শিরোনাম
প্রকাশ : মঙ্গলবার, ৯ মার্চ, ২০২১ ০০:০০ টা
আপলোড : ৮ মার্চ, ২০২১ ২৩:৩১

প্রেস ক্লাবের সামনে সংঘর্ষে বিএনপির আটজন রিমান্ডে

আদালত প্রতিবেদক

রাজধানীর শাহবাগ থানায় করা পুলিশের কর্তব্য কাজে বাধা দেওয়ার মামলায় যুবদলের সহ-সভাপতি রফিকুল আলম মজনুসহ বিএনপির আট নেতা-কর্মীকে দুই দিন করে রিমান্ডে নেওয়ার অনুমতি দিয়েছে আদালত। গতকাল ঢাকা মহানগর হাকিম মামুনুর রশীদ শুনানি শেষে রিমান্ডের এ আদেশ দেন। এর আগে ৫ মার্চ মামলার তদন্ত কর্মকর্তা শাহবাগ থানার এসআই মো. আবদুল্লাহ আসামিদের ১০ দিন করে রিমান্ডে নেওয়ার আবেদন করেন। গতকাল ওই আবেদনের শুনানি শেষে বিচারক এ আদেশ দেন।

আসামিরা হলেন রফিকুল আলম মজনু, আবদুল খালেক টিপু, সৌরভ রাসেল, দিল গনি, শহিদুল ইসলাম, মোশারফ, আবুল কাশেম ও ওয়াহিদ। মামলা সূত্রে জানা গেছে, ২৮ ফেব্রুয়ারি বেলা ১১টায় বিএনপি ও ছাত্রদলের নেতা-কর্মীরা পূর্বঘোষিত কর্মসূচির অংশ হিসেবে জতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে সমাবেশ করার জন্য জড়ো হন। এ সময় অনুমতি না থাকায় পুলিশ তাদের সমাবেশ করতে বাধা দেয়। তখন আসামিরা প্রেস ক্লাবের ভিতরে অবস্থান নেন এবং পুলিশকে লক্ষ্য করে ইটপাটকেল ছুঁড়তে থাকেন। পুলিশ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে টিয়ার শেল নিক্ষেপ করে। এরপর পুলিশের সঙ্গে বিএনপি ও ছাত্রদলের নেতা-কর্মীদের মধ্যে ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া ও সংঘর্ষ হয়। প্রেস ক্লাবের সামনের রাস্তায় বন্ধ করে দেওয়া হয় যান চলাচল। পুরো এলাকায় অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়। এ ঘটনায় শাহবাগ থানার এসআই পলাশ সাহা বাদী হয়ে ৪৭ জনের নাম উল্লেখ করে মামলা করেন। মামলায় অজ্ঞাত ২৫০ জনকে আসামি করা হয়।

পুলিশের কাছে সমাবেশের অনুমতি চাইল বিএনপি : ১০ মার্চ ও ১৬ মার্চ রাজধানীতে সমাবেশ করতে চায় বিএনপি। ঢাকা মহানগর উত্তর ও দক্ষিণ বিএনপির উদ্যোগে এই সমাবেশে করার অনুমতি চেয়ে ঢাকা মহানগর পুলিশের (ডিএমপি) যুগ্ম-কমিশনার (অপারেশনস) মো. মনির হোসেনের সঙ্গে দেখা করেন দলটির নেতারা। গতকাল বিকালে ডিএমপি সদর দফতরে যান বিএনপি কেন্দ্রীয় কমিটি প্রচার সম্পাদক শহীদ উদ্দিন চৌধুরী এ্যানী, দলের কেন্দ্রীয় কমিটি সদস্য ও ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশন বিগত নির্বাচনে মেয়র প্রার্থী তাবিথ আউয়াল, বিএনপি আন্তর্জাতিক বিষয়ক কমিটি সদস্য ও ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশন মেয়র প্রার্থী প্রকৌশলী ইশরাক হোসেন। বিএনপির প্রচার সম্পাদক শহীদ উদ্দিন চৌধুরী এ্যানি জানান, ডিএমপির যুগ্ম-কমিশনারের সঙ্গে তারা কথা বলেছেন। তারা আশাবাদী আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী শান্তিপূর্ণ সমাবেশ সুষ্ঠুভাবে শেষ করতে সব ধরনের সহযোগিতা করবে। তিনি আরও জানান, ঢাকা মহানগর উত্তর বিএনপি আগামী ১০ মার্চ মোহাম্মদপুর শহীদ পার্কে সমাবেশ করার অনুমতি চেয়েছে। অন্যদিকে ঢাকা মহানগর দক্ষিণ বিএনপি ১৬ মার্চ নয়াপল্টনে বিএনপি কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে অথবা টিকাটুলি ব্রাদার্স ইউনিয়ন মাঠে সমাবেশ করার অনুমতি চেয়েছে।


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর