শিরোনাম
প্রকাশ : ২৩ ডিসেম্বর, ২০২০ ১৪:১৬
প্রিন্ট করুন printer

বেতন বৈষম্য নিরসনের দাবিতে রাজশাহী বেতার কর্মীদের কর্মবিরতি

নিজস্ব প্রতিবেদক, রাজশাহী:

বেতন বৈষম্য নিরসনের দাবিতে রাজশাহী বেতার কর্মীদের কর্মবিরতি
সচিবালয়, পাবলিক সার্ভিস কমিশন, হাইকোর্ট, বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশনের প্রধান সহকারী, অফিস সহকারী, উচ্চমান সহকারী পদগুলোকে প্রশাসনিক কর্মকর্তাসহ দশম গ্রেডে উন্নীত করা হয়েছে। অথচ জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির তিনবার সুপারিশ করা সত্বেও সারাদেশের অন্যান্য সরকারি দফতর ও সংস্থায় কর্মরত পদগুলো আগের পদবি ও বেতন স্কেলে রাখা হয়েছে। 
 
বুধবার সকালে কেন্দ্রীয় কমিটি ঘোষিত কর্মসূচির অংশ হিসেবে সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সুপারিশ বাস্তবায়নের দাবিতে সরকারি কর্মচারীদের কর্মবিরতি ও অবস্থান কর্মসূচি পালনকালে বক্তারা কথাগুলো বলেন। 
 
এ সময় উপস্থিত ছিলেন সংগঠনের সদস্য সচিব বনি আমিন, সদস্য জুলফিকার আলী, আ. রাজ্জাক, মীর মোশাররফ হোসেন, সাবিনা ইয়াসমিন, বুলবুল আহমেদ, আতিক হাসান, রুপেন চন্দ্র ঘোষ, ফারজানা, মুরাদ হোসাইনসহ রাজশাহী বেতারের অন্যান্য কর্মচারীরা। 
 
এসময় বক্তরা আরও বলেন, বাংলাদেশ সচিবালয়ের ভিতরে ও বাহিরে সরকারি দফতরের প্রধান সহকারী ও উচ্চমান সহকারী সম-পদের পদবী ও বেতন স্কেল এক এবং অভিন্ন ছিল। ১৯৯৫ সালের প্রজ্ঞাপন দিয়ে তৎকালীন সরকার, শুধু সচিবালয় বর্ণিত পদগুলো প্রশাসনিক কর্মকর্তা পদবী সহ দশম গ্রেডে উন্নীত করা হয়। ফলে সরকারি দফতরগুলোর মধ্যে পদবী ও বেতন বৈষম্য সৃষ্টি হয়। অথচ বাংলাদেশ বেতারের নিয়োগ বিধি (উচ্চমান সহকারী নিয়োগের ক্ষেত্রে) সচিবালয়ের সঙ্গে এক এবং অভিন্ন।
 

বিডি প্রতিদিন/ মজুমদার 


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর