Bangladesh Pratidin || Highest Circulated Newspaper
শিরোনাম
প্রকাশ : মঙ্গলবার, ২৫ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ০০:০০ টা
আপলোড : ২৪ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ২৩:৩২

বিবিসিকে ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ

দাবি আদায়ের কৌশল আওয়ামী লীগের কাছেই শিখেছি

নিজস্ব প্রতিবেদক

দাবি আদায়ের কৌশল আওয়ামী লীগের কাছেই শিখেছি

বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ বলেছেন, আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনের জন্য নিরপেক্ষ সরকারের দাবি না মানলে আন্দোলন করেই তা আদায় করা হবে। কীভাবে দাবি আদায় করতে হয় সে কৌশল আওয়ামী লীগের কাছেই শিখেছি। সারা দেশের মানুষ যেটা চায় সেটাই তো করতে হবে। সংবিধানে কী আছে সেটা বড় কথা নয়। তাহলে তো ১৯৯৪-৯৫ সালে বর্তমান প্রধানমন্ত্রী কী বলেছিলেন সেটা দেখতে হবে। গতকাল বিবিসি বাংলাকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে এসব কথা বলেন মওদুদ আহমদ।

কিন্তু প্রধানমন্ত্রী তো বলেছেন তত্ত্বাবধায়ক সরকারের ব্যবস্থা ফিরে আসার আর কোনো সুযোগ নেই, এ সরকারের অধীনেই নির্বাচন হতে হবে— এ নিয়ে আলাপ-আলোচনা কতটা হতে পারে? এমন প্রশ্নের জবাবে মওদুদ আহমদ  বলেন, এই একই কথা সে সময়কার প্রধানমন্ত্রী খালেদা জিয়া বলেছিলেন। তখন বর্তমান প্রধানমন্ত্রী এ কথা মানেন নি। সর্বদলীয় সরকারের কথা স্যার নিনিয়ান বলেছিলেন, সেটাও মানেন নি— বলেছিলেন সর্বদলীয় সরকার নয় আমরা আন্দোলন করছি নির্দলীয় সরকারের জন্য। সে দাবি আদায়ের জন্য ১৭৩ দিন হরতাল করা হয়েছিল। আর এখন তিনি সংবিধান পরিবর্তন করে ঠিক আগের অবস্থানে ফিরে গেছেন।

নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে নির্বাচনের আন্দোলনে দেশ কি আবার সংঘাতের দিকে যাবে? জানতে চাইলে মওদুদ আহমদ বলেন, আমরা তো সংঘাত করব না, সেটা সরকারের ওপর নির্ভর করবে। আমাদের তো একটা ঘরোয়া বৈঠকও করতে দেওয়া হয় না। আমাদের কয় হাজার নেতা-কর্মীকে কারাবন্দী করেছে, কয় হাজার মামলা দিয়েছে? এসব কি আপনাদের চোখে পড়ে না? আর আমাদের বলছেন, এ সরকারের অধীনে নির্বাচন করার জন্য— যারা এখনই আমাদের কোনো স্পেস দিচ্ছে না?

মওদুদ আহমদ বলেন, অপেক্ষা করেন একটু, আমাদের একটু মাঠে নামতে দেন। সব শান্তিপূর্ণ হবে। শুধু আমরা দেখাব বাংলাদেশের মানুষ কী চায়, কত মানুষ আমাদের দাবির পক্ষে আছে। তা একটু সুযোগ পেলে আমরা দেখাব। কিন্তু সে সুযোগ না দিলে, মাঠে নামতে না দিলে কী করবেন? জবাবে মওদুদ আহমদ বলেন, যদি না দেয়, তাহলে আন্দোলনের মাধ্যমেই সেটা আদায় করা হবে। বাংলাদেশের ইতিহাসে যা হয়েছে, তাই হবে। কী করে আন্দোলন করে দাবি আদায় করতে হয়— তা তো আমরা আওয়ামী লীগের কাছ থেকেই শিখেছি। মওদুদ আহমদ আরও বলেন, কীভাবে নির্বাচনকালীন সরকারটা হওয়া উচিত— এ নিয়ে আমাদের নিজস্ব প্রস্তাবনা শিগগিরই দেব। শেখ হাসিনাকে প্রধানমন্ত্রী রেখেই এ রকম সরকার হলে তা কি বিএনপির কাছে গ্রহণযোগ্য হবে? জানতে চাইলে মওদুদ আহমদ বলেন, না। তিনি একটি দলের প্রধান, যে দল নির্বাচনে অংশগ্রহণ করবে। তিনি প্রধানমন্ত্রী থাকলে সংবিধান অনুযায়ী তার অধীনেই প্রশাসন থাকবে। সেটা অন্য কারও হাতে অর্পণ করার ক্ষমতা তো তার নেই। তিনি বলেন, তারা চান যে কোনো রাজনৈতিক ব্যক্তিই নির্বাচনকালীন নিরপেক্ষ সরকারে থাকতে পারবেন না। কোনো দলীয় সরকারের অধীনে বাংলাদেশে কোনো সুষ্ঠু-অবাধ নির্বাচন হয়নি, এবারও হবে না। কোনো দলীয় সরকারের অধীনে নির্বাচন কমিশন কোনো দিনই স্বাধীনভাবে কাজ করতে পারবে না।

নির্বাচনকালীন সরকারের প্রধান হিসেবে কে থাকবেন সেটা তো রাষ্ট্রপতিকে আমরা যে রূপরেখা দেব তাতে থাকবে, আমরা উপায় বের করব।


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর