শিরোনাম
প্রকাশ : শনিবার, ২৯ জুন, ২০১৯ ০০:০০ টা
আপলোড : ২৮ জুন, ২০১৯ ২৩:০৫

সুন্দরবন সম্মান হারালে দেশের জন্য লজ্জার

------ সুলতানা কামাল

নিজস্ব প্রতিবেদক

সুন্দরবন সম্মান হারালে দেশের জন্য লজ্জার

সুন্দরবন রক্ষা জাতীয় কমিটির আহ্বায়ক অ্যাডভোকেট সুলতানা কামাল বলেছেন, সুন্দরবন এখন ধ্বংসের সর্বোচ্চ হুমকির মুখে। সুন্দরবন বিশ্ব ঐতিহ্যের সম্মান হারালে বাংলাদেশের জন্য তা লজ্জা ও অপমানকর হবে। গতকাল জাতীয় প্রেস ক্লাবে সুন্দরবন রক্ষা জাতীয় কমিটি আয়োজিত ‘সুন্দরবন সুরক্ষায় ইউনেস্কোর সর্বশেষ সুপারিশ, বনের প্রতি সরকারের অবহেলা ও সংশ্লিষ্ট বিষয়াদি’

শীর্ষক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ কথা বলেন।

সুলতানা কামাল বলেন, ৩০ জুন থেকে ১০ জুলাই আজারবাইজানে ইউনেস্কোর বিশ্ব ঐতিহ্য কমিটির ৪৩তম সভা হবে। বাংলাদেশের সুন্দরবনের ওপরে বিশ্ব ঐতিহ্য কেন্দ্রের সুপারিশগুলো সেখানে পেশ করা হবে। বন রক্ষায় বাংলাদেশের কাজগুলো সন্তোষজনক না হওয়ায় আমাদের জাতীয় গর্ব, সম্পদ ও নিরাপত্তার বর্ম সুন্দরবনকে ইউনেস্কোয় বিপদাপন্ন ঐতিহ্য তালিকাভুক্তির সুপারিশ করা হয়েছে। ওই সভায় বিশ্ব ঐতিহ্য কেন্দ্রের সুপারিশগুলোর ওপর চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে। তিনি বলেন, সুন্দরবন বিষয়ে কেন্দ্রের সুপারিশ যদি চূড়ান্ত হিসেবে গ্রহণ করে তাহলে সুন্দরবন তার বর্তমান ঐতিহ্যের সম্মান হারাবে। এর মাধ্যমে বাংলাদেশ তার সম্মান হারাবে। আর বিশ্বে দেশ ও জাতি হিসেবে আমাদের জন্য অযোগ্যতা, ব্যর্থতা, লজ্জা ও অপমানকর হবে। তিনি বলেন, আমরা সবাই জানি আমাদের জাতীয় সম্পদ সুন্দরবন এখন ধ্বংসের সর্বোচ্চ হুমকির মুখে। এর নানা কারণের মধ্যে রয়েছে নদী বিনষ্ট ও জলবায়ু পরিবর্তন, জলোচ্ছ্বাস, চিংড়ি চাষ ও স্থায়ী জলাবদ্ধতা, পশু শিকার, গাছ কাটা, অপরিকল্পিত পোল্ডার ও মাছ শিকার ধ্বংসাত্মক উন্নয়ন ও বন দখল। সর্বশেষ বন ধ্বংসাত্মক উন্নয়নের মধ্যে রয়েছে সুন্দরবনের কোলঘেঁষে গড়ে ওঠা ১৩২০ মেগাওয়াট রামপাল বিদ্যুৎ কেন্দ্র।

সুন্দরবন রক্ষা জাতীয় কমিটির সদস্যসচিব ডা. আবদুল মতিন বলেন, সুন্দরবন এলাকায় উন্নয়নের নামে ধ্বংস চলছে। আমরা কেউ বিদ্যুৎ উৎপাদনের বিরুদ্ধে নই। আজ ব্যাংক উজাড় করে সুইস ব্যাংকে টাকা রাখা হচ্ছে সেদিকে কারও নজর নেই। আবার আমরা বন ধ্বংসের বিষয়ে প্রতিবাদ করলে নেতিবাচক কথা বলা হয়। সংবাদ সম্মেলনে আরও বক্তব্য দেন সুন্দরবন রক্ষা জাতীয় কমিটির সদস্য রুহিন হোসেন প্রিন্স, এ বি এম শামসুল হুদা প্রমুখ।


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর