শিরোনাম
প্রকাশ : মঙ্গলবার, ৩১ মার্চ, ২০২০ ০০:০০ টা
আপলোড : ৩১ মার্চ, ২০২০ ০০:০৯

করোনার ছোবল দুই মেগা প্রকল্পে

নির্ধারিত সময়ে কাজ শেষ করা নিয়ে শঙ্কা ♦ একটির কাজ বন্ধ, অন্যটি বন্ধের পথে

মুহাম্মদ সেলিম, চট্টগ্রাম

করোনার ছোবল দুই মেগা প্রকল্পে
করোনা আতঙ্কে বন্ধ হয়ে যাওয়ার পথে কর্ণফুলী টানেল নির্মাণ কাজ -বাংলাদেশ প্রতিদিন

করোনাভাইরাস প্রাদুর্ভাবের প্রভাব পড়েছে চট্টগ্রামের দুই মেগা প্রকল্পে। নির্মাণসামগ্রী ও শ্রমিক সংকটের কারণে এরই মধ্যে বন্ধ হয়ে গেছে চট্টগ্রাম-কক্সবাজার রেললাইন নির্মাণ প্রকল্পের কাজ। অভিন্ন সংকটের কারণে বন্ধ হয়ে যাওয়ার পথে দেশের প্রথম টানেল নির্মাণের কাজও। উ™ভূত পরিস্থিতিতে নির্ধারিত সময়ের মধ্যে কাজ শেষ করা নিয়ে অনিশ্চয়তা দেখা দিয়েছে। কর্ণফুলী টানেলের প্রকল্প পরিচালক প্রকৌশলী হারুন উর রশিদ বলেন, ‘করোনাভাইরাসের প্রভাব এরই মধ্যে পড়েছে প্রকল্পে। যে শ্রমিকরা ছুটি নিয়ে বাড়িতে গেছে তাদের বেশির ভাগই কাজে যোগদান করেনি। যারা আছে তারাও আতঙ্কগ্রস্ত। তাই খুবই ধীরগতিতে কাজ চলছে। এভাবে আরও কয়েকদিন চললে হয় তো সাময়িক সময়ের জন্য প্রকল্পের কাজ বন্ধ রাখতে হবে।’ চট্টগ্রাম কক্সবাজার রেললাইন প্রকল্পের পরিচালক মফিজুর রহমান বলেন, ‘শ্রমিক ও নির্মাণসামগ্রী সংকটের কারণে গত শুক্রবার থেকে প্রকল্পের কাজ বন্ধ রয়েছে। করোনা পরিস্থিতির কারণে কখন প্রকল্পের কাজ শুরু করতে পারব তা এই মুহূর্তে বলতে পারছি না। দ্রুত সময়ের মধ্যে ফের কাজ শুরু করা না গেলে প্রত্যাশিত সময়ের মধ্যে এ প্রকল্পের কাজ শেষ করা নিয়ে শঙ্কার মধ্যে পড়েছি।’ সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, নির্মাণ কাজের উদ্বোধনের পর থেকে অবিশ্বাস্য দ্রুতগতিতে চলছিল দেশের প্রথম টানেলের নির্মাণ কাজ। ডিসেম্বর পর্যন্ত ৫০ শতাংশের কিছুটা বেশি কাজের অগ্রগতি হয়। জানুয়ারির শুরুতে কিছু চীনা শ্রমিক দেশে বেড়াতে গেলে করোনাভাইরাস সংক্রমণের কারণে আটকে যায়। এতে প্রথম ধাক্কা খায় প্রকল্পের কাজের অগ্রগতি। এরপর নির্মাণসামগ্রী সংকট ও নানা জটিলতার কারণে ধীর হতে থাকে কাজের গতি। গত তিন মাসে এ প্রকল্পের কাজের অগ্রগতি হয়েছে মাত্র দেড় শতাংশের কিছুটা বেশি। দেশে করোনা রোগী চিহ্নিত হওয়ার পর থেকে এখানে কর্মরত শ্রমিদের মধ্যে আতঙ্ক দেখা দিয়েছে। ফলে যারা ছুটি নিয়ে বাড়ি যাচ্ছে তারা আর কর্মস্থলে যোগাদান করছে না। এতে করে ধীর থেকে ধীর হচ্ছে কাজের গতি। এভাবে চলতে থাকলে এ প্রকল্পের কাজ সাময়িকভাবে স্থগিতের চিন্তাভাবনা করছে প্রকল্প সংশ্লিষ্টরা। ফলে ২০২২ সালের মধ্যে এ টানেল চলাচলের জন্য চালু করার যে চিন্তাভাবনা করা হচ্ছে তা হোঁচট খেতে পারে বলে শঙ্কা করছেন প্রকল্প সংশ্লিষ্টরা। অন্যদিকে চট্টগ্রাম-কক্সবাজার রেললাইন প্রকল্পের কাজ শুরু হওয়ার পর দ্রুততার সঙ্গে প্রায় ৪০ শতাংশ কাজের অগ্রগতি হলেও করোনা সংকটের কারণে গত শুক্রবার থেকে বন্ধ হয়ে যায় কাজ। এ প্রকল্পে কর্মরত বিদেশি শ্রমিকরা থাকলেও কাজে যোগদান করছে না দেশি শ্রমিকরা। ফলে শ্রমিক সংকটের কারণে এরই মধ্যে বন্ধ হয়ে গেছে প্রায় ১৮ হাজার কোটি টাকার এ প্রকল্পের কাছ। এ প্রকল্পের কাজ ২০২০ সালে শেষ হওয়ার কথা থাকলেও বর্তমানে কাজ বন্ধ থাকার কারণে শঙ্কা দেখা দিয়েছে নির্ধারিত সময়ের মধ্যে কাজ শেষ করা নিয়ে।

কর্ণফুলী টানেলের প্রকল্প পরিচালক প্রকৌশলী হারুন উর রশিদ বলেন, ‘এ প্রকল্পের বেশির ভাগ শ্রমিক কাজে যোগদান করছে না। এ ছাড়া কিছু নির্মাণসামগ্রীর সংকটও দেখা দিয়েছে। তাই সাময়িক সময়ের জন্য হয় তো প্রকল্পের কাজ বন্ধ রাখতে হতে পারে।


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর