শিরোনাম
প্রকাশ : বৃহস্পতিবার, ২১ জানুয়ারি, ২০২১ ০০:০০ টা
আপলোড : ২০ জানুয়ারি, ২০২১ ২৩:৫৯

চীনের মধ্যস্থতায় ৪২ হাজার রোহিঙ্গা ফেরতের আশা ডা. এনামুরের

নিজস্ব প্রতিবেদক

বাংলাদেশের দেওয়া তালিকা থেকে ৪১ হাজার ৭১৯ জন রোহিঙ্গাকে শনাক্ত করেছে মিয়ানমার। এই তালিকা ধরে আগামী মার্চ-এপ্রিলে প্রত্যাবাসন শুরু হতে পারে বলে আশা করছেন দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ প্রতিমন্ত্রী ডা. মো. এনামুর রহমান। গতকাল সচিবালয়ে বলপূর্বক বাস্তুচ্যুত মিয়ানমার নাগরিক রোহিঙ্গাদের জন্য চীন সরকারের ‘ইমার্জেন্সি রাইস এইড’ হস্তান্তর অনুষ্ঠান শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে প্রতিমন্ত্রী এ কথা জানান।

রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসনের অগ্রগতির বিষয়ে ত্রাণ প্রতিমন্ত্রী বলেন, গত সোমবার  বাংলাদেশ, মিয়ানমার ও চীনের সচিব পর্যায়ে বৈঠক হয়েছে। সেখানে রোহিঙ্গাদের প্রত্যাবাসনের বিষয়ে আলোচনা হয়েছে।

সব বিষয়ে ইতিবাচক আলোচনা হয়েছে। মিয়ানমার উপলব্ধি করেছে তাদের ফিরিয়ে নেওয়া দরকার। বাংলাদেশও চায় তারা (রোহিঙ্গা) সম্মানের সঙ্গে নাগরিক অধিকার নিয়ে ফিরে যাক। চীন সরকারও চায় বাংলাদেশের উন্নয়নের স্বার্থে তাদের ফিরে যাওয়া উচিত।

তিনি বলেন, বাংলাদেশ রোহিঙ্গাদের গ্রামভিত্তিক প্রত্যাবাসন চায়। কিন্তু মিয়ানমার সরকার চায় বাংলাদেশ সরকার যে তালিকা দিয়েছে এবং যে তালিকাটা তারা যাচাই করেছে সেই তালিকা অনুযায়ী ফেরত নিতে। এই পর্যায়ে গত বৈঠক শেষ হয়েছে। আশা করি, পরবর্তী বৈঠকে আরও সর্বসম্মত সমাধান আসবে।

তিনি আরও বলেন, আমরা গত বৈঠকে চীন ও মিয়ানমারের যে সদিচ্ছা দেখেছি, সবাই প্রত্যাশা করছে, ৩টি পক্ষই আশা করছে আগামী মার্চ-এপ্রিলের মধ্যে প্রত্যাবাসন শুরু হবে। আমরা ভালো ফলাফলের অপেক্ষায় আছি বলে তিনি উল্লেখ করেন।

এনামুর রহমান জানান, আমাদের বক্তব্য ও গত বৈঠকের পরিপ্রেক্ষিতে চীনের রাষ্ট্রদূত বলেন, শতভাগ ইচ্ছা বাংলাদেশের সঙ্গে তাদের যে গুরুত্বপূর্ণ সম্পর্ক সেটা তারা বজায় রাখবেন। বাংলাদেশের সব সমস্যা সমাধানের জন্য তারা আমাদের পাশে থাকবেন। বিশেষত রোহিঙ্গাদের ফেরত পাঠাতে তারা কাজ করে যাবেন।


আপনার মন্তব্য