শিরোনাম
প্রকাশ : রবিবার, ১১ আগস্ট, ২০১৯ ০০:০০ টা
আপলোড : ১১ আগস্ট, ২০১৯ ০০:০১

থানায় গণধর্ষণ

পাঁচ পুলিশের বিরুদ্ধে মামলা

নিজস্ব প্রতিবেদক, খুলনা

পাঁচ পুলিশের বিরুদ্ধে মামলা

খুলনা রেলওয়ে (জিআরপি) থানায় গণধর্ষণের ঘটনায় আদালতের নির্দেশে থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) উছমান গনি পাঠানসহ পাঁচ পুলিশ সদস্যের বিরুদ্ধে মামলা হয়েছে। শুক্রবার রাতে ভুক্তভোগী নারী বাদী হয়ে রেলওয়ে থানায় পুলিশি হেফাজতে নির্যাতনের অভিযোগে মামলাটি দায়ের করেন।

ওই মামলায় থানার ওসি ছাড়াও ঘটনার রাতে ডিউটিতে থাকা অফিসার ও অজ্ঞাত তিন পুলিশ সদস্যকে আসামি করা হয়েছে। এর আগে অভিযুক্ত ওসি উছমান গনি পাঠান ও উপ-পরিদর্শক (এসআই) নাজমুল হককে পাকশি পুলিশ লাইনে ক্লোজ করা হয়।

রেলওয়ে পুলিশের অধীনে গঠিত তদন্ত টিমের প্রধান ও কুষ্টিয়া সার্কেলের এএসপি ফিরোজ আহমেদ জানান, খুলনার সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের নির্দেশে ‘হেফাজতে নির্যাতন ও মৃত্যু নিবারণ আইন-২০১৩’ অনুসারে মামলাটি রেকর্ড করা হয়েছে। মামলার নথিপত্র রেলওয়ে পুলিশের কুষ্টিয়া সার্কেলের এসপি বরাবর পাঠানো হয়েছে। তার নির্দেশমতো এ মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা নিয়োগ করা হবে। তিনি বলেন, থানা অভ্যন্তরে নির্যাতনের অভিযোগে পুলিশের তদন্তে কারাগারে থাকা অভিযোগকারী নারী ও থানার পুলিশ সদস্যদের সাক্ষ্য নেওয়া হয়েছে। তবে ওই নারীর পরিবারের সদস্যদের সঙ্গে কথা বলা সম্ভব হয়নি। তাদের থানায় ডাকা হলেও তারা আসেননি। এ ছাড়া হাসপাতালের ফরেনসিক রিপোর্ট এখনো পাওয়া যায়নি। আরও কিছু বিষয়ে তদন্ত প্রয়োজন। সব মিলিয়ে ঈদের পরে তদন্ত প্রতিবেদন জমা দেওয়া হবে।

জানা যায়, গত ২ আগস্ট রাতে ওই নারীকে আটকের পর জিআরপি থানার মধ্যে ওসিসহ পাঁচ পুলিশ সদস্য গণধর্ষণ ও মারধর করেন বলে অভিযোগ উঠেছে। ৩ আগস্ট মাদক মামলায় তাকে আদালতে পাঠালে সেখানে ধর্ষণের বিষয়টি জানাজানি হয়। পরে আদালতের নির্দেশে খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ওই নারীর ডাক্তারি পরীক্ষা করানো হয়।


আপনার মন্তব্য