শিরোনাম
২৮ নভেম্বর, ২০২১ ১৬:৪৪

অস্ট্রেলিয়ান মুসলিম ওয়েলফেয়ার সেন্টারের নির্বাচনে আনিসুল-সাদিকুর পরিষদ বিজয়ী

নাইম আবদুল্লাহ

অস্ট্রেলিয়ান মুসলিম ওয়েলফেয়ার সেন্টারের নির্বাচনে আনিসুল-সাদিকুর পরিষদ বিজয়ী

সিডনির মিন্টুস্থ অস্ট্রেলিয়ান মুসলিম ওয়েলফেয়ার সেন্টারের ২০২১-২৩ সালের নতুন নির্বাহী কমিটির জন্য শনিবার নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। এই নির্বাচনে আনিসুল- সাদিকুর পরিষদ প্যানেল এবং জলিল-খাইরুল পরিষদ প্যানেল প্রতিদ্বন্দ্বিতা করে। 

অস্ট্রেলিয়ান মুসলিম ওয়েলফেয়ার সেন্টারের নির্বাচন কমিশন জানান, ১৭ সদস্য বিশিষ্ট নির্বাহী কমিটিতে চারটি পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতার জন্য নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। বাকী ১৩ টি পদে প্রার্থীরা বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হয়েছেন। নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতাকারী পদগুলি হল সভাপতি, সাধারণ সম্পাদক, সহ সভাপতি ১ ও সহ সভাপতি ২। এই নির্বাচনে সেন্টারের শুধুমাত্র ৯০৬ জন আজীবন সদস্য ভোট প্রদান করেন।

ভোট গণনা শেষে রাত সোয়া দশটায় নির্বাচন কমিশনার ডা, তোজাম্মেল হোসেন আনিসুল-সাদিকুর পরিষদ প্যানেলকে বিজয়ী ঘোষণা করেন। বিজয়ীরা হলেন, সভাপতি ড. আনিছুল আফসার, সাধারণ সম্পাদক সাদিকুর রহমান খান মুন, সহ সভাপতি ১ ইঞ্জিনিয়ার সাইফুল ইসলাম ও সহ সভাপতি ২ ড. আবুল কাশেম।

বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হয়েছেন, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ইঞ্জিনিয়ার হাবিব ভুঁইয়া, কোষাধ্যক্ষ জাহেরুল ইসলাম, প্রকাশনা এবং প্রচার সম্পাদক মোঃ আতিকুর রহমান, শিক্ষা এবং যুব বিষয়ক সম্পাদক গোলাম মোস্তফা, মহিলা বিষয়ক সম্পাদক আহসানুল হক, সামাজিক কল্যাণ এবং বিনোদন সম্পাদক শফিউর রহমান, নির্বাহী সদস্য গোলাম কিবরিয়া, ইঞ্জিনিয়ার আলমগীর কবির, ড. বিলাল হোসেন, শাহ এ মতিন (পপলু), গোলাম জিলানি, আবুল হায়াত ভুইয়া ও এটিএম মোরশেদুল ইসলাম।

এর আগে সকাল সাড়ে নয়টা থেকে সাড়ে এগারোটা পর্যন্ত কার্যনির্বাহী কমিটির বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। সিডনিতে বাংলাভাষী মুসলমানদের সবচেয়ে বড় সংগঠন অস্ট্রেলিয়ান মুসলিম ওয়েলফেয়ার সেন্টার সিডনির মিন্টুতে ৫ একর জায়গার উপর প্রতিষ্ঠিত। এই ইসলামিক সেন্টারে একসাথে ৭০০ জন মুসল্লি নামাজ আদায় করতে পারেন। মেইল হলের ভিতরে ২৮০ জন, মহিলাদের পৃথক হলে ১২০ জন, পারগোলার নিচে ৩০০ জনেরও এর বেশি মুসল্লি নামাজে অংশ নিতে পারেন। এছাড়াও মূল হলে একটি অনুষ্ঠানের জন্য ১৫০ জনের বসার ক্ষমতা সহ একটি কমিউনিটি সেন্টারের জন্য অনুমোদন রয়েছে। নামাজের সময় একই হলে ২৮০ জন নামাজ পড়তে পারেন।

বিডি-প্রতিদিন/ সালাহ উদ্দীন

এই বিভাগের আরও খবর

সর্বশেষ খবর