শিরোনাম
প্রকাশ : ২ এপ্রিল, ২০২১ ১০:০৮
আপডেট : ২ এপ্রিল, ২০২১ ১৩:০৬
প্রিন্ট করুন printer

‘আম্পায়ার্স কল’ নিয়ে কোহলির আপত্তিকে পাত্তা দিল না আইসিসি

অনলাইন ডেস্ক

 ‘আম্পায়ার্স কল’ নিয়ে কোহলির আপত্তিকে পাত্তা দিল না আইসিসি
Google News

 ‘আম্পায়ার্স কল’ নিয়ে ভারতের অধিনায়ক বিরাট কোহলির আপত্তিকে পাত্তা দিল না ক্রিকেটের নিয়ন্ত্রক সংস্থা আইসিসি। 

কিছুদিন আগেই ডিসিশন রিভিও সিস্টেমে (ডিআরএস) ‘আম্পায়ার্স কল’ পরিবর্তনের দাবি তুলেছিলেন কোহলি। কিন্তু ভারতীয় অধিনায়কের এই দাবিকে পাত্তা দেয়নি আইসিসি। ‘আম্পায়ার্স কল’ আগের মতোই রেখে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে আইসিসি।

শুধু কোহলি একা নন, অনেক বর্তমান ও সাবেক ক্রিকেটাররাই ডিআরএসের আম্পায়ার্স কলের বিরোধিতা করেছেন। তাদের মধ্যে ভারতীয় কিংবদন্তি শচীন টেন্ডুলকার ও অজি লেগ স্পিন গ্রেট শেন ওয়ার্নও আছেন। তবে কোহলি একে সরাসরি বিভ্রান্তিমূলক আখ্যা দিয়েছেন। তিনি আইসিসির কাছে নিয়ম আরও সরল করার আহ্বান জানিয়েছেন। তার মতে, স্টাম্পে বল লাগলে ব্যাটসম্যানকে আউট ঘোষণা করাই উচিত। বলের কতটা অংশ স্টাম্পে লাগল তা বিবেচনা না করাই উচিত।

অনিল কুম্বলের নেতৃত্বাধীন আইসিসির ক্রিকেট কমিটির সুপারিশে নিয়মগুলো অনুমোদন দেওয়া হয়েছে বলে বৃহস্পতিবার এক বিবৃতিতে জানানো হয়। আইসিসির বিবৃতিতে বলা হয়েছে, ক্রিকেটে ভুল সিদ্ধান্ত যেন না আসে সেজন্যই ডিআরএস প্রক্রিয়া আনা হয়েছে। সেই সঙ্গে মাঠের আম্পায়ারের ক্ষমতা যাতে খর্ব না হয়, সেটাও আমরা মাথায় রেখেছি। আর এ কারণেই আম্পায়ার্স কল রেখে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

তবে এক্ষেত্রে কিছু পরিবর্তন আনা হয়েছে। আইসিসির নতুন সিদ্ধান্ত অনুযায়ী, এলবিডব্লির রিভিউয়ের ক্ষেত্রে স্ট্যাম্পের উচ্চতার সীমা তুলে দেওয়া হয়েছে। অর্থাৎ এলবিডব্লিয়ের ক্ষেত্রে বল যদি বেলসের ঠিক উপরে লাগে, তা হলেও আউট ঘোষণা করা হবে ব্যাটসম্যানকে। আগে যা বেলসের নিচের অংশ পর্যন্ত সীমাবদ্ধ ছিল। ফলে যে ডেলিভারিগুলো কেবল বেলস ছুঁয়ে যেত সেগুলো আম্পায়ার্স কলে পড়ে যেত। তাতে রিভিও টিকলেও অল-ফিল্ড আম্পায়ারের সিদ্ধান্ত পাল্টাত না। এছাড়া এলডব্লিউয়ের রিভিও নেওয়ার আগে ফিল্ডিং দল অন-ফিল্ড আম্পায়ারকে জিজ্ঞেস করতে পারবে, ব্যাটসম্যান শট খেলেছে কি না।

আরও কিছু নিয়মে পরিবর্তন এনেছে আইসিসি। এখন থেকে শর্ট-রান এবং পরবর্তী বল করার আগে কোনো ভুল হলো কি না সেটা পরীক্ষা করবেন থার্ড আম্পায়ার। সেই সঙ্গে বলে থুতু বা লালা লাগানোর উপর নিষেধাজ্ঞা বহাল থাকবে। বহাল থাকবে নিরপেক্ষ আম্পায়ার না রাখার প্রথাও। অর্থাৎ, আয়োজক দেশের আম্পায়াররাই ম্যাচের দায়িত্ব সামলাবেন।

বিডি প্রতিদিন/কালাম

এই বিভাগের আরও খবর