শিরোনাম
বুধবার, ৬ ডিসেম্বর, ২০২৩ ০০:০০ টা

মৃত্যুর আগে নাম লিখে গেলেন

নিজস্ব প্রতিবেদক, যশোর

গলায় ফাঁস নিয়ে আত্মহত্যা করেছেন যশোর সদর উপজেলার বালিয়াডাঙ্গা গ্রামের কাঠমিস্ত্রি রবিউল ইসলামের স্ত্রী লাভলি সরকার (৪৫)। ফাঁস নেওয়ার আগে তার মৃত্যুর জন্য দায়ীদের নাম লিখে রাখেন বাম হাতের কনুই থেকে কবজি পর্যন্ত। লাভলির স্বজনদের দাবি, সুদের টাকা দিতে না পারায় সুদখোরদের হুমকি-ধমকি, মানসিক যন্ত্রণা সহ্য করতে না পেরে লাভলি আত্মহত্যার পথ বেছে নিয়েছেন। যশোর জেনারেল হাসপাতালের জরুরি বিভাগের চিকিৎসক মিঠুন কুমার দে বলেন, গতকাল সকাল ৯টা ৫ মিনিটে লাভলি সরকারকে হাসপাতালে আনা হয়। কিন্তু তার আগেই মারা যান তিনি। হাসপাতালের মর্গে থাকা লাভলি সরকারের লাশের বাম হাতে কলম দিয়ে লেখা তিনজন মহিলার নাম রয়েছে। যাদের তার মৃত্যুর জন্য দায়ী বলে উল্লেখ করেছেন। ওই তিনজন মহিলা হলেন বালিয়াডাঙ্গা গ্রামের সিরাজুল ইসলামের স্ত্রী পারুল, শুকুর আলী স্ত্রী ববিতা ও নূর আলীর স্ত্রী রুমা। লাভলি সরকারের ছেলে নিষাদ আলম বলেন, পারুলের কাছ থেকে তার মা ৬০ হাজার টাকা ঋণ নিয়েছিলেন। নিষাদ দাবি করেন, সব টাকা পরিশোধের পরও পারুল দেড় লাখ টাকা দাবি করছেন। ববিতার কাছ থেকে ৫০ হাজার টাকা নিয়েছিলেন। তিনি আরও ৫০ হাজার টাকা দাবি করেন। রুমার কাছ থেকে কোনো টাকা না নিলেও তিনি ৪০ হাজার টাকা নিয়েছেন বলে প্রচার করে বেড়াচ্ছেন। ‘সুদখোরদের’ চাপে একপর্যায়ে তারা বাড়ি ছেড়ে পালিয়ে গেলে ওই তিনজন তাদের ঘরে তালা লাগিয়ে দেয়। বাড়িতে ভাঙচুর করে, বিদ্যুৎ সংযোগ বিচ্ছিন্ন করে দেয়। পরে তারা বাড়িতে ফিরে এলে আগের মতোই হুমকি-ধামকি দিতে থাকে। এসব সহ্য করতে না পেরে তার মা গতকাল সকালে ঘরের আড়ায় গলায় ফাঁস নিয়ে আত্মহত্যা করেন। যশোর কোতোয়ালি থানার ওসি আবদুর রাজ্জাক বলেন, এ ব্যাপারে থানায় মামলা হচ্ছে। লাভলি সরকারের স্বজনদের অভিযোগ তদন্ত করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

সর্বশেষ খবর