Bangladesh Pratidin || Highest Circulated Newspaper
শিরোনাম
প্রকাশ : বৃহস্পতিবার, ১৫ আগস্ট, ২০১৯ ০০:০০ টা
আপলোড : ১৪ আগস্ট, ২০১৯ ২২:৪১

ময়মনসিংহে সংঘর্ষে তিনজন নিহত

ময়মনসিংহ প্রতিনিধি

ময়মনসিংহে সংঘর্ষে তিনজন নিহত

পোলট্রি খামারের দুর্গন্ধ ছড়ানোকে কেন্দ্র করে ময়মনসিংহের ঈশ্বরগঞ্জে একই পরিবারের দুই পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষে পিতা-পুত্র ও ভাতিজাসহ তিনজন নিহত হয়েছেন। এ সময় আরও দুজন আহত হন।

গতকাল   সকালে ঈশ্বরগঞ্জ উপজেলার কাঁঠাল ডাংরী গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে আবদুর রাশিদের জামাতা রুবেল মিয়াকে আটক করেছে। নিহতরা হলেন-  ঈশ্বরগঞ্জ উপজেলার কাঁঠাল ডাংরী গ্রামের কৃষক হাসিম উদ্দিন (৬০), তার ছেলে জহিরুল ইসলাম (২৫) ও আবদুর রাশিদের ছেলে আজিবুল (৩৫)। আর গুরুতর আহত হাসিম উদ্দিনের দুই ছেলে মাজাহারুল ইসলাম (২০) ও খায়রুল ইসলামকে (২৩) প্রথমে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। পরে দুপুরে তাদের দুজনকেই আশঙ্কাজনক অবস্থায় ঢাকা মেডিকেলে পাঠানো হয়। জানা গেছে, উপজেলার কাঁঠাল ডাংরী গ্রামের হাসিম উদ্দিনের ছেলেরা বছরখানেক আগে বাড়ির পাশে একটি পোলট্রি ফার্ম দেয়। ফার্মের দুর্গন্ধে রাতে ঘুমের অসুবিধা হয় এমন অভিযোগ করে আসছিলেন হাসিম উদ্দিনের বড় ভাই আবদুর রাশিদের ছেলেরা। বিষয়টি নিয়ে আড়াই মাস আগে রাশিদের ছেলেরা থানায় মামলা দায়ের করেন। ওই মামলাটির আপস-মীমাংসার জন্য এলাকার লোকজন গতকাল সকালে এক শালিস দরবারের আয়োজন করেন। শালিসে বসার আগেই হাসিম উদ্দিনের ছেলে জহিরুল ইসলাম ও আবদুর রাশিদের ছেলে আজিবুল বাকবিত ায় জড়িয়ে পড়েন। একপর্যায়ে আজিবুল ও তার সহযোগী ৭/৮ জন দেশীয় অস্ত্র রামদা-কোবা ও লাঠিসোঁটা নিয়ে হাসিম উদ্দিন ও তার তিন ছেলের ওপর হামলা চালান। এতে ঘটনাস্থলেই হাসিম উদ্দিনের ছেলে জহিরুল ইসলাম (২৫) নিহত হন।

পরে উভয় পক্ষই সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়লে হাসিম উদ্দিন (৬৫), তার ছেলে মাজহারুল ইসলাম (৩০), খাইরুল ইসলাম (১৭) ও আবদুর রাশিদের ছেলে আজিবুল (৩০) মারাত্মক আহত হন। পরে হাসপাতালে নেওয়ার পথে হাসিম উদ্দিন ও আজিবুল মারা যান। পুলিশ সুপার শাহ আবিদ হোসেন জানান, তুচ্ছ ঘটনা থেকেই তিনজন নিহত হয়েছেন। ঘটনাস্থল থেকে আবদুর রাশিদের জামাতা রুবেলকে আটক করা হয়েছে। জড়িত বাকিদেরও শনাক্ত করে অবিলম্বে তাদের গ্রেফতার করা হবে।


আপনার মন্তব্য