শিরোনাম
বৃহস্পতিবার, ১৮ জানুয়ারি, ২০২৪ ০০:০০ টা

মুখে স্কচটেপ লাগিয়ে, দুই হাত বেঁধে নির্যাতন করা হতো দুই বছরের শিশুকে

নিজস্ব প্রতিবেদক, যশোর

দুই বছরের শিশুকন্যা আয়েশার মুখে স্কচটেপ লাগিয়ে, দুই হাত বেঁধে নির্যাতন করতেন সৎমা পারভীন সুলতানা। নির্যাতনের এসব ঘটনার ছবিও তুলে রাখতেন নিজের মোবাইল ফোনে। বিষয়টি জানতেন আয়েশার বাবা ওয়াসকুরুনি পিন্টুও। তার পরও সৎমায়ের নির্মম নির্যাতনেই না ফেরার দেশে চলে যেতে হয় আয়েশাকে। প্রথম দিকে পিন্টু ও পারভীন পুলিশের কাছে নির্যাতনের বিষয়টি আড়াল করার চেষ্টা করলেও চিকিৎসকের প্রাথমিক রিপোর্টে আয়েশার শরীরে আঘাতের চিহ্ন থাকার বিষয়টি নিশ্চিত হয়ে পুলিশ সোমবার পারভীনকে গ্রেফতার করে। পরে প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদ ও পারভীনের মোবাইল ফোনে থাকা ছবি দেখে শিশু আয়েশাকে নির্মম নির্যাতনের বিষয়ে নিশ্চিত হয় যশোর কোতোয়ালি থানার পুলিশ। পুলিশ জানায়, সৎমা পারভীন সুলতানা শিশু আয়েশাকে নিজের সংসারে রাখতে চাননি। সে কারণে প্রায়ই তিনি মুখে স্কচটেপ লাগিয়ে, দুই হাত বেঁধে আয়েশাকে নির্যাতন করতেন। আয়েশা আক্তার যশোর সদর উপজেলার খোলাডাঙ্গা গ্রামের ওয়াসকুরুনি পিন্টুর মেয়ে। গ্রেফতার পারভীন সুলতানা তার দ্বিতীয় স্ত্রী। গ্রেফতারের পর পুলিশ পারভীনকে আদালতের মাধ্যমে মঙ্গলবার কারাগারে পাঠিয়েছে। একই সঙ্গে তাকে আরও জিজ্ঞাসাবাদের জন্য পাঁচ দিনের রিমান্ড চেয়ে আদালতে আবেদন করেছে পুলিশ। হাসপাতাল সূত্র জানায়, গত শনিবার অচেতন অবস্থায় আয়েশাকে যশোর জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে যান পারভীন সুলতানা। কিন্তু নেওয়ার পরপরই কর্তব্যরত চিকিৎসক আয়েশাকে মৃত ঘোষণা করেন। আয়েশার মাথা, মুখ, পিঠসহ শরীরের বিভিন্ন স্থানে আঘাতের চিহ্ন ছিল। যশোর কোতোয়ালি থানার ওসি আবদুর রাজ্জাক বলেন, চিকিৎসকের কাছ থেকে আয়েশাকে নির্যাতনের বিষয়টি নিশ্চিত হয়ে শিশুটির বাবাকে মামলা করতে বলি। কিন্তু তিনি মামলা করতে রাজি হননি। পরে এসআই জয়ন্ত সরকার বাদী হয়ে পারভীনকে আসামি করে মামলা করেন।

পুলিশ জানায়, আয়েশার মায়ের নাম জান্নাতুল। বছর দশেক আগে ওয়াসকুরুনির সঙ্গে তার বিয়ে হয়। আয়েশা ছাড়াও এ দম্পতির আরও একটি ছেলে রয়েছে। ওয়াসকুরুনি ঢাকায় পোশাক কারখানার কাজ করার সুবাদে সেখানে পারভীনের সঙ্গে তার প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে এবং ২০১৮ সালে তারা বিয়ে করেন ও যশোরের খোলাডাঙ্গা এলাকার একটি বাসা ভাড়া নেন। এর আগেই বিষয়টি জানাজানি হলে ওয়াসকুরুনির সঙ্গে জান্নাতুলের সম্পর্কে অবণতি ঘটে। চার-পাঁচ মাস আগে জান্নাতুল তাদের দুই সন্তান আয়েশা ও তার ভাইকে ওয়াসকুরুনির কাছে রেখে যান। এর পর থেকেই তাদের ওপর পারভীনের অত্যাচার শুরু হয়।

এই বিভাগের আরও খবর

সর্বশেষ খবর