Bangladesh Pratidin || Highest Circulated Newspaper
শিরোনাম
প্রকাশ : শুক্রবার, ৩ অক্টোবর, ২০১৪ ০০:০০ টা
আপলোড : ৩ অক্টোবর, ২০১৪ ০০:০০

লতিফ সিদ্দিকীর শাস্তি দাবিতে রাজপথে চট্টগ্রাম আওয়ামী লীগ

লতিফ সিদ্দিকীর শাস্তি দাবিতে রাজপথে চট্টগ্রাম আওয়ামী লীগ

হজ, তাবলিগ ও সজীব ওয়াজেদ জয়কে নিয়ে মন্তব্যের জন্য দলের জ্যেষ্ঠ নেতা আবদুল লতিফ সিদ্দিকীর বিচার ও শাস্তি দাবিতে কর্মসূচি পালন করেছে চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামী লীগ। গতকাল সকালে চট্টগ্রাম প্রেসক্লাব প্রাঙ্গণে আয়োজিত প্রতিবাদ সমাবেশ থেকে এ দাবি জানানো হয়। সমাবেশ শেষে আবদুল লতিফ সিদ্দিকীর ছবিতে অগি্নসংযোগ করেন আওয়ামী লীগ নেতা-কর্মীরা। এ সময় দলের সভাপতিমণ্ডলীর এই সদস্যের ফাঁসির দাবি জানিয়েও স্লোগান দেন তারা। প্রতিবাদ সমাবেশে নগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আ জ ম নাছির উদ্দিন বলেন, 'আবদুল লতিফ সিদ্দিকীর বক্তব্যের তীব্র নিন্দা জানাচ্ছি। তিনি যে মন্তব্য করেছেন তা সাধারণভাবে দেখলে হবে না। এটা গভীর ষড়যন্ত্রের অংশ।' তিনি বলেন, সরকার যখন এগিয়ে যাচ্ছে। বিরোধীদের হাতে যখন কোনো ইস্যু নেই, তখন লতিফ সিদ্দিকী দেশকে অস্থিতিশীল করতে বিরোধীদের হাতে ইস্যু ?তুলে দিলেন। তিনি মন্তব্য করেন, 'যিনি আওয়ামী লীগের রাজনীতি ধারণ করেন তিনি কখনো এ ধরনের বক্তব্য দিতে পারেন না। ব্যক্তিস্বাধীনতার কথা বলে এসব বক্তব্য দেওয়ার সুযোগ নেই। সরকারকে আহ্বান জানাচ্ছি, মামলা করে তার সর্বোচ্চ শাস্তি নিশ্চিত করতে।' রবিবার নিউইয়র্কে এক অনুষ্ঠানে ডাক, টেলিযোগাযোগ ও তথ্যপ্রযুক্তি মন্ত্রী লতিফ সিদ্দিকী বলেন, 'আমি কিন্তু হজ আর তাবলিগ জামাতের ঘোরতর বিরোধী। আমি জামায়াতে ইসলামীরও বিরোধী। এ হজে যে কত ম্যানপাওয়ার (জনশক্তি) নষ্ট হয়। এ হজের জন্য ২০ লাখ লোক আজ সৌদি আরবে গেছেন। এদের কোনো কাজ নেই। কোনো প্রডাকশন নেই, শুধু ডিডাকশন দিচ্ছেন। শুধু খাচ্ছেন আর দেশের টাকা বিদেশে দিয়ে আসছেন।' এ সময় তিনি তাবলিগ জামাত ও প্রধানমন্ত্রীপুত্র সজীব ওয়াজেদ জয়কে নিয়েও মন্তব্য করেন।

এদিকে লতিফ সিদ্দিকীর ওই বক্তব্যের প্রতিবাদ জানিয়ে বুধবার রাতে এক বিবৃতিতে দল থেকে তার বহিষ্কার দাবি করেন চট্টগ্রাম নগর আওয়ামী লীগ সভাপতি এ বি এম মহিউদ্দিন চৌধুরী ও সাধারণ সম্পাদক আ জ ম নাছির উদ্দিন। গতকালের সমাবেশে সভাপতির বক্তব্যে নগর আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি ইব্রাহিম হোসেন চৌধুরী বলেন, লতিফ সিদ্দিকী হজ নিয়ে যে বক্তব্য দিয়েছেন তাতে শুধু ইসলাম ধর্মানুসারীরাই নন, সব ধর্মের মানুষ ক্ষুব্ধ। উনি ধর্মীয় আবেগে আঘাত করেছেন। উনাকে ক্ষমা করা যায় না।


আপনার মন্তব্য