শিরোনাম
শুক্রবার, ২৭ অক্টোবর, ২০২৩ ০০:০০ টা

অরক্ষিত কুমিল্লা বিসিক

নিরাপত্তা বাড়ানোর দাবি ব্যবসায়ী-শ্রমিকদের

মহিউদ্দিন মোল্লা, কুমিল্লা

কুমিল্লা বিসিকে (বাংলাদেশ ক্ষুদ্র ও কুটির শিল্প করপোরেশন) সম্প্রতি চুরি-ছিনতাই বেড়ে গেছে। এতে অতিষ্ঠ হয়ে পড়েছেন ব্যবসায়ী ও শ্রমিকরা। বিসিক জেলা পুলিশ সুপার ও শিল্পপুলিশের নিকট এ নিয়ে চিঠি দিয়ে সহযোগিতা চাওয়া হয়। এদিকে বিসিক কার্যালয়েরও মালামাল চুরি হয়েছে। এ নিয়ে ২২ অক্টোবর কুমিল্লা কোতোয়ালি মডেল থানায় একটি অভিযোগ দেওয়া হয়েছে। অপরদিকে ব্যবসায়ীরা বিসিক এলাকায় একটি পুলিশ ফাঁড়ি স্থাপনের দাবি জানিয়েছেন। বিভিন্ন সূত্র মতে, কুমিল্লা বিসিকে ১৩৩টি প্রতিষ্ঠান চালু রয়েছে। এগুলোর অধিকাংশ খাদ্যপণ্য উৎপাদনকারী প্রতিষ্ঠান। এখানে কর্মরত আছেন ১০ হাজারের বেশি শ্রমিক। এর মধ্যে নারী শ্রমিক ৩ হাজার ৫০০। নারী শ্রমিকরা বিসিক-সংলগ্ন এলাকায় চলতে ইভটিজিংয়ের শিকার হচ্ছেন। ২১ অক্টোবর রাতে বিসিকের পুরাতন অফিসের ছাদ থেকে ২ হাজার লিটারের পানির ড্রাম চুরি হয়। এ ছাড়া জানালার গ্রিল কেটে নেওয়া হয়। ১৬ অক্টোবর স্কাইল্যাব ফার্মাসিউটিক্যালসের পুরাতন ভবনের মালামাল চুরি করার সময় দুই চোরকে আটক করা হয়। তাদের একই মালিকানাধীন এবিএস ক্যাবলের প্রধান ফটকের ভিতরে এনে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছিল। এ সময় দা-ছেনিসহ অস্ত্র হাতে ১০-১২ জনের একটি দল এসে ফ্যাক্টরির লোকদের ওপর হামলা চালায়। তারা সিকিউরিটি গার্ড আবু বকরকে কুপিয়ে আহত করে দুই চোরকে ছিনিয়ে নেয়। এ ছাড়া বিসিকের পশ্চিম পাশে এস আলম মিলের নিকটের জলা এলাকায় রাত নামলে শ্রমিক, কর্মকর্তারা ছিনতাইয়ের শিকার হচ্ছেন। এখানে মাদক কারবারি ও সেবীদের আখড়া বসে। সন্ধ্যায় ওই এলাকায় আতঙ্ক নেমে আসে। সরেজমিনে জানা গেছে, ব্যবসায়ীরা চুরি ছিনতাই নিয়ে উদ্বিগ্ন। তারা নিরাপত্তা বৃদ্ধির বিষয়ে প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন। বিসমিল্লাহ মুড়ি মিলের পরিচালক ইরফান মাহমুদ বলেন, এখানে চুরি ছিনতাইয়ের কারণে ব্যবসায়ীরা ভালো নেই।

 পুলিশ ফাঁড়ি হলে মালিক-শ্রমিক নির্বিঘ্নে চলাচল করতে পারতেন।

বিসিক কুমিল্লার ডিজিএম এস এম আলমগীর কাদেরী বলেন, ব্যবসায়ীদের কাছ থেকে চুরির   কিছু অভিযোগ পেয়েছি। সে বিষয়ে জেলা পুলিশ সুপার ও শিল্পপুলিশ সুপারের নিকট চিঠি দিয়ে সহযোগিতা চেয়েছি।

এ ছাড়া আমাদের কিছু মালামাল চুরি হয়েছে, সেজন্যও থানায় অভিযোগ দিয়েছি।

কুমিল্লা কোতোয়ালি মডেল থানার ওসি আহমেদ সনজুর মোর্শেদ বলেন, আমরা বিভিন্ন সময়ে বিসিক এলাকায় টহল দিয়ে আসছি। এ বিষয়ে নজরদারি বাড়ানো হবে।

শিল্পপুলিশ কুমিল্লার পুলিশ সুপার এ কে এম জহিরুল ইসলাম বলেন, ব্যবসায়ীদের কমিউনিটি পুলিশিংয়ের মাধ্যমে নিরাপত্তা জোরদারের বিষয়ে আমরা পরামর্শ দিয়ে থাকি। এ ছাড়া বিসিকে জেলা পুলিশের সঙ্গে আমরা আরও তৎপরতা বাড়াব। 

এই রকম আরও টপিক

এই বিভাগের আরও খবর

সর্বশেষ খবর