শিরোনাম
মঙ্গলবার, ২৩ জানুয়ারি, ২০২৪ ০০:০০ টা

আওয়ামী লীগ নেতার ঘাট দখলে শ্রমিক লীগ নেতা

নিজস্ব প্রতিবেদক, বরিশাল

বরিশাল নগরীর দুটি ঘাট দখল করে টোল আদায়ের অভিযোগ উঠেছে মৎস্যজীবী শ্রমিক লীগ নেতার বিরুদ্ধে। বৈধ ইজারাদার আওয়ামী লীগ নেতাকে হটিয়ে নিজস্ব লোকজন দিয়ে গত ১৬ জানুয়ারি থেকে টোল আদায়ের অভিযোগ রয়েছে তার বিরুদ্ধে। দখল হয়ে যাওয়া একতলা লঞ্চঘাট এবং পোর্ট রোড মাছ ঘাটের ২০২৩-২৪ অর্থবছরে ইজারা মূল্য ৮ কোটি টাকা।

ঘাট দুটির বৈধ ইজারাদার মহানগর আওয়ামী লীগের শিল্প ও বাণিজ্যবিষয়ক সম্পাদক নিরব হোসেন টুটুল জানান, ২০২৩-২৪ অর্থবছরের জন্য বিআইডব্লিউটিএর কাছ থেকে প্রতিযোগিতা করে পোর্ট রোড মাছ ঘাট ৬ কোটি টাকায় এবং একতলা লঞ্চঘাট ২ কোটি টাকায় ইজারা নেন তিনি। এরপর থেকে নিজস্ব লোকজন দিয়ে ঘাট দুটির টোল আদায় করে আসছিলেন। আগামী জুন পর্যন্ত তিনি ঘাট দুটির বৈধ ইজারাদার। গত ১৬ জানুয়ারি হাবিব (মহানগর মৎস্যজীবী লীগের সভাপতি খান হাবিব) ঘাট দুটি অবৈধভাবে দখল করেন। তিনি তার লোক দিয়ে টোল আদায় শুরু করেন। বিষয়টি ইজারা কর্তৃপক্ষকে জানানো হয়েছে বলে জানান নিরব হোসেন টুটুল। নদীবন্দরে একতলা লঞ্চঘাটে টোল আদায়কারীরা নাম না প্রকাশের শর্তে বলেন, আগে টুটুল মামায় টোল উঠাইত। এখন হাবিব ভাই টোল উঠায়। আমরা টোল আদায়কারী, যখন যে থাকবে আমরা তার লোক। দুটি ঘাট দখলের অভিযোগ অস্বীকার করে মহানগর মৎস্যজীবী শ্রমিক লীগের সভাপতি খান হাবিব বলেন, সাত বছর ধরে নিরব হোসেন টুটুল তাকে বরিশাল থেকে বিতাড়িত করেন। পট পরিবর্তনের পর এখন তিনি বরিশালে ফিরেছেন। এখন তো সে (টুটুল) অভিযোগ করবেই। ঘাট দুটির নিয়ন্ত্রক বিআইডব্লিউটিএ বরিশালের যুগ্ম পরিচালক মো. আবদুর রাজ্জাক বলেন, একতলা লঞ্চঘাট এবং পোর্ট রোড মাছ ঘাটের বৈধ ইজারাদার নিরব হোসেন টুটুল। তার সঙ্গে প্রতিপক্ষের কোনো দ্বন্দ্ব হয়েছে কি না তা তাদের জানা নেই। এ বিষয়ে খোঁজখবর নিয়ে যথাযথ আইনগত ব্যবস্থা নেওয়ার কথা বলেন যুগ্ম পরিচালক মো. আবদুর রাজ্জাক।

 

এই বিভাগের আরও খবর

সর্বশেষ খবর