শিরোনাম
প্রকাশ : শুক্রবার, ২৮ মে, ২০২১ ০০:০০ টা
আপলোড : ২৭ মে, ২০২১ ২৩:৫২

ব্রাহ্মণবাড়িয়া হাটহাজারীতে তাণ্ডবে গ্রেফতার আরও ৫

নিজস্ব প্রতিবেদক, চট্টগ্রাম ও ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রতিনিধি

Google News

ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির বাংলাদেশ সফরের প্রতিবাদে চট্টগ্রামের হাটহাজারীতে তান্ডবের ঘটনায় হেফাজতে ইসলামের আরও এক নেতাকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। তার নাম আমিনুল ইসলাম। গতকাল গভীর রাতে জেলা গোয়েন্দা পুলিশের একটি দল ফটিকছড়ি উপজেলার লেলাং ইউনিয়ন থেকে তাকে গ্রেফতার করে। গ্রেফতার আমিনুল ইসলাম হেফাজতে ইসলামের হাটহাজারী উপজেলা শাখার দাওয়াহ বিষয়ক সম্পাদক। জেলা গোয়েন্দা পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, নাশকতায় জড়িত থাকার তথ্যপ্রমাণ পেয়ে আমিনুলকে গ্রেফতার করা হয়েছে। গত কয়েক সপ্তাহে চট্টগ্রাম ও ব্রাহ্মণবাড়িয়াসহ দেশের বিভিন্ন এলাকা থেকে তান্ডব ও নাশকতায় জড়িত থাকার অভিযোগে বেশ কয়েকজন হেফাজতে ইসলামের নেতাকে গ্রেফতার করে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী। এর পর থেকে আমিনুল ফটিকছড়ির এক আত্মীয়র বাড়িতে আত্মগোপন করে। গোপন সংবাদের ভিত্তিতে তার আত্মগোপনের খবর পেয়ে গতকাল রাত ২টার দিকে ওই বাড়ি থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়। হাটহাজারী থানার পরিদর্শক কেশব চক্রবর্তী বলেন, গত ২৬ মার্চ আকস্মিকভাবে হাটহাজারী থানায় আক্রমণ করে ভাঙচুর চালায় হেফাজতে ইসলামের শত শত কর্মী।

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় আরও চারজন গ্রেফতার : ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় সহিংসতার ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে আরও চারজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। এ নিয়ে ওই ঘটনায় গ্রেফতার আসামির সংখ্যা ৫০৩ জনে দাঁড়িয়েছে। জেলা পুলিশের দাবি, গ্রেফতাররা হেফাজতে ইসলামের কর্মী-সমর্থক। সহিংসতার স্থির চিত্র ও ভিডিও ফুটেজ পর্যালোচনা করে গ্রেফতার করা হচ্ছে। গতকাল সকালে জেলা পুলিশের এক বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানা গেছে। ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির বাংলাদেশ সফরের প্রতিবাদে এবং ঢাকা ও চট্টগ্রামে মাদরাসাছাত্রদের ওপর পুলিশের হামলার খবরে গত ২৬-২৮ মার্চ পর্যন্ত হেফাজতে ইসলামের কর্মীরা ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় ব্যাপক তান্ডব চালায় বলে অভিযোগ রয়েছে।

হেফাজতের বিরুদ্ধে মামলা নথিভুক্ত করতে ছাত্রলীগের আলটিমেটাম : নরেন্দ্র মোদির বাংলাদেশ সফরকে ঘিরে সহিংসতার ঘটনায় ব্রাহ্মণবাড়িয়া হেফাজতে ইসলামের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকে গ্রেফতারের দাবি এবং স্থানীয় সংসদ সদস্যের করা মামলা নথিভুক্ত করতে আলটিমেটাম দিয়েছে জেলা ছাত্রলীগ। পয়লা জুনের মধ্যে ব্রাহ্মণবাড়িয়া-৩ আসনের এমপি র আ ম উবায়দুল মোকতাদির চৌধুরীর মামলার আবেদন নথিভুক্ত করে হেফাজত নেতাদের গ্রেফতার না করা হলে মানববন্ধন ও পুলিশ সুপারের কার্যালয়ের সামনে লাগাতার অবস্থান কর্মসূচি পালন করবে ছাত্রলীগ। গত বুধবার মধ্যরাতে ফেসবুকে পৃথক স্ট্যাটাসের মাধ্যমে এ আলটিমেটাম দেন ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি রবিউল হোসেন রুবেল ও সাধারণ সম্পাদক শাহাদাৎ হোসেন শোভন।