শিরোনাম
সোমবার, ১ এপ্রিল, ২০২৪ ০০:০০ টা

দায়ী বিএমডিসির অকার্যকারিতা

দায়ী বিএমডিসির অকার্যকারিতা

ভুল চিকিৎসায় রোগীর মৃত্যুর ঘটনায় চিকিৎসকদের নিয়ন্ত্রণকারী সংস্থা বাংলাদেশ মেডিকেল অ্যান্ড ডেন্টাল কাউন্সিলের (বিএমডিসি) অকার্যকারিতাকে দায়ী করেছেন জ্যেষ্ঠ আইনজীবী মনজিল মোরসেদ। তিনি বলেন, এসব বিষয়ে ব্যবস্থা নিতে আইনে তাদেরই কর্তৃত্ব দেওয়া হয়েছে। কিন্তু এ সংস্থাটি আইনের যথাযথ প্রয়োগ করতে ব্যর্থ। এজন্যই একই ধরনের ঘটনা বারবার ঘটছে। গতকাল বাংলাদেশ প্রতিদিনের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি এসব কথা বলেন।

হিউম্যান রাইটস অ্যান্ড পিস ফর বাংলাদেশের প্রেসিডেন্ট অ্যাডভোকেট মনজিল মোরসেদ বলেন, বাংলাদেশে চিকিৎসায় বড় সমস্যা, চিকিৎসকরা সময় দিতে চান না। গভীরভাবে রোগীকে বুঝতে চান না। তারা শুধু দেখেন এবং গৎবাঁধা ওষুধ দিয়ে দেন। এক ওষুধে কাজ না হলে ওষুধ বদলে দেন। আমাদের ডাক্তারদের মধ্যে কোনো দায়িত্ববোধ নেই। এভাবেই চলছে দেশের চিকিৎসা। এমন তিক্ত অভিজ্ঞতা আমার নিজেরও হয়েছে। তিনি বলেন, দেশে বর্তমানে বড় বড় ফাইভ স্টার মানের হাসপাতাল হয়েছে। তারপরও ডাক্তারদের ওপর রোগীদের আস্থা কমে যাচ্ছে। এখন প্রশ্ন হচ্ছে কেন আস্থা কমছে? তিনি বলেন, এজন্য ডাক্তাররাই দায়ী। মাঝে মাঝে আমরা শুনতে পাই ডান পাশে টিউমার অপারেশন করতে গিয়ে বাম পাশে অপারেশন করা হয়েছে। অ্যানেস্থেসিয়া দিতে গিয়ে রোগী মেরে ফেলেছে। এসব ঘটনা এখন পত্রিকা খুললেই দেখা যায়। তিনি আরও বলেন, কোনো এক ঘটনা ঘটার পর বিষয়টি মিডিয়ায় আসে। স্বাস্থ্যমন্ত্রী তখন ঘোষণা দেন ব্যবস্থা নেওয়া হবে। তবে কোনো ব্যবস্থা নিতে আমরা দেখতে পাই না। আর কোনো ব্যবস্থা নেওয়া হয় না বলেই এরকম ঘটনার পুনরাবৃত্তি বন্ধ হচ্ছে না।

মনজিল মোরসেদ বলেন, এসব বিষয়ে ব্যবস্থা গ্রহণের দায়িত্ব বিএমডিসির। তারা যদি তাদের আইনগত কর্তৃত্ব প্রয়োগ না করে, তাহলে এসব চিকিৎসকের বিরুদ্ধে কোনো দিন ব্যবস্থা নেওয়া সম্ভব হবে না। আর ব্যবস্থা নেওয়া গ্রহণ না হলে চিকিৎসকদের মধ্যে কোনো ভয়ও থাকবে না। যদি ডাক্তারদের মনে লাইসেন্স বাতিল হওয়া বা চাকরি চলে যাওয়ার ভয় থাকত- তাহলে তাদের কাছে চিকিৎসা নিতে যাওয়া মানুষগুলোকে ভুল চিকিৎসায় মরতে হতো না।

সর্বশেষ খবর