

বাস্তবতা আসলে তা নয়। ডিভোর্স হয়ে যাওয়া বাবা-মায়ের সন্তান রিয়া থাকতো মার সঙ্গেই। মার সঙ্গে জন্মদিন পালন করে বিকাল ৩টার দিকে বাবার সঙ্গে জন্মদিনের আনন্দ শেয়ার করতে যায় রিয়া। কথা ছিল সন্ধ্যা সাড়ে ৬টার মধ্যে রিয়াকে ফেরত দিয়ে যাবে বাবা রুপেশ কুমার। কিন্তু নির্দিষ্ট সময় অতিক্রান্ত হয়ে গতরাত ১১টার দিকে উদ্বিগ্ন মা পুলিশের স্মরণাপন্ন হন। মায়ের উদ্বিগ্ন হওয়ার আরো কিছু কারণ ছিল। 

পুলিশকে তিনি জানিয়েছেন, 'মেয়ে এবং নিজের ক্ষতি করবে’ এমন কিছু মন্তব্য করেছে রুপেশ। তাতেই তার উদ্বেগ। পুলিশও বসে থাকেনি। মধ্যরাতে ‘অ্যাম্বার অ্যালার্ট’ দিয়ে জনগণকে সম্পৃক্ত করে ফেলে রুপেশকে ধরার ব্যাপারে। জনগণের সহায়তায়ই পুলিশ গাড়ি থেকে রুপেশকে আটক করে।

রিয়াকে অপহরণ করে রুপেশ পালিয়ে যাচ্ছে- পুলিশের অ্যাম্বার অ্যালার্টে এমন বার্তাই দেয়া হয়েছিল। বাস্তবে রুপেশের গাড়িতে রিয়া ছিল না। পরে রুপেশের বাড়ির বেসমেন্ট থেকে মৃত অবস্থায় রিয়াকে উদ্ধার করা হয়। 
রুপেশের বাসায় রিয়ার মৃত্যু হয়েছে। কিন্তু রিয়ার মৃত্যুর কারণ হাতে না পাওয়া পর্যন্ত পুলিশ বা মিডিয়া এই ব্যাপারে কিছু বলবে না। তারা অনুমান করে কিছু বলতে চায় না। রুপেশের বেসমেন্টে রুপেশের এক ভাই থাকে। ঘটনার সময় সে বাসায় ছিল না। 

পুলিশ তাকে জিঞ্জাসাবাদ করেছে। রিয়ার মৃত্যুর কারণ শিগগিরই জানা যাবে- আমি এটা বিশ্বাস করি। রুপেশই যে রিয়াকে মেরে ফেলেছে- এটি সন্দেহাতীতভাবে প্রমাণিত না হ্ওয়া পর্যন্ত কানাডিয়ান মিডিয়া বলবে না- ‘বাবার হাতে মেয়ে খুন’। কিন্তু তারা ঘটনাকে হালকা করেও দেখছে না। প্রতি মুহূর্তে আপডেট দিচ্ছে। 

পুলিশের উপর যে মিডিয়া প্রচণ্ড চাপ তৈরি করে রেখেছে- সেটা তাদের নিউজ ট্রিটমেন্ট দেখেই আন্দাজ করা যায়। কিন্তু ১১ বছর বয়সী এক কন্যার মর্মান্তিক মৃত্যু নিয়ে কোনো মিডিয়াই কেচ্ছা কাহিনী ফেঁদে বসছে না।

লেখক: টরন্টোর বাংলা পত্রিকা 'নতুনদেশ'- এর প্রধান সম্পাদক

(ফেসবুক থেকে সংগৃহীত)

বিডি প্রতিদিন/১৬ ফেব্রুয়ারি ২০১৯/আরাফাত


আপনার মন্তব্য