শিরোনাম
প্রকাশ : ১ ডিসেম্বর, ২০২০ ২২:০০
প্রিন্ট করুন printer

জবিতে ছাত্রলীগের বিরুদ্ধে হামলার অভিযোগ ছাত্রদলের

অনলাইন ডেস্ক

জবিতে ছাত্রলীগের বিরুদ্ধে হামলার অভিযোগ ছাত্রদলের

ছাত্রলীগের বিরুদ্ধে ক্যাম্পাসে নেতা-কর্মীদের ওপর হামলার অভিযোগ করেছে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রদলের একাংশ। ছাত্রদলের অভিযোগ, আজ মঙ্গলবার সকালে বিক্ষোভ মিছিল শেষে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাস থেকে বের হওয়ার সময় ছাত্রলীগ এ হামলা করে। তবে ছাত্রলীগ এই অভিযোগ অস্বীকার করেছে।

ছাত্রদলের নেতা-কর্মীরা জানান, রাজধানীর পুরান ঢাকার বংশালের মোগলটুলির একটি স্কুলের নাম পরিবর্তনের প্রতিবাদে বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রদলে পদপ্রত্যাশী নেতা-কর্মীরা ক্যাম্পাসে আজ বিক্ষোভ মিছিল করেন। 

সুমন সরদার নামের এক ছাত্রদল নেতা বলেন, ‘সকালে মিছিল শেষে ক্যাম্পাস থেকে বের হওয়ার সময় পেছন দিকে থেকে ধর ধর বলে ইটপাটকেল ছুড়তে থাকেন ছাত্রলীগের কয়েকজন কর্মী। পরে আমরা প্রধান ফটকের সামনে অবস্থান নিলে হামলাকারীরা সরে যান।’

ছাত্রলীগের কারা হামলা করেছে, তা জানাতে চাইলে সুমন সরদার বলেন, ‘ছাত্রদলের ওপর সাধারণ শিক্ষার্থীরা হামলা করতে পারেন না। ক্যাম্পাসে ছাত্রলীগ একক আধিপত্য কায়েম করছে। তারাই আমাদের ওপর হামলা চালিয়েছে।’

বর্তমানে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে ছাত্রলীগের কোনো কমিটি নেই। অভিযোগ বিষয়ে শাখা ছাত্রলীগের সবশেষ সম্মেলন আয়োজন কমিটির আহ্বায়ক আশরাফুল ইসলাম বলেন, ‘আমি বিষয়টি সম্পর্কে জানি না। করোনা সংক্রমণ রোধে ক্যাম্পাস বন্ধ। ছাত্রলীগের কোনো নেতা-কর্মীর এই সময় ক্যাম্পাসে কাজ নেই।’

এ বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর মোস্তফা কামাল বলেন, ‘হামলার বিষয়ে কোনো অভিযোগ আসেনি। ছাত্রদলের পক্ষ থেকেও ক্যাম্পাসে বিক্ষোভ মিছিল করার জন্যও কোনো অনুমতি নেওয়া হয়নি।’

বিডি প্রতিদিন/হিমেল


আপনার মন্তব্য

পরবর্তী খবর

প্রকাশ : ২৫ জানুয়ারি, ২০২১ ১২:০৫
প্রিন্ট করুন printer

‘বঙ্গবন্ধুর অর্থনৈতিক ভাবনা ও আজকের বাংলাদেশ’ শীর্ষক আলোচনা সভা

নিজস্ব প্রতিবেদক, বরিশাল

‘বঙ্গবন্ধুর অর্থনৈতিক ভাবনা ও আজকের বাংলাদেশ’ শীর্ষক আলোচনা সভা

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবর্ষ উপলক্ষে বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়ে (ববি) ‘বঙ্গবন্ধুর অর্থনৈতিক ভাবনা ও আজকের বাংলাদেশ’ শীর্ষক ভার্চুয়াল আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। এতে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন বাণিজ্য মন্ত্রী টিপু মুন্সি।

গতকাল রবিবার বিশ্ববিদ্যালয়ের মার্কেটিং বিভাগ আয়োজিত আলোচনা সভায় সভাপতিত্ব করেন বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য প্রফেসর ড. মো. ছাদেকুল আরেফিন। সভায় মুখ্য আলোচক হিসেবে যুক্ত ছিলেন জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য প্রফেসর ড. মীজানুর রহমান। সভায় স্বাগত বক্তব্য রাখেন ববির মার্কেটিং বিভাগের চেয়ারম্যান মো. মেহেদী হাসান। 

মার্কেটিং বিভাগের সহকারী অধ্যাপক বঙ্কিম চন্দ্র সরকারের সঞ্চালনায় ভার্চুয়াল আলোচনা সভায় বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়ের সিন্ডিকেট সদস্যবৃন্দ, শিক্ষক সমিতির সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক, বিভিন্ন বিভাগের বিভাগীয় প্রধান, শিক্ষক-শিক্ষার্থী এবং কর্মকর্তারা সংযুক্ত ছিলেন।

বিডি প্রতিদিন/আবু জাফর


আপনার মন্তব্য

পরবর্তী খবর

প্রকাশ : ২৪ জানুয়ারি, ২০২১ ২০:৪২
প্রিন্ট করুন printer

খুবিতে অনশনরত দুই শিক্ষার্থী হাসপাতালে

নিজস্ব প্রতিবেদক, খুলনা:

খুবিতে অনশনরত দুই শিক্ষার্থী হাসপাতালে

খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ে (খুবি) বহিষ্কারাদেশ প্রত্যাহারের দাবিতে অনশনে অসুস্থ দুই শিক্ষার্থী ইমামুল ইসলাম ও মোহাম্মদ মোবারক হোসেন নোমানকে খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। রবিবার রাতে মোহাম্মদ মোবারক হোসেন নোমান গুরুতর অসুস্থ হয়ে পড়লে তাকে হাসপাতালে নেওয়া হয়। এর আগে শনিবার রাতে ইমামুলকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। 

এদিকে রবিবার বহিষ্কারাদেশ প্রত্যাহারের দাবি জানিয়ে উপাচার্য বরাবর নতুন আরেকটি চিঠি দিয়েছেন দুই শিক্ষার্থী। এতে ‘শিক্ষকদের সাথে অসদাচারণকে অনাকাক্সিক্ষত বিষয় উল্লেখ করে ওই ঘটনায় তারা জড়িত নয় এবং ভিডিও ফুটেজে এ ধরনের কোন ঘটনা দেখা যায়নি’ বলে দাবি করা হয়েছে। একই সাথে সামগ্রিক পরিস্থিতি বিবেচনায় তাদের বহিষ্কারাদেশ প্রত্যাহারের দাবি জানানো হয়েছে।

ছাত্র বিষয়ক পরিচালক প্রফেসর মো. শরীফ হাসান লিমন জানান, নতুন চিঠিতে তারা কিছুটা নমনীয়তা দেখালেও উদ্ভূত ঘটনার জন্য দুঃখ প্রকাশ না করেই আবারও তাদেরকে বহিষ্কারাদেশ প্রত্যাহারের জন্য দাপ্তরিক চিঠি দিতে বলা হয়েছে। ওই চিঠি তিনি সোমবার উপাচার্যকে হস্তান্তর করবেন।  

জানা যায়, ২০২০ সালের জানুয়ারিতে বেতন-ফি কমানো, আবাসন ব্যবস্থা, চিকিৎসাসহ পাঁচ দফা দাবিতে ক্যাম্পাসে আন্দোলন করেন শিক্ষার্থীরা। ওই আন্দোলনে দুইজন শিক্ষকের পথরোধ করা ও অসদাচরণের অভিযোগে শিক্ষার্থী মোহাম্মদ মোবারক হোসেন নোমান ও ইমামুল ইসলামকে বিভিন্ন মেয়াদে বহিস্কার করা হয়। এর প্রতিবাদে প্রশাসনিক ভবনের সামনে গত ১৭ জানুয়ারি থেকে টানা অবস্থান অনশন শুরু করেন শিক্ষার্থীরা।

বিডি প্রতিদিন/ মজুমদার 


আপনার মন্তব্য

পরবর্তী খবর

প্রকাশ : ২৩ জানুয়ারি, ২০২১ ২০:০৮
প্রিন্ট করুন printer

খুবি’র এক শিক্ষককে বরখাস্ত, অপর দু’জনকে অপসারণ

নিজস্ব প্রতিবেদক, খুলনা

খুবি’র এক শিক্ষককে বরখাস্ত, অপর দু’জনকে অপসারণ

খুলনা বিশ্ববিদ্যালয় (খুবি) সিন্ডিকেটের ২১২তম সভায় বাংলা ডিসিপ্লিনের সহকারী অধ্যাপক মো. আবুল ফজলকে চূড়ান্তভাবে বরখাস্ত করা হয়েছে। একই সাথে ইতিহাস ও সভ্যতা ডিসিপ্লিনের প্রভাষক হৈমন্তী শুক্লা কাবেরী ও বাংলা ডিসিপ্লিনের প্রভাষক শাকিলা আলমকে অপসারণ করা হয়েছে।

এছাড়া বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রধান ফটকের নকশা অনুমোদনসহ দুইজন গবেষককে পিএইচডি ডিগ্রির প্রাপ্তির চূড়ান্ত অনুমোদন দেওয়া হয়। পিএইচডি ডিগ্রি প্রাপ্তরা হলেন- ফরেস্ট্রি এন্ড উড টেকনোলজি ডিসিপ্লিনের শিক্ষার্থী মো. নাছিম রানা এবং তানিয়া ইসলাম। 

আজ শনিবার উপাচার্য প্রফেসর ড. মোহাম্মদ ফায়েক উজ্জামানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সিন্ডিকেট সভায় উপ-উপাচার্য প্রফেসর ড. মোসাম্মাৎ হোসনে আরা উপস্থিত ছিলেন। সভায় নতুন সদস্য প্রধানমন্ত্রীর একান্ত সচিব-২ ওয়াহিদা আক্তার, প্রফেসর ড. মো. মনিরুল ইসলাম, প্রফেসর এ কে ফজলুল হক, প্রফেসর ড. মো. আব্দুল জব্বার, ড. নিহার রঞ্জন সিংহকে ফুল দিয়ে শুভেচ্ছা জানানো হয়। 

এছাড়া সিন্ডিকেট সদস্য প্রফেসর ড. মুনতাসীর মামুন, প্রফেসর ড. আনন্দ কুমার সাহা, প্রফেসর ড. মো. মাহবুবুর রহমানসহ বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন ক্যাটাগরির অন্যান্য সকল সদস্য সভায় উপস্থিত ছিলেন। সিন্ডিকেটের অপর দুই সদস্য খুলনা প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাক্তন উপাচার্য বর্তমানে ইউজিসির সদস্য প্রফেসর ড. মুহাম্মদ আলমগীর ও খুলনা বিভাগীয় কমিশনার মো. ইসমাইল হোসেন এনডিসি অনলাইনে যুক্ত থেকে এ সভায় অংশগ্রহণ করেন।

এদিকে খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য এবং উপ-উপাচার্য হিসেবে দশবছর দুই মাস দায়িত্ব পালনে সিন্ডিকেট সদস্যবৃন্দের আন্তরিক সহযোগিতার জন্য প্রফেসর ড. মোহাম্মদ ফায়েক উজ্জামান সবাইকে ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা জানান।

সিন্ডিকেটের ২১১তম সিন্ডিকেট সভায় অবাধ্যতা, গুরুতর অসদাচারণের দায়ে একজন শিক্ষককে চাকরি থেকে বরখাস্ত এবং দুইজন শিক্ষককে চাকুরি থেকে অপসারণের যে সিদ্ধান্ত নেওয়া হয় সেটি আজ অনুষ্ঠিত সিন্ডিকেটের ২১২তম সভায় বহাল রাখা হয়। আত্মপক্ষ সমর্থনের সুযোগ প্রদানে পত্র দেওয়া হলেও এ তিনজন শিক্ষক তাদের জবাবে ক্ষমা বা দুঃখ প্রকাশ করেননি। 

বিডি প্রতিদিন/আবু জাফর


আপনার মন্তব্য

পরবর্তী খবর

প্রকাশ : ২২ জানুয়ারি, ২০২১ ১৬:৩৯
প্রিন্ট করুন printer

ইন্টারন্যাশনাল স্ট্যান্ডার্ড ইউনিভার্সিটির ভার্চুয়াল সেমিনার

প্রেস বিজ্ঞপ্তি

ইন্টারন্যাশনাল স্ট্যান্ডার্ড ইউনিভার্সিটির ভার্চুয়াল সেমিনার

বিজনেস লিডারশিপ এর ক্ষেত্রে বিজনেস গ্র্যাজুয়েটদের বিশ্বাসযোগ্যতা, দূরদর্শিতা,  কর্মদক্ষতা, প্রেরণা বিষয়ে বিশেষ দক্ষতা অর্জনে গুরুত্বারোপ করেছেন ফিউচারলিডার্স এর প্রতিষ্ঠাতা  কাজী মাহমুদ আহমেদ। বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় ইন্টারন্যাশনাল স্ট্যান্ডার্ড ইউনিভার্সিটি ( ISU) এর বিজনেস এডমিনিস্ট্রেশন বিভাগ  আয়োজিত এক ভার্চুয়াল সেমিনারে তিনি এসব কথা বলেন। 

তিনি আরো বলেন, বর্তমানে জাতীয় ও আন্তর্জাতিক ব্যবসায় প্রতিষ্ঠানগুলো কর্মীদের মাঝে বিনয়,  প্রতিষ্ঠানকে ধারণ, সাহসিকতা, যোগাযোগ দক্ষতা প্রত্যাশা করে। 

আইএসইউ ব্যবসায় প্রশাসন বিভাগের চেয়ারপার্সন ড. অলি আহাদ ঠাকুর এর সঞ্চালনায় ভার্চুয়াল সেমিনারে আরো উপস্থিত ছিলেন বিশ্ববিদ্যালয়ের সহযোগী অধ্যাপক ড. মিজানুর রহমান। এই প্রেক্ষাপটে ড. মিজান বিশ্ববিদ্যালয়গুলোকে ব্যবসায় শিক্ষার পাঠদান পদ্বতিকে সময়োপযোগী তাত্ত্বিক  শিক্ষার পাশাপাশি ব্যবহারিক ও সহশিক্ষা  কার্যক্রমে গুরুত্ব দেয়ার পরামর্শ দেন।


বিডি প্রতিদিন/হিমেল


আপনার মন্তব্য

পরবর্তী খবর

প্রকাশ : ২১ জানুয়ারি, ২০২১ ২১:২৫
প্রিন্ট করুন printer

খুবির তিন শিক্ষকের বিরুদ্ধে ‘প্রশাসনিক অত্যাচার’ বন্ধে ৬৬ শিক্ষকের বিবৃতি

বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিবেদক

খুবির তিন শিক্ষকের বিরুদ্ধে ‘প্রশাসনিক অত্যাচার’ বন্ধে ৬৬ শিক্ষকের বিবৃতি
ফাইল ছবি

খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ের তিনজন শিক্ষকের বিরুদ্ধে ‘প্রশাসনিক অত্যাচার’ বন্ধ করে তাদের স্বপদে বহাল রাখার দাবি জানিয়ে বিবৃতি দিয়েছেন ৬৬ জন বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক। একই সাথে অনশনরত দুই শিক্ষার্থীর বহিষ্কারাদেশ প্রত্যাহারের দাবিও জানিয়েছেন তারা।

‘বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক নেটওয়ার্ক’ নামের একটি সংগঠনের পক্ষে এই বিবৃতি দেন শিক্ষকবৃন্দ। গত সোমবার খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ে শিক্ষার্থীদের আন্দোলনে সংহতি জানানো তিন শিক্ষককে অপসারণের জন্য চূড়ান্ত নোটিশ প্রদান ও দুই শিক্ষার্থীকে বহিষ্কারের নিন্দা জানিয়ে এই বিবৃতি দিয়েছেন তারা।

এতে বলা হয়, ‘গত কয়েকমাসে সংঘটিত ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে এটাই প্রতীয়মান হচ্ছে যে, খুলনা বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ এই তিনজন শিক্ষককে প্রতিহিংসা পরায়ণভাবে শিক্ষকতা পেশা থেকে সরানোর চেষ্টা করছেন। শিক্ষার্থীদের যৌক্তিক আন্দোলনের (আবাসন-সংকট সমাধানসহ অন্যান্য দাবি-দাওয়া) প্রতি সংহতি প্রকাশ যেকোনো শিক্ষকের সাধারণ কর্তব্যবোধের পরিচায়ক; আর ওই শিক্ষকরা সেটাই করেছিলেন। সাধারণ শিক্ষকসুলভ আচরণকে কর্তৃপক্ষ যে বারংবার প্রশ্নবিদ্ধ করতে চাইছে, তার থেকেই আমরা বুঝতে পারি কর্তৃপক্ষের স্বার্থ ও উদ্দেশ্য সম্বন্ধে।’

বিবৃতিতে আরও বলা হয়, খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ের কর্তৃপক্ষের চিঠির ভাষা মনোযোগ দিয়ে পাঠ করলে এটা বুঝতে সমস্যা হওয়ার কথা নয় যে তারা ওখানে অগণতান্ত্রিক, অস্বচ্ছ ও সম্পূর্ণ স্বৈরাচারী শাসনব্যবস্থা কায়েম রাখার পক্ষে। আর এটা চরম পরিহাসের যে এই বিশ্ববিদ্যালয়টি ‘রাজনীতিমুক্ত’ তকমা নিয়ে গর্ববোধ করে আর লাগাতার কর্তৃত্বশালী ‘রাজনৈতিক’ ক্ষমতা চর্চা করে থাকে। আমরা সুনিশ্চিত যে, তিনজন শিক্ষক ও দুইজন শিক্ষার্থীর বহিষ্কারাদেশ অসৎ-উদ্দেশ্য ও ব্যক্তিস্বার্থ থেকে প্রেষিত, হার-জিতের গোঁয়ার্তুমি থেকে উত্থিত এবং ক্যাম্পাসের ‘রাজনৈতিক’ দাবা খেলার ফলাফল। বিবৃতিদাতা শিক্ষকবৃন্দ কর্তৃপক্ষের কাছে দীর্ঘমেয়াদে ক্ষতিকর ও অপ্রশাসকসুলভ হঠকারিতার রাস্তা ত্যাগ করার আহ্বান জানান।

বিবৃতিটিতে ‘ই-স্বাক্ষর’ করেছেন, জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের অর্থনীতি বিভাগের অধ্যাপক আনু মুহাম্মদ, নৃবিজ্ঞান বিভাগের অধ্যাপক মানস চৌধুরী ও অধ্যাপক সাঈদ ফেরদৌস, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের পদার্থবিজ্ঞান বিভাগের মো. কামরুল হাসান, গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের অধ্যাপক গীতিআরা নাসরীন, একই বিভাগের অধ্যাপক রোবায়েত ফেরদৌস, অধ্যাপক ফাহমিদুল হক, সহকারী অধ্যাপক কাজলী শেহরীন ইসলাম, আন্তর্জাতিক সম্পর্ক বিভাগের অধ্যাপক মোহাম্মদ তানজীম উদ্দিন খান, বাংলা বিভাগের অধ্যাপক মোহাম্মদ আজম, সমাজবিজ্ঞান বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক সামিনা লুৎফা প্রমুখ।

উল্লেখ্য, গত ১৮ জানুয়ারি শিক্ষার্থীদের আন্দোলনে সংহতি জানানো, শৃঙ্খলা পরিপন্থী কাজ ও অসদাচরণের অভিযোগ এনে বাংলা ডিসিপ্লিনের সহকারী অধ্যাপক আবুল ফজল, একই ডিসিপ্লিনের শাকিলা আলম এবং ইতিহাস ও সভ্যতা ডিসিপ্লিনের প্রভাষক হৈমন্তী শুক্লা কাবেরীকে অপসারণের চূড়ান্ত নোটিশ দেয় খুলনা বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ।

এরও আগে, গত বছর শিক্ষার্থীদের আন্দোলনের সময় দুই শিক্ষকের সাথে অসদাচরণ ও একাডেমিক কাজে বাধাদানের জেরে ইতিহাস ও সভ্যতা ডিসিপ্লিনের ইমামুম ইসলাম সোহান ও বাংলা ডিসিপ্লিনের মোবারক হোসেন নোমানকে বহিষ্কার করা হয়।

বিডি প্রতিদিন/এমআই


আপনার মন্তব্য

পরবর্তী খবর

এই বিভাগের আরও খবর