শিরোনাম
প্রকাশ : ১০ মে, ২০২১ ২১:১৮
প্রিন্ট করুন printer

হেফাজত নেতা জাকারিয়ার বিরুদ্ধে ধর্ষণ মামলায় ভিকটিমের পরীক্ষা সম্পন্ন

নিজস্ব প্রতিবেদক, চট্টগ্রাম

হেফাজত নেতা জাকারিয়ার বিরুদ্ধে ধর্ষণ মামলায় ভিকটিমের পরীক্ষা সম্পন্ন
জাকারিয়া নোমান ফয়েজী
Google News

হেফাজতে ইসলামের সদ্য বিলুপ্ত কেন্দ্রীয় কমিটির প্রচার সম্পাদক জাকারিয়া নোমান ফয়েজীর বিরুদ্ধে দায়ের করা ধর্ষণ মামলার ভুক্তভোগীর ডাক্তারি পরীক্ষা সম্পন্ন হয়েছে। 

সোমবার বিকালে চট্টগ্রাম জেলা পুলিশ সুপার এসএম রশিদুল হক জানান, জাকারিয়া নোমান ফয়েজীর বিরুদ্ধে ভুক্তভোগী নারী একাধিকবার ধর্ষণের অভিযোগসহ বিয়ের প্রলোভন ও প্রতারণার অভিযোগ এনে মামলাটি দায়ের করেন। মামলা দায়েরের পর গত শনিবার চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ (চমেক) হাসপাতালের ওয়ান স্টপ ক্রাইসিস (ওসিসি) সেন্টারে ভিকটিমের ডাক্তারি পরীক্ষা সম্পন্ন হয়।

এর আগে গত বৃহস্পতিবার দিবাগত রাত দুইটার দিকে হাটহাজারী থানায় ওই নারী বাদী হয়ে ধর্ষণের মামলাটি দায়ের করেন। 

মামলার এজাহারে উল্লেখ, ২০১৯ সালের সেপ্টেম্বর মাসে ফেসবুকের মাধ্যমে জাকারিয়া নোমান ফয়েজীর সঙ্গে ওই নারীর পরিচয় ঘটে। ফেসবুক মেসেঞ্জার ও হোয়াটসঅ্যাপে নিয়মিত চ্যাটিং হয় তাদের। বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে গত ২০১৯ সালের নভেম্বরে হাটহাজারীর কনক বিল্ডিংয়ের নীচ তলায় বাসা ভাড়া করে দেন ফয়েজী। দীর্ঘ এক বছর ওই ভাড়া বাসায় বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে ভিকটিমের সঙ্গে শারীরিক সম্পর্ক স্থাপন করেন ফয়েজী। গত বছর হাটহাজারী থেকে চট্টগ্রাম নগরীতে খালার বাসায় চলে আসার পরও বিভিন্ন বাসা ও হোটেলে নিয়ে গিয়ে সুকৌশলে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে শারীরিক সম্পর্ক স্থাপন করেন ফয়েজী।

গত বুধবার (৫ মে) বিকেলে কক্সবাজারের চকরিয়া থেকে তাকে জাকারিয়া নোমানকে গ্রেফতার করে চট্টগ্রাম জেলা গোয়েন্দা পুলিশ। গ্রেফতারের পর ওইদিন সন্ধ্যায় তাকে চট্টগ্রাম নিয়ে আসা হয়। এরপর তাকে ৬ মে আদালতে তুলে ১০ দিনের রিমান্ড চায় পুলিশ। শুনানি শেষে আদালত ৫ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন। নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইন ২০০০ (সংশোধনী ২০০৩) এর ৯ (১) মামলাটি দায়ের করা হয়েছে। মামলাটি তদন্ত করছেন এসআই মো. মুকিব হাসান।

বিডি-প্রতিদিন/বাজিত হোসেন