শিরোনাম
বুধবার, ১০ নভেম্বর, ২০২১ ০০:০০ টা

সুন্দরবনে এবারও হবে না রাসমেলা

বাগেরহাট প্রতিনিধি

আসন্ন রাস পূর্ণিমায় বঙ্গোপসাগর উপকূলে সুন্দরবনের দুবলার চরের আলোরকোলে করোনার মধ্যে এবারও সুন্দরবনের জীববৈচিত্র্য সংরক্ষণের স্বার্থে রাসমেলার অনুমতি দেয়নি বন বিভাগ। তবে রাস পূর্ণিমায় পূজা ও পুণ্যস্নানের  জন্য সীমিত পরিসরে শুধু সনাতন ধর্মাবলম্বীদের সেখানে যাওয়ার অনুমতি  দেওয়া হয়েছে। এবারের রাস পূজা ও পুণ্যস্নান অনুষ্ঠানে যেতে পারবেন না সনাতন ধর্ম ব্যতীত অন্য ধর্মের কোনো লোক। রাস পূর্ণিমায় পূজা ও পুণ্যস্নানে যাওয়া আসার জন্য সনাতন পুণ্যার্থীদের সুন্দরবন বিভাগ ৮ নৌপথ নির্দিষ্ট রুট করে দিয়েছে। মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের যুগ্ম সচিব মো. শাফায়াত মাহবুব চৌধুরী স্বাক্ষরিত এ সংক্রান্ত নির্দেশনা জারি করা হয়েছে।  বাগেরহাটের পূর্ব সুন্দরবন বিভাগের ডিএফও বেলায়েত হোসেন নিশ্চিত করে বলেন, আগামী ১৮ ও ১৯ নভেম্বর দুবলার চরে রাসপূজা ও পুণ্যস্নান অনুষ্ঠিত হবে।

এ সময়ে সেখানে শুধু সনাতন ধর্মাবলম্বীদের সীমিত আকারে যাওয়ার অনুমতি দেওয়া হবে। আগামী ১৭ নভেম্বর সকাল থেকে দুবলায় যাওয়ার জন্য পুণ্যার্থী ও তীর্থযাত্রীদের অনুমতি প্রদান করা হবে। ১৭ নভেম্বর সকালে সুন্দরবন বিভাগের কাছ থেকে অনুমতিপত্র (পাস) নিয়ে সনাতন ধর্মাবলম্বীরা দুবলার চরের আলোরকোলে যাবেন। এরপর ১৮ নভেম্বর রাতের রাস পূজা ও ১৯ নভেম্বর ভোরে পুণ্যস্নানের  শেষ করে তারা ফিরে আসবেন। তাদের যাওয়া-আসার জন্য নির্দিষ্ট রুট থাকবে, এর বাইরে গেলে কিংবা নির্ধারিত সময়ের আগে-পরে যাওয়ার চেষ্টা ও অবস্থান করলে তাদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলেও জানান তিনি। এ ছাড়া রাস পূজা ও পুণ্যস্নান অনুষ্ঠানস্থলে বন বিভাগের পাশাপাশি নিরাপত্তায় থাকবেন র‌্যাব, কোস্টগার্ড ও পুলিশ। করোনার মধ্যে সুন্দরবনের জীববৈচিত্র সংরক্ষণের স্বার্থে দুবলার চরের আলোরকোলে রাসমেলা করার অনুমতি দেয়া হবেনা বলে মঙ্গলবার দুপুরে বাগেরহাটে সভা করে আয়োজক কমিটিকে জানিয়ে দেয়া হয়েছে। রাস পূর্ণিমার পুজা ও স্নান অনুষ্ঠিত হলেও পুজা ও পুণ্যস্নানে সনাতন ধর্মী ছাড়া অন্য কোন ধর্মের লোকজও যেতে পারবে না। সুন্দরবনের জীববৈচিত্র্য সংরক্ষণের স্বার্থে রাসমেলা হবে না বলে জানান ডিএফও।

সর্বশেষ খবর