শিরোনাম
প্রকাশ : ৮ এপ্রিল, ২০২০ ১৮:০৮

শ্রীমঙ্গলে করোনা সংকটে মানুষের পাশে শপ-২০

দীপংকর ভট্টাচার্য লিটন, শ্রীমঙ্গল :

শ্রীমঙ্গলে করোনা সংকটে মানুষের পাশে শপ-২০

‘সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখুন, ঘরে থাকুন আমরা আসছি’। মহামারি করোনাভাইরাসের সংক্রামক থেকে রক্ষা পেতে সারাদেশের মত ঘরবন্দী হয়ে আছেন মৌলভীবাজারের শ্রীমঙ্গল উপজেলার মানুষরা। এতে করে সবচেয়ে বেশি দুর্ভোগে পড়েছে এ উপজেলার স্বল্প আয়ের মানুষরা। এই খেটে খাওয়া দুস্থ মানুষদের ঘরে ঘরে ভ্রাম্যমাণ দোকানের মাধ্যমে নিত্যপণ্য সামগ্রী পৌঁছে দিচ্ছে উপজেলা করোনাভাইরাস প্রতিরাধ কমিটির শপ-২০। 

আজ মঙ্গলবার থেকে তাদের এই কার্যক্রম শুরু হয়েছে। এই দোকানে পাওয়া যাচ্ছে চাল, আলু, পিয়াজ, তেল ও ডাল। একজন ক্রেতা এই ভ্রাম্যমাণ দোকান থেকে এক কেজি চাল ২০ টাকা, হাফ কেজি ডাল ২০ টাকা,  হাফ কেজি তেল ২০ টাকা, দুই কেজি আলু ২০ টাকা ও এক কেজি পিয়াজ ২০ টাকায় কিনতে পারবেন। মূলত কোভিড-১৯ মোকাবেলায় শপ-২০ এই লক্ষ্য প্রতিটি পণ্যর মূল্য ২০ টাকা রাখা হয়েছে। 

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তারা ব্যক্তিগত ও উপজেলা প্রশাসনের ফেসবুকে একটি হট লাইন নম্বর দেওয়া আছে। যারা এই নম্বরে ফোন দেবেন তাদের বাড়িতে পৌঁছে যাবে এই ভ্রাম্যমাণ গাড়ি। উপজেলা প্রশাসন থেকে জানা যায়, প্রাথমিকভাবে শ্রীমঙ্গল উপজেলা অফিসার্স ক্লাব’র সকল কর্মকর্তার একদিনের বেতন ও লেডিস ক্লাবের অনুদানে এই কর্মসূচির যাত্রা শুরু করা হয়। তবে যে কোন কর্মকর্তা তাদের ইচ্ছাধীন অর্থ এবং শ্রীমঙ্গলের বিভিন্ন ব্যক্তি-প্রতিষ্ঠান চাইলে অনুদান দিতে পারবে। 

সামাজিক দূরত্ব রক্ষা ও জনগণকে নিজ নিজ ঘরে রাখতে সচেতনতা ও উদ্বুদ্ধ করার জন্য প্রতীকী মূলে এই নিত্যপণ্যের ভ্রাম্যমাণ দোকানের মাধ্যমে মানুষের ঘরে নিত্যপণ্য পৌঁছে দেয়া হচ্ছে। শ্রীমঙ্গল উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও উপজেলা করোনা প্রতিরোধ কমিটি সভাপতি নজরুল ইসলাম বলেন, ‘২০১৯ সালে আক্রমণকারী কোভিড-১৯ ভাইরাসকে ২০২০ সালে শপ-২০ এর মাধ্যমে আত্মরক্ষামূলক চ্যালেঞ্জ মোকাবেলায় এটি একটি সচেতনতামূলক ও উদ্বুদ্ধকরণ কর্মসূচি।

যেহেতু যানবাহন বন্ধ এবং ঘর থেকে মানুষ বের হতে সীমাবদ্ধতা রয়েছে পাশাপাশি শ্রীমঙ্গল শহর ও উপজেলার বিভিন্ন বাজার হতে দূরবর্তী গ্রামের মানুষ সরকারি ও বেসরকারিভাবে বিনামূল্যে বিতরণকৃত খাদ্যপণ্য যারা পাচ্ছেন না সেরকম নিম্ন, স্বল্প ও মধ্যম আয়ের মানুষের বাড়ি থেকে প্রতীকী মূল্য এই ভ্রাম্যমাণ নিত্যপণ্যের দোকান থেকে তাদের প্রয়োজনীয় পণ্য কিনে নিতে পারবেন। 

বিডি-প্রতিদিন/শফিক


আপনার মন্তব্য