শিরোনাম
প্রকাশ : ২৫ জানুয়ারি, ২০২১ ২১:৩০
প্রিন্ট করুন printer

বরিশালে অবৈধ ৪টি ইটভাটা ধ্বংস করলো পরিবেশ অধিদপ্তর

নিজস্ব প্রতিবেদক, বরিশাল

বরিশালে অবৈধ ৪টি ইটভাটা ধ্বংস করলো পরিবেশ অধিদপ্তর

বরিশালের বাবুগঞ্জ ও উজিরপুরে অবৈধ ৪টি ইটভাটা ধ্বংস করেছে পরিবেশ অধিদপ্তর। এ সময় সরকারি লোকজনের উপস্থিত টের পেয়ে পালিয়ে গেছে ইটভাটার লোকজন। পর্যায়ক্রমে জেলার সকল অবৈধ ইটভাটা ধ্বংস করার কথা জানিয়েছেন পরিবেশ অধিদপ্তরের কর্মকর্তারা। 

এদিকে কোটি টাকা ব্যয়ে গড়ে তোলা ইটভাটা কেন শুরুতে অনুমোদন দেয়া হয়েছিল সেই প্রশ্ন তুলেছেন স্থানীয় বাসিন্দারা। 

সোমবার দুপুর ২টা থেকে বরিশাল জেলার বাবুগঞ্জ উপজেলার দোয়ারিকা এলাকায় অভিযান শুরু করে পরিবেশ অধিদপ্তরের বরিশাল বিভাগীয় কর্তৃপক্ষ। ভেকু মেশিন ও ফায়ার সার্ভিস এবং আইনশৃঙ্খলা রক্ষা বাহিনীর উপস্থিতি টের পেয়ে পালিয়ে যায় ইটভাটার লোকজন। এরপর পরিবেশ অধিপ্তরের ভ্রাম্যমাণ আদালতের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সাদিকুর রহমানের নির্দেশে ইটভাটার কাঁচা ইট ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা পানি দিয়ে ধ্বংস করে। ইট পোড়াবার জন্য সাঁজিয়ে রাখা পুরো ভাটা ভেকু মেশিন দিয়ে গুঁড়িয়ে দেয়া হয়। 

অভিযানে সময় মালিক কর্তৃপক্ষ পালিয়ে যাওয়ার কারণে সেখান থেকে কাউকে আটক কিংবা আর্থিক দণ্ড দেয়নি নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট। ভ্রাম্যমাণ আদালত পর্যায়ক্রমে বাবুগঞ্জের ফাইন ব্রিকস, রাজ ব্রিকস, নিসা ব্রিকস এবং উজিরপুরের হোপ ব্রিকসে অভিযান চালিয়ে ভাটাগুলো ধ্বংস করে দেয়। 

পরিবেশ অধিদপ্তর বরিশালের উপ-পরিচালক কামরুজ্জামান সরকার জানান, সরকারের নির্দেশনা অনুসারে পরিবেশ রক্ষার জন্য অবৈধ ইটভাটা গুলো ধ্বংস করা হচ্ছে। 

এদিকে পরিবেশ অধিদপ্তরের ভ্রাম্যমাণ আদালতের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো. সাদিকুর রহমান সবুজ বলেন, পর্যায়ক্রমে সকল অবৈধ ইটভাটা ধ্বংস করা হবে। 

অপরদিকে ইটভাটার আশপাশের স্থানীয় বাসিন্দারা বলেন, যে ইটভাটাগুলো ধ্বংস করা হয়েছে সেগুলো গড়ে তোলার সময় কর্তৃপক্ষ নির্বিকার ছিল। কোটি টাকা ব্যয়ে নির্মিত ইটভাটাগুলো থেকে সরকার মোট অংকের ভ্যাট আদায় করে। ইটভাটা গুলো ধ্বংসের কারণে উদ্যোক্তারা নিঃস্ব হয়ে গেছে।


বিডি-প্রতিদিন/বাজিত হোসেন


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর