শিরোনাম
প্রকাশ : ২ ডিসেম্বর, ২০২০ ১৬:৩১
আপডেট : ২ ডিসেম্বর, ২০২০ ১৬:৩৬
প্রিন্ট করুন printer

যৌন হেনস্থার অভিযোগে বহিস্কৃত হওয়ার আগে অবসরে লর্ড আহমেদ

অনলাইন ডেস্ক

যৌন হেনস্থার অভিযোগে বহিস্কৃত হওয়ার আগে অবসরে লর্ড আহমেদ

ভারতের কট্টর সমালোচক লর্ড নাজির আহমেদ ব্রিটিশ সংসদের উচ্চকক্ষ হাউজ অফ লর্ডসের সদস্য পদ থেকে অবসর নিয়েছেন। একটি তদন্ত প্রতিবেদনে যৌন হেনস্থার অভিযোগে বহিষ্কারের সুপারিশ করার পর গত ১৪ নভেম্বর তিনি অবসরের সিদ্ধান্ত নেন। 

ব্রিটেনের লর্ডস কনডাক্ট কমিটির প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, লর্ড নাজির আহমেদ ২০১৭ সালে তার কাছে সাহায্যের জন্য আসা তাহিরা জামানকে মানসিক ও শারিরীকভাবে হেনস্থা করেছেন।

যৌন নির্যাতনের আরও একাধিক অভিযোগ রয়েছে তার বিরুদ্ধে। 

নাজির আহমেদের জন্ম পাকিস্তান অধিকৃত কাশ্মীরে। শৈশবে তিনি ব্রিটেনে চলে যান। ১৮ বছর বয়সেই  ব্রিটিশ লেবার পার্টিতে যোগ দেন। ১৯৯৮ সালে তার হাউজ লর্ডসে প্রবেশ। এর আগে তিনি ছিলেন রথেরহ্যামের কাউন্সিলার। সাবেক ব্রিটিশ প্রাধানমন্ত্রী টনি ব্লেয়ারের সঙ্গে তার সুসম্পর্ক সর্বজনবিদিত। 

নাজির আহমেদের জীবনে এটাই প্রথম বিতর্ক নয়। বেপরোয়া গাড়ি চালিয়ে ২০০৯ সালে তাকে জেলেও যেতে হয়েছিল। কারণ এমওয়ান হাইওয়েতে তিনি মোবাইলে ম্যাসেজ করতে করতেই গাড়ি চালাচ্ছিলেন। তার গাড়ি ধাক্কা পারে সামনে দাঁড়িয়ে থাকা একটি গাড়িকে। জখম হন গাড়ির চালক। ২০১৩ সালে তার জেল যাত্রার কারণ হিসাবে ‘ইহুদিদের ষড়যন্ত্র’ বলে বর্ণনা করে নতুন বিতর্কের সৃষ্টি করেন। তারজন্য তাকে লেবার পার্টি থেকে বরখাস্তও করা হয়। পরে অবশ্য তিনি ছেড়ে দেন লেবার পার্টিটাকেই।

জম্মু ও কাশ্মীরসহ বিভিন্ন বিষয়ে ভারত সরকারের নীতির কঠোর সমালোচক তিনি। ২০১৮ সালে লন্ডনে ভারতীয় দূতাবাসের সামনে তিনি বিক্ষোভের আয়োজন করেছিলেন। এছাড়াও বিভিন্ন সময় তিনি ভারতের বিরুদ্ধে কথা বলেছেন।

সূত্র: দ্য উইক ও বিবিসি

বিডি প্রতিদিন/ফারজানা


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর