শিরোনাম
প্রকাশ : ১৯ জুলাই, ২০১৯ ১৮:১৯

বন্যা পরিস্থিতির অবনতি, শেরপুরের সঙ্গে উত্তরবঙ্গের যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন

শেরপুর প্রতিনিধি

বন্যা পরিস্থিতির অবনতি, শেরপুরের সঙ্গে উত্তরবঙ্গের যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন

পুরাতন ব্রহ্মপুত্র নদের পানি বৃদ্ধি পাওয়ার ফলে শেরপুরে বন্যা পরিস্থিতির আরও অবনতি হয়েছে। এতে শেরপুর-জামালপুর মহাসড়কের পোড়ার দোকান এলাকায় কজওয়ের (ডাইভারশন) ওপর দিয়ে প্রবলবেগে বন্যার পানি প্রবাহিত হচ্ছে। 

ফলে শুক্রবার সকাল থেকেই এই সড়কে শেরপুর থেকে জামালপুর হয়ে রাজধানী ঢাকাসহ শেরপুরের সাথে উত্তরাঞ্চলের সাথে সড়ক যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়েছে।

এদিকে আজ সকাল ও দুপুরে বন্যার পানিতে ডুবে দুই শিশুর মৃত্যু হয়েছে। একজন পৌর এলাকাল উত্তর গৌরিপুরের  সপ্তম শ্রেণিতে পড়ুয়া নায়েব আলীর পুত্র মেহেদি হাসান (১৩)। অপরজন কামারের চর এলাকার মোফাজ্জলের ছেলে শামিম হোসেন (৬)।  

গত ২৪ ঘণ্টায় ব্রহ্মপুত্র নদের পানি শেরপুর ফেরিঘাট পয়েন্টে ২ মিটার বৃদ্ধি পেয়ে বিপদসীমা ছুইঁ ছুঁই করছে। বন্যা নিয়ন্ত্রণ বাঁধের পুরাতন ভাঙন অংশ দিয়ে বন্যার পানি দ্রুতবেগে প্রবেশ করায় প্রতিমুহূর্তে চরাঞ্চলের নতুন নতুন এলাকা প্লাবিত হচ্ছে। নষ্ট হয়ে গেছে বীজতলা ও শতশত একর সবজি খেত। 

জেলা প্রশাসনের তথ্যনুযায়ী, অবিরাম বর্ষণ ও উজানের পাহাড়ি ঢলে শেরপুরের ৫ উপজেলার ৩৫ট ইউনিয়নের ১৭২টি গ্রাম প্লাবিত হয়েছে, পানিবন্দি রয়েছেন প্রায় লক্ষাধিক মানুষ। শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে পানি বৃদ্ধি পাওয়ায় ৫২টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান সাময়িক বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে। গত ৫দিনে বন্যার পানিতে ডুবে ৮ জনের মৃত্যুর ঘটনা ঘটেছে।


বিডি-প্রতিদিন/বাজিত হোসেন


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর