Bangladesh Pratidin || Highest Circulated Newspaper
শিরোনাম
প্রকাশ : মঙ্গলবার, ২২ জানুয়ারি, ২০১৯ ০০:০০ টা
আপলোড : ২১ জানুয়ারি, ২০১৯ ২২:৩৬

চট্টগ্রামে গুরুত্বপূর্ণ মোড়ে নেই ফুটওভার ব্রিজ

রেজা মুজাম্মেল, চট্টগ্রাম

চট্টগ্রামে গুরুত্বপূর্ণ মোড়ে নেই ফুটওভার ব্রিজ
নগরে চারটি ওভারব্রিজ আছে। কিন্তু এসব ওভারব্রিজ ব্যবহার অনুপযোগী। চসিক যদি ব্যবহার উপযোগী করে তুলত তবে অন্তত এগুলো মানুষ ব্যবহার করত। আমরা চাই, যেগুলো আছে সেগুলো ব্যবহার উপযোগী করে  তোলা হোক।

 

চট্টগ্রাম নগরে ক্রমাগতভাবে জনসংখ্যা বাড়ছে। সঙ্গে বাড়ছে যানবাহন, সম্প্রসারণ হচ্ছে সড়ক। কিন্তু এ জন্য নগরের গুরুত্বপূর্ণ মোড়-জংশনে ফুটওভার ব্রিজ প্রয়োজন হলেও তা দেওয়া হয়নি। উল্টো যে কয়টি ফুটওভার ব্রিজ আছে সেগুলো অনেকটাই অচল। ফলে পথচারীদের ঝুঁকি নিয়েই ব্যস্ত সড়ক পার হতে হয়। চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনের (চসিক) ফুটওভার ব্রিজ নির্মাণ করার কথা। কিন্তু তারা নগরে প্রয়োজনীয় সংখ্যক ওভারব্রিজ নির্মাণ করেনি। চসিক সূত্রে জানা যায়, নগরের নিউমার্কেট, স্টেশন রোড, ফকিরহাট ও ইপিজেড মোড়ে ফুটওভার ব্রিজ আছে। এর মধ্যে নিউমার্কেট ও স্টেশন রোডের ওভারব্রিজ অনেকটাই ব্যবহার অনুপযোগী। মলমূত্রে অপরিচ্ছন্ন থাকা, প্রতিনিয়তই থাকে মদ-গাঁজা সেবনকারীদের আড্ডা, এলোমেলোভাবে বিভিন্ন পণ্য পড়ে থাকাসহ নানা কারণে এগুলো অনেকটা পরিত্যক্ত হয়ে আছে। চসিকের অতিরিক্ত প্রধান প্রকৌশলী রফিকুল ইসলাম বলেন, ‘নগরের কাঠগড়, ইপিজেড মোড়, বাদামতলী, দেওয়ানহাট, চৌমুহনীসহ এ ধরনের গুরুত্বপূর্ণ প্রায় ১৬টি জংশনে ওভারপাস নির্মাণের একটি পরিকল্পনা গ্রহণ করেছে চসিক। ইতিমধ্যে এ ব্যাপারে একটি প্রকল্প জাইকার মাধ্যমে বাস্তবায়নেরও উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। আশা করি, শিগগিরই এটি বাস্তবায়ন শুরু হবে।’ নগরে চারটি ওভারব্রিজ আছে। কিন্তু এসব ওভারব্রিজ ব্যবহার অনুপযোগী। চসিক যদি ব্যবহার উপযোগী করে তুলত তবে এগুলো মানুষ ব্যবহার করত। আমরা চাই, যেগুলো আছে সেগুলো ব্যবহার উপযোগী করে তোলা হোক। একই সঙ্গে নতুন করে গুরুত্বপূর্ণ জংশনে আরও ওভারব্রিজ নির্মাণ করা হোক।    

জানা যায়, নগরীর শাহ্ আমানত সেতু সংযোগ সড়ক, বহদ্দারহাট মোড়, মুরাদপুর, ষোলশহর, ২ নম্বর গেট, জিইসি মোড়, লালখান বাজার, টাইগার পাস, দেওয়ানহাট, আগ্রাবাদ, নিমতলা বিশ্বরোড, অলংকার, হালিশহর, বড়পোল, কাস্টমস, সল্টগোলা ক্রসিং, সিমেন্ট ক্রসিং মোড়, কাঠগড়সহ বিভিন্ন মোড়ে প্রতিনিয়তই যানবাহন ও পথচারী মাত্রাতিরিক্ত থাকে। বিশেষ করে বৃদ্ধ, নারী-শিশু ও স্কুল শিক্ষার্থীদের চরম ঝুঁকি নিয়ে পার হতে হয়। ঝুঁকি নিয়ে সড়ক পার হতে গিয়ে ঘটছে দুর্ঘটনা, হচ্ছে প্রাণহানি। এ নিয়ে ভুক্তভোগীদের অভিযোগও অন্তহীন।


আপনার মন্তব্য