শিরোনাম
প্রকাশ : ২২ জুলাই, ২০১৯ ০২:৩৫
আপডেট : ২২ জুলাই, ২০১৯ ০৬:০৩

৪ দিন ধরে কসবা সীমান্তের শূন্যরেখায় ১২ রোহিঙ্গা

ব্রাহ্মণাবাড়িয়া প্রতিনিধি

৪ দিন ধরে কসবা সীমান্তের শূন্যরেখায় ১২ রোহিঙ্গা

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় কসবা উপজেলার বায়েক ইউনিয়নের গৌরাঙ্গলা সীমান্তের ২০৫৩ নং পিলারের কাছ দিয়ে ১২ রোহিঙ্গা নাগরিককে পুশব্যাকের চেষ্টা করেছে ভারতীয় সীমান্তরক্ষী বাহিনী (বিএসএফ)।

বৃহস্পতিবার বিজিবি’র বাধার মুখে গত চারদিন ধরেই খোলা আকাশের নিচে বসবাস করছেন রোহিঙ্গারা। দুই দেশের সীমান্ত রক্ষী বাহিনীর পক্ষ থেকেই তাদেরকে খাবার দেওয়া হচ্ছে।  

তাদের মধ্যে ২ জন পুরুষ, ৫ জন নারী ও ৫ জন শিশু রয়েছে। তাদের মধ্যে একজন বৃদ্ধ মানুষও রয়েছে। গত বৃহস্পতিবার বিকালে দুই দেশে ব্যাটালিয়ান অধিনায়ক পর্যায়ে পতাকা বৈঠক অনুষ্ঠিত হলেও রোহিঙ্গা নাগরিকরা রবিবারও শূন্যরেখায় ভারতীয় অংশেই অবস্থান করছেন। 

বিজিবি ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, গত বৃহস্পতিবার উপজেলার বায়েক ইউনিয়নের গৌরাঙ্গলা সীমান্তের ২০৫৩ নং পিলারের কাছ দিয়ে অনুপ্রবেশের চেষ্টা করে ১২ রোহিঙ্গার একটি দল। খবর পেয়ে সীমান্তে অবস্থান নেয় বিজিবি। বিজিবির বাধার মুখে সীমান্তের ভারতীয় অংশেই অবস্থান নেয় রোহিঙ্গা নাগরিকরা। 

এ ঘটনায় বৃহস্পতিবার বিকাল সাড়ে ৫টায় সীমান্তের ২০৫৩ পিলারের কাছে দু’দেশের ব্যাটালিয়ন অধিনায়ক পর্যায়ে বৈঠক হয়। 

বিজিবি’র ৬০ ব্যাটালিয়ন অধিনায়ক লে. কর্নেল মো. ইকবাল হোসেন বলেন, ১২ রোহিঙ্গা নাগরিক বৃহস্পতিবার থেকে সীমান্তের শূন্য রেখায় অবস্থান করছেন। তাদেরকে দুই দেশের সীমান্তরক্ষী বাহিনীর পক্ষ থেকেই খাবার সরবরাহ করা হচ্ছে। দু’দেশের ব্যাটালিয়ন কমান্ডার পর্যায়ে বৈঠক হয়েছে। 

বিএসএফ দাবি করছেন ওই রোহিঙ্গা নাগরিকরা বাংলাদেশ থেকে অবৈধ ভাবে ভারতে প্রবেশ করছেন। আর বিজিবি জানিয়েছেন রোহিঙ্গা নাগরিকরা ভারত থেকে অবৈধভাবে বাংলাদেশে প্রবেশ করছেন। 

বিষয়টি নিয়ে দুই দেশের সীমান্ত রক্ষী বাহিনীর লোকজন অনুসন্ধান করছেন। বাংলাদেশের পক্ষ থেকেও কক্সবাজার রোহিঙ্গা ক্যাম্পে তাদের নাম ছিল কিনা তা যাচাই-বাছাই করা হচ্ছে বা তারা কোন জাল কাগজপত্র তৈরি করেছে কিনা সেটিও যাচাই করা হচ্ছে। 


বিডি-প্রতিদিন/বাজিত হোসেন


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর