শিরোনাম
প্রকাশ : ২১ অক্টোবর, ২০২০ ১০:৫২

বিশ্বনাথে মণ্ডপে মণ্ডপে শোভা পাচ্ছে দেবী দুর্গার প্রতিমা

বিশ্বনাথ (সিলেট) প্রতিনিধি:

বিশ্বনাথে মণ্ডপে মণ্ডপে শোভা পাচ্ছে দেবী দুর্গার প্রতিমা

শারদীয় দুর্গাপূজার আর মাত্র একদিন বাকি। বৃহষ্পতিবার (২২ অক্টোবর) ঢাকের পিঠে পড়বে বাড়ি, আর দোলায় চড়ে মর্ত্যলোকে পদার্পণ করবে দুর্গতিনাশিনী, দশভূজা দেবী দুর্গা। ওই দিন মহাষষ্ঠীর মধ্য দিয়ে শুরু হবে বাঙালি হিন্দু সম্প্রদায়ের সবচেয়ে বড় ধর্মীয় উৎসব দুর্গাপূজার আনুষ্ঠানিকতা। 

ভক্ত-সন্তানদের দর্শন দিতে এবার দেবী থাকবেন পাঁচ দিন। ২৬ অক্টোবর বিজয়া দশমীর পূজা ও বিসর্জনের মধ্য দিয়ে শেষ হবে সকল আনুষ্ঠানিকতা। এ উপলক্ষ্যে সিলেটের বিশ্বনাথ উপজেলায় ইতিমধ্যে সম্পন্ন করা হয়েছে পূজা উদযাপনের সকল প্রস্তুতি। উপজেলা ঘুরে দেখা যায়, মণ্ডপে মণ্ডপে শোভা পাচ্ছে দেবী দুর্গার প্রতিমা। পর্দার আড়ালে ডেকে রাখা হয়েছে মা দুর্গার মুখ। যষ্ঠীর সকালে ভক্তদের জন্য তা উন্মোচিত হবে। 

এ বছর উপজেলায় ২৫টি মণ্ডপে উদযাপিত হবে এ উৎসব। এর মধ্যে ২২টি সার্বজনীন ও ৪টি ব্যক্তিগত মণ্ডপও রয়েছে। এদিকে পূজা উপলক্ষে প্রস্তুতি সভা করে উৎসব পালনে ‘বিশেষ নিদের্শনা’ দিয়েছে উপজেলা প্রশাসন। করোনার কারণে কিছুটা কমিয়ে আনা হয়েছে পূজার আনুষ্ঠানিকতাও। বাদ্য-বাজনা, জনসমাগম, সাংস্কৃতিক অনুুষ্ঠান ও আলোকসজ্জা সীমিত আকারে করতে বলা হয়েছে। বিসর্জনের দিনও উৎসব না করে নির্দিষ্ট ব্যক্তিদেরকে দিতে হবে প্রতিমা বিসর্জন।         
     
উপজেলা পূজা উদযাপন পরিষদের সাধারণ সম্পাদক জয়ন্ত কুমার দাস বলেন, করোনার কারণে এ বছর উৎসব নয় শুধু পূজাটাই আমরা পালন করছি। কল্যাণী মা দুর্গার আশীর্বাদে সকল বিপর্যয় কাটিয়ে পৃথিবী আবার ঘুুরে দাঁড়াবে। মানুষের মাঝে নেমে আসবে শান্তি, এটিই আমাদের প্রত্যাশা।  

এ বিষয়ে বিশ্বনাথ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বর্ণালী পাল ‘বাংলাদেশ প্রতিদিন’কে বলেন, কোভিড-১৯’র কারণে এ বছর শারদীয় দুর্গা উৎসব না করে, স্বাস্থ্যবিধি ও সামাজিক দূরত্ব মেনে কেবল সীমিত পরিসরে পূজার কার্যক্রম পরিচালনা করা হবে। 

বিডি প্রতিদিন/হিমেল


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর