শিরোনাম
প্রকাশ : ২৭ জানুয়ারি, ২০২১ ১৬:২৭
প্রিন্ট করুন printer

রামগঞ্জ পৌরসভা নির্বাচন, শেষ মুহূর্তের প্রচারণায় ব্যস্ত প্রার্থীরা

লক্ষ্মীপুর প্রতিনিধি

রামগঞ্জ পৌরসভা নির্বাচন, শেষ মুহূর্তের প্রচারণায় ব্যস্ত প্রার্থীরা
নির্বাচনী প্রচারণায় আওয়ামী লীগ প্রার্থীআবুল খায়ের পাটোয়ারী ও বিএনপি’র প্রার্থী মো. তোফাজ্জল হোসেন বাচ্চু

নির্বাচন কমিশনের ঘোষিত তফসিল অনুযায়ী ৩য় ধাপে আগামি ৩০ জানুয়ারি অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে লক্ষ্মীপুরের রামগঞ্জ পৌরসভা নির্বাচন। এখানে  মেয়র পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন ৪জন প্রার্থী। স্থানীয় তথ্যমতে মূল প্রতিদ্বন্দ্বিতা হবে নৌকা ও ধানের শীষ প্রতীকে। নির্বাচনী মাঠে আওয়ামী লীগ সরব থাকলেও অনেকটাই নিরব অবস্থানে রয়েছে বিএনপি। প্রচারণায় বাধাসহ নানা অভিযোগ রয়েছে বিএনপি সমর্থিত মেয়র প্রার্থীর। 

এদিকে বাধাহীন প্রচারণাসহ সুষ্ঠ ভোট অনুষ্ঠানে সব ধরণের প্রস্তুতি নেয়ার কথা জানালেন নির্বাচন কমিশন কর্মকর্তা। 

নির্বাচন কমিশন ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, ১৯৯১ সালের ৩০ নভেম্বর প্রতিষ্ঠিত হওয়া ‘ক’ শ্রেণির পৌরসভা এখন লক্ষ্মীপুরের রামগঞ্জ পৌরসভা। বর্তমানে এ পৌরসভায় মোট ভোটার সংখ্যা রয়েছে ৩৬ হাজার ৪১৯ জন। এর মধ্যে নারী ভোটার ১৭৯৩৭ আর পুরুষ ভোটার সংখ্যা রয়েছে ১৮৪১২ জন। এখানে ১৭ টি ভোট কেন্দ্রে এসব ভোটার তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করবেন। এখানে মেয়র পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন ৪জন প্রার্থী। ৯টি ওয়ার্ডে কাউন্সিলর পদে ৫৬ জন আর সংরক্ষিত কাউন্সিলর পদে লড়ছেন ১১জন। ২৮ জানুয়ারি রাত ১২টায় শেষ হবে প্রচারণার কাজ। এ নির্বাচনকে ঘিরে দিন-রাত প্রচার-প্রচারণায় ব্যাস্ত রয়েছেন প্রার্থীরা। উন্নয়নের নানা প্রতিশ্রুতিও দিচ্ছেন তারা। 

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, মেয়র পদে ৪ জনের মধ্যে মূল প্রতিদ্বন্দ্বিতা হবে আওয়ামী লীগ প্রার্থী ও বর্তমান মেয়র আবুল খায়ের পাটোয়ারী ও বিএনপি’র প্রার্থী মো. তোফাজ্জল হোসেন বাচ্চুর সঙ্গে। নির্বাচনী মাঠে আওয়ামী লীগের প্রার্থী তার কর্মী সমর্থক নিয়ে সরব উপস্থিতিতে পথসভাসহ প্রচার-প্রচারণা চালাতে দেখা গেছে। 
জানতে চাইলে আবুল খায়ের পাটোয়ারী বলেন,  শেখ হাসিনার নেতৃত্বে সারাদেশ উন্নয়নে এগিয়ে যাচ্ছে। রামগঞ্জেও টেকসই উন্নয়নের ছোঁয়া লেগেছে। ২য় মেয়াদে নির্বাচিত হওয়ার ব্যাপারে শতভাগ আশাবাদ ব্যক্ত করেন এ প্রার্থী। 

অন্যদিকে বিএনপি’র প্রার্থী বাচ্চুকে কর্মী সমর্থক ছাড়া একক প্রচারণা চালাতে দেখা গেছে। জানতে চাইলে তিনি বলেন, সরকারি দলের প্রার্থীর লোকজন আমার প্রচারণায় বাধা দিচ্ছে। তাই কর্মী বিহীন একক প্রচারণা চালাচ্ছি।  

এছাড়া জাতীয় পার্টির মোহাম্মদ মহসিন ও ইসলামী আন্দোলনের মো. জাকির হোসেন দেওয়ান ভোটের মাঠে লড়ছেন।
 
উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা ও সহকারি রিটার্নিং অফিসার মোহাম্মদ আবু তাহের জানান, সুষ্ঠ ভোট অনুষ্ঠানে সকল ধরণের প্রস্তুতিসহ মনিটরিং টিম গঠন করা হয়েছে। মাঠে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটসহ আইন শৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা কাজ করছেন। তবে এখনো পর্যন্ত কারো কোন অভিযোগ পাননি বলে জানান তিনি। 

বিডি-প্রতিদিন/সালাহ উদ্দীন


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর