শিরোনাম
প্রকাশ : ২৬ ফেব্রুয়ারি, ২০২১ ০১:৫৯
আপডেট : ২৬ ফেব্রুয়ারি, ২০২১ ০২:১০
প্রিন্ট করুন printer

শিশু গৃহকর্মীকে ভয়াবহ নির্যাতনের অভিযোগ

নিজস্ব প্রতিবেদক, বরিশাল

শিশু গৃহকর্মীকে ভয়াবহ নির্যাতনের অভিযোগ

ঢাকায় এক চিকিৎসকের স্ত্রীর নির্যাতনে ক্ষত-বিক্ষত এক শিশু গৃহকর্মীকে তার গ্রামের বাড়ির কাছে বরিশালের উজিরপুরে ফেলে রাখার অভিযোগ উঠেছে। পুলিশ তাকে উদ্ধার করে স্থানীয় স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করেছে। শিশুটি শারীরিক নির্যাতনের চেয়েও মানসিকভাবে বেশি আঘাতপ্রাপ্ত হয়েছে বলে জানিয়েছেন চিকিৎসকরা। এ ঘটনার বিচার দাবি করেছেন নির্যাতিতা শিশু ও তার স্বজনরা। শিশু নির্যাতনের ঘটনায় যথাযথ আইনগত ব্যবস্থা নেয়ার কথা জানিয়েছে পুলিশ। 

নিপা বাড়ৈ উজিরপুরের জামবাড়ি এলাকার ননী বাড়ৈর মেয়ে। তার বাবা একজন মানসিক প্রতিবন্ধী। তার মা ২ বছর আগে অন্যত্র বিয়ে করেছে। ২ বোন ও এক ভাইয়ের মধ্যে নিপা মেঝ। 

উজিরপুর স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ২৬ নম্বর বেডে শরীরের নানা ক্ষত নিয়ে কাতরাচ্ছে ১১ বছর বয়সের শিশু নিপা বাড়ৈ। মাথায়ও বড় ধরনের ক্ষত রয়েছে। চোখে মুখে তার ভয়াল ছাপ। নিপা বাড়ৈর অভিযোগ, গৃহকর্তী রাখি দাস নানা অজুহাতে তার উপর শারীরিক নির্যাতন করতো। কখনও গরম খুতির ছ্যাকা, কখনও ছুরির খোঁচা আবার কখনও দেয়ালে ঠোকা হতো তার মাথা। রাগের মধ্যে কখনও তার গলা চেপে শ্বাস রোধ করার চেস্টা করতো গৃহকর্তার স্ত্রী। অব্যাহত নির্যাতনে সে গুরুতর অসুস্থ হয়ে পড়লে নির্যাতনকারী লোক মারফত গত (২৪ ফেব্রুয়ারি) বুধবার সন্ধ্যায় তাকে ঢাকা থেকে উজিরপুরের জামবাড়ি তার গ্রামের বাড়ির কাছে একটি দোকানের সামনে ফেলে যায়। 

শিশুটির চাচি মুক্তি বাড়ৈ জানান, গত ৬ মাস আগে ঢাকার শ্যামলীতে বাসায় গৃহপরিচারিকার কাজ শুরু করে নিপা। কখনও শিশুটির খোঁজ খবর জানতে চাইলে সে ভালো আছে বলে জানানো হতো তাদের। বুধবার শিশুটিকে বাড়ির কাছে ফেলে যাওয়ার পর তার শরীরে ভয়াবহ নির্যাতনের ছাপ দেখেন তারা। এ ঘটনার বিচার দাবি করেন নিপা ও তার স্বজনরা। 

উজিরপুর স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসক ডা. শামসুদ্দোহা তৌহিদ জানান, চিকিৎসায় শিশুটির শরীরের ক্ষত একদিন সেরে যাবে। কিন্তু মানসিকভাবে সে বেশি আঘাতপ্রাপ্ত হয়েছে। 

উজিরপুর থানার ওসি মো. জিয়াউল আহসান জানান, নির্যাতিত শিশু ফেলে যাওয়ার খবর পেয়ে তারা তাকে উদ্ধার করে স্থানীয় স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করেন। নির্যাতনের ঘটনা ঘটেছে ঢাকায়। এ ঘটনায় লিখিত অভিযোগ পেলে সংশ্লিষ্ট থানা পুলিশ অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেবে।

 

বিডি প্রতিদিন/ ওয়াসিফ


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর