শিরোনাম
প্রকাশ : মঙ্গলবার, ৪ ফেব্রুয়ারি, ২০২০ ০০:০০ টা
আপলোড : ৩ ফেব্রুয়ারি, ২০২০ ২৩:৫০

আত্মহত্যা করতে যাওয়া সন্তানকে বাঁচাতে গিয়ে মা-ছেলের মৃত্যু

নিজস্ব প্রতিবেদক, বগুড়া

আত্মহত্যা করতে যাওয়া সন্তানকে বাঁচাতে গিয়ে মা-ছেলের মৃত্যু

বগুড়ার কাহালুতে আত্মহত্যা করতে যাওয়া ছেলেকে বাঁচাতে গিয়ে ট্রেনে কাটা পড়ে মা-ছেলে দুজনই নিহত হয়েছেন। গতকাল দুপুরে কাহালু রেল স্টেশনের অদূরে বটতলা নামক স্থানে এ ঘটনা ঘটে। নিহতরা হলেন কাহালু উপজেলার সাঘাটিয়া গ্রামের মৃত মকবুল হোসেনের স্ত্রী ফেলানী বেগম (৫০) ও তার ছেলে রাজ বাবু (২৫)। জানা গেছে, ফেলানী বেগম রেল স্টেশনের অদূরে বটতলায় রেললাইন সংলগ্ন ফুটপাথে খাদ্য বিক্রি করেন। দুপুর দেড়টার দিকে ঢাকাগামী লালমনি এক্সপ্রেস ট্রেনে কাহালু স্টেশনে পৌঁছার আগে পারিবারিক কলহের জের ধরে রাজ বাবু আত্মহত্যার উদ্দেশ্যে ট্রেনের নিচে ঝাঁপ দিতে যায়। এ সময় তার মা উদ্ধার করতে গেলে দুজনই ট্রেনে কাটা পড়েন। দুজনের দেহই এ সময় খ-বিখ- হয়ে যায়।

কাহালু থানার অফিসার ইনচার্জ জিয়া লতিফুল ইসলাম বলেন, দুজনের মরদেহ রেলওয়ে পুলিশের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।

বাগেরহাটে ঘাতক চালক গ্রেফতার : বাগেরহাট প্রতিনিধি জানিয়েছেন, বাগেরহাটে ট্রাকের ধাক্কায়  জেলা পুলিশের বিশেষ শাখার উপ-  পরিদর্শক (এসআই) রেজাউর রহমান নিহতের ঘটনায় ঘাতক ট্রাকের চালক শেখ তারিফ হোসেনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। গতকাল ভোরে সাতক্ষীরা জেলার তালা উপজেলার ইসলামকাঠি গ্রামের বাড়ি  থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়। তিনি ওই গ্রামের আইয়োব আলী শেখের ছেলে। এর আগে গত বছরের ৮ ডিসেম্বর  দুপুরে খুলনা-বাগেরহাট মহাসড়কে বাগেরহাট জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের সামনে একটি ট্রাকের ধাক্কায় ওই পুলিশ কর্মকর্তা নিহত হন। ওই সময় পুলিশ ট্রাকটিকে জব্দ করতে সক্ষম হলেও চালক পালিয়ে যায়। পরে ওই দিন রাতেই পুলিশ বাদী হয়ে একটি মামলা দায়ের করে।  বাগেরহাট মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মাহতাব উদ্দিন বলেন, ট্রাকের চালক এতদিন পলাতক ছিলেন। গোপন সংবাদের ভিত্তিতে তার বাড়ি থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়েছে।


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর