শিরোনাম
প্রকাশ : ১৫ জুলাই, ২০২১ ২০:৪৮
প্রিন্ট করুন printer

দিল্লি যাচ্ছেন মমতা, দেখা করতে পারেন মোদি-সোনিয়াসহ যাদের সঙ্গে

দীপক দেবনাথ, কলকাতা

দিল্লি যাচ্ছেন মমতা, দেখা করতে পারেন মোদি-সোনিয়াসহ যাদের সঙ্গে
মমতা ব্যানার্জি। ফাইল ছবি
Google News

গত মে মাসে পশ্চিমবঙ্গে তৃতীয়বারের জন্য ক্ষমতায় এলেও এরপর দিল্লিতে যাওয়া হয়ে ওঠেনি মুখ্যমন্ত্রী তথা রাজ্যের ক্ষমতাসীন দল তৃণমূল কংগ্রেস প্রধান মমতা ব্যানার্জির। তবে আগামী দিনে দিল্লি যাবেন বলে জানিয়েছেন তিনি। যদিও তার দিনক্ষণ এখনো ঠিক হয়নি কিন্তু চলতি জুলাই মাসের শেষের দিকেই দিল্লি সফর করতে পারেন মমতা। দেখা করতে পারেন সোনিয়া গান্ধী, অরবিন্দ কেজরিওয়ালসহ বিভিন্ন অ-বিজেপি রাজনৈতিক দলের শীর্ষ নেতৃত্বের সঙ্গে। আর সময় পেলে রাষ্ট্রপতি রামনাথ কোবিন্দ, প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির সেঙ্গেও দেখা করবেন বলে জানিয়েছেন মমতা ব্যানার্জি। 

বৃহস্পতিবার রাজ্য সরকারের সচিবালয় নবান্নে গণমাধ্যমের কর্মীদের সামনে মমতা নিজেই জানান, ‘নির্বাচনের পর আমি দিল্লিতে যেতে পারিনি। কারণ, আমাদের এখানে করোনার প্রকোপ চলছিল। কিন্তু বর্তমানে পরিস্থিতি কিছুটা উন্নতি হওয়ায় আমি যাবার সিদ্ধান্ত নিয়েছি। সংসদ চলাকালীন সময় প্রতিবার আমি একবার দিল্লিতে গিয়ে থাকি। সকলের সঙ্গে সাক্ষাত হয়, খুব ভালো লাগে। পুরনো অনেক বন্ধু আছেন, নতুন বন্ধুরাও আছেন। এ কারণেই আমি একবার দিল্লিতে যাব। কিন্তু কবে যাব এটা আমি এখনো ঠিক করিনি।’
 
মমতা এও জানান ‘দিল্লিতে গিয়ে আমি কয়েকজন রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দের সঙ্গে কথা বলব। যদি সময় পাই তবে প্রধানমন্ত্রী, রাষ্ট্রপতির সঙ্গেও সাক্ষাত করতে পারি।’  

আগামী ২১ জুলাই শহিদ দিবস পালন করবে তৃণমূল। ওই অনুষ্ঠান থেকে দলের নেতাকর্মীদের উদ্দেশ্যে বার্তা দেবেন মমতা। আর মমতার সেই ভাষণ শোনানোর ব্যবস্থার করা হতে পারে দিল্লি, ত্রিপুরা, আসাম, গুজরাট, উত্তরপ্রদেশেসহ কয়েকটি রাজ্যে। আর শহিদ দিবসের পরই মমতা দিল্লি সফর করতে পারেন বলে মনে করা হচ্ছে।

সম্প্রতি রাজ্য বিধানসভার নির্বাচনে বিপুল সংখ্যাগরিষ্ঠতা নিয়ে ক্ষমতায় আসে মমতার নেতৃত্বাধীন তৃণমূল কংগ্রেস সরকার। এবার মমতার লক্ষ্য ২০২৪ এর লোকসভা নির্বাচন। আর সেই লক্ষ্যেই জাতীয় রাজনীতিতে নিজের গুরুত্ব বাড়াতেই দিল্লিতে পা রাখতে চলেছেন মমতা। কারণ, তৃণমূল কংগ্রেসের এই কর্মসূচি থেকেই স্পষ্ট যে, তারা কেবল পশ্চিমবঙ্গেই সীমাবদ্ধ থাকতে রাজি নয়।
 
সূত্রে খবর দিল্লিতে চারদিন থাকতে পারেন মমতা। এই সফরকালে কংগ্রেস নেত্রী সোনিয়া গান্ধী, ন্যাশনালিস্ট কংগ্রেস পার্টি (এনসিপি) প্রধান শারদ পাওয়ার, সমাজবাদী পার্টি (সপা) প্রধান অখিলেশ যাদব, আম আদমি পার্টি (আপ) প্রধান অখিলেশ যাদব’এর মতো বিজেপিবিরোধী দলগুলোর নেতাদের সঙ্গে সাক্ষাত করতে পারেন।
 
আগামী ১৯ জুলাই থেকে শুরু হচ্ছে সংসদের বর্ষাকালীন অধিবেশন। এই অধিবেশনে কোভিড পরিস্থিতি সামলানো, মূল্যবৃদ্ধিসহ একাধিক ইস্যুতে মোদি সরকারকে কোণঠাসা করতে পারে বিরোধীরা। আর ঠিক তখনই বিরোধীদের সঙ্গে সাক্ষাত করতে চলেছেন আরেক বিজেপিবিরোধী দল তৃণমূল কংগ্রেসের প্রধান মমতা ব্যানার্জি। ২০২৪ সালের লোকসভা নির্বাচনের আগে বিজেপিকে পরাস্ত করতে ফের একবার তৃতীয় ফ্রন্ট গঠনের বিষয় নিয়েও আলোচনা করতে পারেন মমতা। 

বিডি প্রতিদিন/জুনাইদ আহমেদ

এই বিভাগের আরও খবর