শিরোনাম
২৭ নভেম্বর, ২০২৩ ২০:১৪

রাবিতে প্রতারণার অভিযোগে আইন বিভাগের শিক্ষক সাময়িক বরখাস্ত

রাবি প্রতিনিধি

রাবিতে প্রতারণার অভিযোগে আইন বিভাগের শিক্ষক সাময়িক বরখাস্ত

অধ্যাপক জুলফিকার আহম্মদ

মাল্টি লেভেল মার্কেটিং (এমএলএম) ব্যবসার মাধ্যমে প্রতারণা করে কোটি টাকা হাতিয়ে নেওয়ার অভিযোগে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের (রাবি) আইন বিভাগের অধ্যাপক জুলফিকার আহম্মদকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে। বিশ্ববিদ্যালয়ের ৫২৬তম সিন্ডিকেট সভায় এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।

এ ছাড়া এ বিষয়ে পাঁচ সদস্যবিশিষ্ট একটি তদন্ত কমিটিও গঠন করা হয়েছে। সোমবার বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার অধ্যাপক আব্দুস সালাম তথ্যটি নিশ্চিত করেছেন।

রেজিস্ট্রার জানান, পূর্বের একটি অভিযোগের তদন্ত সাপেক্ষে তাকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে এবং অভিযোগের সার্বিক দিক খতিয়ে দেখতে একটি তদন্ত কমিটি গঠিত হয়েছে।

বিশ্ববিদ্যালয় সূত্রে ও সিন্ডিকেট সদস্যদের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, এমএলএম ব্যবসায় প্রতারণার অভিযোগে ২০১৩ সালের মে মাসে বিশ্ববিদ্যালয়ের ৪৪৮তম সিন্ডিকেট সভায় তাকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছিল। কিন্তু ওই সিদ্ধান্ত কার্যকর করা হয়নি। তিনি নিয়ম বহির্ভূতভাবে দুটি সরকারি প্রতিষ্ঠানে একই সময়ে পূর্ণকালীন চাকরি করেছেন।

কয়েকবছর আগে বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক সহ-উপাচার্য অধ্যাপক আনন্দ কুমার সাহা ওই একই অভিযোগ এনে তার বিরুদ্ধে একটি অভিযোগ দেন। সেই পরিপ্রেক্ষিতে গত সিন্ডিকেটে তাকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে। এ ছাড়া বিশ্ববিদ্যালয়ের বর্তমান সহ-উপাচার্য অধ্যাপক সুলতান-উল-ইসলামকে আহ্বায়ক করে পাঁচ সদস্যের একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে।

বিডি প্রতিদিন/এমআই

এই বিভাগের আরও খবর

সর্বশেষ খবর