শিরোনাম
প্রকাশ : সোমবার, ৩১ মে, ২০২১ ০০:০০ টা
আপলোড : ৩০ মে, ২০২১ ২৩:৩০

কৃষি

সময় ও অর্থসাশ্রয়ী কৃষিযন্ত্র উদ্ভাবন

দিনাজপুর প্রতিনিধি

সময় ও অর্থসাশ্রয়ী কৃষিযন্ত্র উদ্ভাবন
Google News

কৃষকের সময় ও খরচ বাঁচাতে ধান কাটা ও মাড়াইয়ের জন্য অত্যাধুনিক হারভেস্টার মেশিনের সহযোগী মেশিন উদ্ভাবন করেছেন দিনাজপুরের আনোয়ার হোসেন। যা দিয়ে কৃষকরা হারভেস্টার মেশিন থেকে স্বল্প খরচে ধান পরিবহন ও বস্তাজাত করতে পারছেন।

দিনাজপুরের ফুলবাড়ী উপজেলার বাসুদেবপুর গ্রামের পল্লী চিকিৎসক আনোয়ার হোসেন নিজের প্রচেষ্টায় দেশীয় প্রযুক্তি ব্যবহার করে কৃষকের সুবিধার জন্য একের পর এক সাশ্রয়ী বিভিন্ন কৃষিযন্ত্র উদ্ভাবন করছেন। এর জন্য ইতিপূর্বে তিনি জাতীয় পুরস্কারও পেয়েছেন। ধান কাটা-মাড়াই মৌসুমে শ্রমিক সংকটের কারণে কৃষকরা নানা সমস্যার মুখে পড়েন। তাই কৃষি দফতরের অধীনে ভর্তুকিমূল্যে অত্যাধুনিক হারভেস্টার মেশিন সরবরাহ করা হয়। হারভেস্টার দিয়ে কৃষকরা দ্রুত সময়ে জমির ধান কাটা ও মাড়াই সম্পন্ন করতে পারেন। কিন্তু একটি মেশিনে ধান সংগ্রহের ধারণক্ষমতা ২৫ মণ। কাটা মাড়াইয়ের পর জমি থেকে কৃষকের সুবিধাজনক স্থানে ওই ধান আনলোড কিংবা বস্তাজাত করতে সময়সহ হারভেস্টারের জ্বালানি ও রক্ষণাবেক্ষণ খরচ অনেক বেশি হয়। আবার ওই ধান বস্তাজাত করতে লেবার খরচও বেশি। এ চিন্তাধারা থেকে পল্লী চিকিৎসক ও কৃষক আনোয়ার হোসেন উদ্ভাবন করেন হারভেস্টারের সহযোগী পরিবহন মেশিন। যা দিয়ে এক একর জমির ধান হারভেস্টার থেকে কৃষকের সুবিধাজনক স্থানে পরিবহন করতে সময় লাগে কম এবং খরচ হয় মাত্র ৬০০ থেকে ৭০০ টাকা। অথচ একই পরিমাণ জমির ধান শ্রমিক দিয়ে পরিবহন করতে খরচ হয় ৩ হাজার টাকা।

উদ্ভাবক আনোয়ার হোসেন জানান, সরকার কৃষকের লাভের কথা চিন্তা করে বিদেশ থেকে উচ্চমূল্যে ধান কাটার কম্বাইন্ড হারভেস্টার মেশিন কিনছে। কিন্তু এ হারভেস্টার মেশিনের ধান সংগ্রহের ভান্ডারটি তুলনামূলক ছোট হওয়ায় ১০-১৫ মিনিট পর পর ধান আনলোড করতে হয়। এতে যথেষ্ট সময় নষ্ট হয়। একই সঙ্গে ধান আনলোড করতে রাস্তা কিংবা শুকনো উঁচু জমিতে যাতায়াত করতে হারভেস্টার মেশিনের তেল খরচ ও রক্ষণাবেক্ষণ খরচ অনেক বেশি। এ সমস্যা সমাধানে ধানের জমি থেকেই ধান সংগ্রহের বিকল্প হিসেবে এ সহযোগী মেশিন গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখছে। তিনি বলেন, সরকারিভাবে আমাকে সহযোগিতা করলে এ যন্ত্রটি কৃষকের ঘরে ঘরে পৌঁছে দিতে পারব। অন্য সময় এ মেশিনটি দিয়ে   জমি চাষ করা, হারভেস্টার মেশিন পরিবহন করা, ধানের বস্তা পরিবহন ইত্যাদি কাজেও ব্যবহার করা যায়। উল্লেখ্য, আনোয়ার হোসেন ২০১৪ সালে দেশীয় প্রযুক্তি ব্যবহার করে কম্বাইড হারভেস্টার মেশিন তৈরি করে জাতীয় পুরস্কার লাভ করেন। তার তৈরি এ মেশিনের মূল্য ৮ লাখ টাকা। অথচ বিদেশ থেকে এ মেশিন আমদানি করতে খরচ হয় অনেক বেশি।

এই বিভাগের আরও খবর