শিরোনাম
প্রকাশ : শনিবার, ২৭ ফেব্রুয়ারি, ২০২১ ০০:০০ টা
আপলোড : ২৭ ফেব্রুয়ারি, ২০২১ ০০:১৫

টিকা নেওয়ার ১৫ দিন পর থেকে শরীরে অ্যান্টিবডি তৈরি হয়

-ড. বিজন কুমার শীল

টিকা নেওয়ার ১৫ দিন পর থেকে শরীরে অ্যান্টিবডি তৈরি হয়

বিশিষ্ট অণুজীব বিজ্ঞানী ড. বিজন কুমার শীল বলেছেন, করোনার টিকা নেওয়ার ১৪ থেকে ১৫ দিন পর শরীরে অ্যান্টিবডি তৈরি শুরু হয়। তাই টিকা নিলেও ১৫ দিনের মধ্যে করোনায় আক্রান্ত হওয়ার আশঙ্কা থাকে। এ জন্য টিকা নিলেও মাস্ক পরা ও স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলা প্রয়োজন। গতকাল তিনি বাংলাদেশ প্রতিদিনকে বলেন, টিকার অ্যান্টিবডি তৈরি করতে কমপক্ষে ১৪ থেকে ১৫ দিন লাগে। কখনো আরও বেশি সময় লাগে। মোটামুটি ১৫ দিন পর অ্যান্টিবডি আসা শুরু করে। ২৮ দিনে গিয়ে সবচেয়ে বেশি অ্যান্টিবডি থাকে। টিকা নেওয়ার ১৫ দিনের মধ্যে যদি আপনার শরীরে ভাইরাস প্রবেশ করে তাহলে কিন্তু অসুখ হবেই। দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয়ের সচিব যেদিন টিকা নিয়েছেন এর কয়েক দিন আগে বা পরে হয়তো তার শরীরে ভাইরাস প্রবেশ করতে পারে। ভাইরাসের ক্ষমতা অনেক বেশি যা টিকা থেকে অ্যান্টিবডি আসতে আসতে তার শরীরে ছড়িয়ে পড়েছে। তবে তার ক্ষতিটা টিকা না নেওয়া মানুষের মতো হবে না। আমার মনে হয় তার রোগের তীব্রতা কম হবে। সার্স ভাইরাসের কিট উদ্ভাবক, করোনাভাইরাস শনাক্তের ‘জি র‌্যাপিড ডট ব্লট’ কিট উদ্ভাবক ড. বিজন কুমার শীল বলেন, টিকা নিলেই মনে করবেন না সুরক্ষা চলে আসবে। টিকা দেওয়ার পর কমপক্ষে ২৮ দিন মাস্ক পরতেই হবে।

দ্বিতীয় ডোজ দেওয়ার ২৮ দিন পর আপনারা মাস্ক পরা ধীরে ধীরে কমাতে পারেন। এর আগে মাস্ক পরা ছেড়ে দেবেন তা কল্পনাও করা যাবে না। সাধারণত টিকা নেওয়ার পর ২৮ দিনের মাথায় যখন সর্বোচ্চ অ্যান্টিবডি আসে তার পরবর্তী ২৮ দিনে অ্যান্টিবডি নেমে যায়। তাই ধীরে ধীরে নেমে আসার পর দ্বিতীয় ডোজ দিলে ভালো অ্যান্টিবডি হয়; যা ছয় মাস থেকে এক বছর নির্দ্বিধায় আপনাকে সুরক্ষা দেবে।


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর