শিরোনাম
প্রকাশ : বুধবার, ২৭ জানুয়ারি, ২০২১ ০০:০০ টা
আপলোড : ২৬ জানুয়ারি, ২০২১ ২৩:২২

হবিগঞ্জে ৮০ লাখ টাকা মুক্তিপণ না পেয়ে স্কুল ছাত্রকে হত্যা, আটক ৩

হবিগঞ্জ প্রতিনিধি

হবিগঞ্জের শায়েস্তাগঞ্জ উপজেলায় অপহরণ করে ৮০ লাখ টাকা মুক্তিপণ দাবি করে না পেয়ে তানভীর আহমেদ (১৫) নামের এক স্কুলছাত্রকে হত্যা করা হয়েছে। এ ঘটনায় সন্দেহভাজন তিন ঘাতককে আটক করেছে পুলিশ। গতকাল দুপুরে উপজেলার নূরপুর ইউনিয়নের পশ্চিম নছরতপুর গ্রামে সৈয়দ আলীর পুত্র উজ্জ্বলের বাড়ির পুকুর থেকে স্কুলছাত্রের লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। নিহত তানভীর গ্রামের ফারুক মিয়ার ছেলে। সে স্থানীয় আফরাজ আলী উচ্চবিদ্যালয়ের দশম শ্রেণির ছাত্র। আটককৃতরা হলো- উপজেলার পশ্চিম নছরতপুর গ্রামের সৈয়দ আলীর পুত্র উজ্জ্বল মিয়া (২৫),  নূরপুর গ্রামের মলাই মিয়ার পুত্র শান্ত (২৬) ও বাছিরগঞ্জ বাজারের জলিল

কবিরাজের পুত্র জাহিদ মিয়া (২৮)। পুলিশ জানায়, রবিবার রাত ৮টায় তানভীর আহমেদকে অপহরণ করে জাহিদ মিয়া, উজ্জ্বল মিয়া ও শান্ত মিয়া। অপহরণ করে তারা তানভীরের বাবার কাছে ফোনে মুক্তিপণ বাবদ ৮০ লাখ টাকা দাবি করে। বিষয়টি শায়েস্তাগঞ্জ থানা পুলিশকে অবগত করেন নিহতের পরিবার। পুলিশ অপহরণের সঙ্গে জড়িত সন্দেহে রাতেই জাহিদ ও শান্তকে আটক করে। তাদের স্বীকারোক্তি অনুযায়ী, অপহরণের মাস্টার মাইন্ড উজ্জ্বলকে গতকাল সকালে গ্রেফতার করে পুলিশ। একপর্যায়ে আটককৃতদের স্বীকারোক্তি অনুযায়ী আসামি উজ্জ্বলের পুকুর থেকে তানভীরের লাশ উদ্ধার করা হয়। স্থানীয়রা জানায়, তানভীর আহমেদ পিতা-মাতার একমাত্র সন্তান। তাকে হারিয়ে তারা পাগলপ্রায়। সূত্র জানায়, তানভীরের পিতা ফারুক মিয়া সম্প্রতি জেলা শহরে একটি জমি বিক্রি করেছেন কোটি টাকায়। এ টাকার প্রতি লোভ পড়ে উজ্জ্বলের। মূলত টাকার জন্য ফারুক মিয়ার একমাত্র পুত্রকে খুন করা হয়েছে। অতিরিক্ত পুলিশ সুপার রবিউল ইসলাম বলেন, তানভীরকে গলায় ফাঁস ও বুকে ছুরি মেরে হত্যা করে লাশ গুম করার জন্য পুকুরে ফেলা হয়। শায়েস্তাগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) অজয় চন্দ্র দেব বলেন, মুক্তিপণ না পেয়ে অপহরণকারীরা স্কুলছাত্রকে হত্যা করে।


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর