Bangladesh Pratidin || Highest Circulated Newspaper
শিরোনাম
প্রকাশ : মঙ্গলবার, ৭ মে, ২০১৯ ০০:০০ টা
আপলোড : ৬ মে, ২০১৯ ২৩:১১

ভাটার ধোঁয়ায় কপাল পুড়েছে কৃষকের

দিনাজপুর ও ঠাকুরগাঁও প্রতিনিধি

ভাটার ধোঁয়ায় কপাল পুড়েছে কৃষকের
দিনাজপুরের বীরগঞ্জে ইটভাটার কালো ধোঁয়ায় নষ্ট হয়ে যাওয়া ধান খেত - বাংলাদেশ প্রতিদিন

দিনাজপুরের বীরগঞ্জে দুটি ইটভাটার বিষাক্ত ধোঁয়ায় প্রায় ৫০ একর জমির ধান খেত নষ্ট হয়ে গেছে। ফসল হারিয়ে দিশাহারা হয়ে পড়েছেন দুই ইউনিয়নের শতাধিক কৃষক। প্রতিবাদ করায় ভাটামালিক মিথ্যা অভিযোগে মামলা করেছে বলে দাবি ক্ষতিগ্রস্তদের। কৃষি এলাকা থেকে ভাটা সরিয়ে নেওয়ার দাবিও জানান তারা।

কৃষি সম্প্রসারণ অফিসের পক্ষ থেকে পুড়ে যাওয়া ফসলে পানি ও ছত্রাকনাশক ওষুধ স্প্রে করার পরামর্শ দেওয়া হচ্ছে। পাশাপাশি ভাটার গ্যাস যাতে অন্য ফসলের ক্ষতি করতে না পারে সে উপায়ও বলে দিচ্ছে। ক্ষতিগ্রস্ত কৃষক সাদুল্ল্যাপাড়া গ্রামের মজনু জানান, ভাটার কারণে প্রতিবছর ভাটার ধোঁয়ায় ফসল পুড়ে যাচ্ছে। গত বছরে ক্ষতিপূরণের দাবি জানাতে গিয়ে চারজন কৃষক মামলার শিকার হয়েছেন। একই গ্রামের আব্দুল্লাহ হেল তানিম জানান, ভাটা বন্ধ ও ক্ষতিপূরণর দাবিতে স্থানীয় কৃষক ও গ্রামবাসী বিভিন্ন দপ্তরে স্মারকলিপি দিয়েছে। বীরগঞ্জ কৃষি সম্প্রসারণ কর্মকর্তা মনোরঞ্জন অধিকারী জানান, লিখিত অভিযোগ অনুযায়ী আরডিএফ ভাটার ধোঁয়ায় আক্রান্ত জমির পরিমাণ আনুমানিক ২০ একর। নিজপাড়া ইউনিয়নের নখাপাড়ার এসবিএম ভাটার বিষাক্ত ধোঁয়ায় ক্ষতিগ্রস্ত কৃষকদের লিখিত অভিযোগও পাওয়া গেছে। সেখানে ক্ষতির পরিমাণ নিরুপণে কাজ চলছে। বীরগঞ্জের ইউএনও ইয়ামিন হোসেন জানান, বিষয়টির সত্যতা খতিয়ে দেখতে কৃষি অফিসকে দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে। তাদের কাছ থেকে বিস্তারিত তথ্য পেলে সে অনুযায়ী ব্যবস্থা নেওয়া হবে। এদিকে ঠাকুরগাঁও সদর উপজেলার আকচা ইউনিয়নে দুটি ইটভাটার বিষাক্ত ধোঁয়ায় ঝলসে গেছে ৩০ একর জমির ইরি-বোরো খেতসহ অন্য ফসল। আকচা ইউনিয়নের দক্ষিণ বঠিনা গ্রামের কৃষকরা গতকাল এ অভিযোগ করেন। সরেজমিনে দেখা যায়, কৃষি ও আবাসিক এলাকায় দুটি ইটভাটা গড়ে তোলা হয়েছে। এই দুই ভাটার কালো ধোঁয়া আশপাশের কৃষি জমিতে নির্গত হওয়ায় ৪১ জন কৃষকের ফসলের ক্ষতি হয়েছে। দক্ষিণ বঠিনা গ্রামের কৃষক আব্দুস শহীদ বলেন, এনজিও থেকে ঋণ নিয়ে দুই একর জমিতে ধান রোপন করেছি। অনেক টাকা ব্যয় হয়েছে। আশা ছিল, ধান বিক্রির টাকায় ঋণ পরিশোধ করবেন। কিন্তু ইটভাটার বিষাক্ত কালো ধোঁয়ায় খেত পুরোটা পুড়ে গেছে। খবর পেয়ে ঘটনাস্থল পরিদর্শনে আসেন সদর উপজেলা কৃষি সম্প্রসারণ কর্মকর্তা মনোয়ার হোসেন, উপ-সহকারী কর্মকর্তা দিদারুল ইসলাম ও আকচা ইউপি চেয়ারম্যান সুব্রত কুমার বর্মণ। মনোয়ার হোসেন বলেন, ‘ভাটার ধোঁয়ায় ৪১ জন কৃষকের ৩০ একর জমির ফসল নষ্ট হয়েছে। বেশি ক্ষতি হয়েছে ধানের। ক্ষতিগ্রস্ত কৃষকদের তালিকা তৈরি করা হচ্ছে, ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের কাছে পাঠানো হবে। আশা করি ভাটা মালিকরা ক্ষতিপূরণ দেবেন।’


আপনার মন্তব্য