Bangladesh Pratidin || Highest Circulated Newspaper
শিরোনাম
প্রকাশ : ২১ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ২৩:১৪

শত্রু নিধনে ভারতের হাতে আসছে KA-226T

অনলাইন ডেস্ক

শত্রু নিধনে ভারতের হাতে আসছে KA-226T
KA-226T সামরিক হেলিকপ্টার

অস্ত্র-প্রতিযোগিতা, আধিপত্যের লড়াই, আন্তর্জাতিক সন্ত্রাসবাদ। এই শব্দগুলিতেই বিশ্বের বর্তমান পরিস্তিতির বিবরণ স্পষ্ট। এমনই পরিস্থিতিতে চীন ও পাকিস্তানের উসকানিমূলক কার্যকলাপে বাড়ছে সংঘাতের সম্ভাবনা। তাই এবার ভারতীয় সেনাবাহিনীকে ঢেলে সাজাচ্ছে দেশটির প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির সরকার। এবার দেশটির সেনাবাহিনীতে যোগ হচ্ছে রুশ নির্মিত KA-226T সামরিক হেলিকপ্টার। সোমবার এক বিবৃতিতে হেলিকপ্টারটির  নির্মাণকারী সংস্থা জানিয়েছে যে, ২০১৯  সাল থেকে ভারতের হাতে তুলে দেওয়া হবে এই হেলিকপ্টারগুলি৷

গতবছর, দুই দেশই পরস্পরের সঙ্গে শক্তি ও প্রতিরক্ষা সংক্রান্ত সরঞ্জাম আদানপ্রদানের জন্য চুক্তিবদ্ধ হয়। ভারত তার সশস্ত্র বাহিনী ও পারমাণবিক গবেষণাকে এগিয়ে নিয়ে যাওয়ার জন্য প্রত্যক্ষ রুশ মদত চায়। পাল্টা ভারতীয় বাজারের দরজা খোলা থাকবে মস্কোর জন্য। ২০১৯-এর মধ্যেই  দ্বিপাক্ষিক চুক্তির প্রথম ফসল ঘরে তুলবে নয়াদিল্লি। ভারতীয় সশস্ত্র বাহিনীর জন্য হালকা ও অত্যাধুনিক মানের ২০০ টি কামভ হেলিকপ্টার তৈরি করে দেবে মস্কো। প্রথম দফার ৬০টি চপার আমদানি করলেও চূড়ান্ত পর্যায়ে বাকি ১৪০টি চপার এদেশেই আংশিক ভাবে তৈরি হবে।

রাশিয়ায় তৈরি হেভি কমব্যাট হেলিকপ্টারের চাহিদা রয়েছে বিশ্বজুড়ে। রুশ অস্ত্র নির্মাতাদের দাবি, সম্প্রতি চীন তাদের কাছ থেকে Mi-171A2 হেলিকপ্টার কেনায় আগ্রহ প্রকাশ করেছে। এটি একটি অ্যাডভান্সড মিডিয়াম মাল্টিরোল হেলিকপ্টার। এই সিরিজেরই বেশ কয়েকটি হেলিকপ্টার ভারতের কাছে রয়েছে। বেইজিং চায় ২০১৭-এর মধ্যে সংখ্যার বিচারে ভারতের চেয়ে এগিয়ে যেতে। বেইজিংয়ের এই মনোভাব আঁচ করতে পেরেই সম্ভবত আরও বেশি সামরিক চপার সেনাবাহিনীতে আনতে চাইছে ভারত।

সূত্র: সংবাদ প্রতিদিন


বিডি প্রতিদিন/২১ ফেব্রুয়ারি ২০১৭/হিমেল


আপনার মন্তব্য