শিরোনাম
প্রকাশ : ১২ ডিসেম্বর, ২০১৯ ১৭:১০

বিদ্যালয়ের মাঠে দোকান, শিক্ষকের বিরুদ্ধে টাকা হাতিয়ে নেয়ার অভিযোগ

নিজস্ব প্রতিবেদক, বগুড়া

বিদ্যালয়ের মাঠে দোকান, শিক্ষকের বিরুদ্ধে টাকা হাতিয়ে নেয়ার অভিযোগ

বগুড়ার ধুনট উপজেলার খাটিয়ামারী উচ্চ বিদ্যালয়ের মাঠে অবৈধভাবে দোকান-ঘর নির্মাণ করে লাখ লাখ টাকা হাতিয়ে নেয়ার অভিযোগ উঠেছে প্রধান শিক্ষক আব্দুল কাদের ও ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি আব্দুল হামিদ টুকুর বিরুদ্ধে। 

বিদ্যালয়ের মাঠে অবৈধভাবে দোকান-ঘর নির্মাণ করায় শিক্ষার পরিবেশ ও খেলাধুলার পরিবেশ বিঘ্নিত হচ্ছে। এ বিষয়ে স্থানীয় এলাকাবাসী বিদ্যালয়ের মাঠে ওই অবৈধ নির্মাণ কাজ বন্ধ করতে প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।
  
জানা গেছে, উপজেলার গোপালনগর ইউনিয়নে ১৯৬৭ সালে প্রায় ১০ বিঘা জমিতে খাটিয়ামারী উচ্চ বিদ্যালয় স্থাপিত হয়। ২০১১ সালে খাদুলী গ্রামের আব্দুল কাদের বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক হিসেবে যোগদান করেন। ২০১৮ সালে বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আব্দুল কাদের ও ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি আব্দুল হামিদ টুকু বিদ্যালয়টির পূর্ব ও দক্ষিণ পাশের খেলার মাঠের জায়গায় অবৈধভাবে ১১টি দোকান-ঘর নির্মাণ করে প্রায় ১৫ লাখ টাকা হাতিয়ে নিয়েছেন। এছাড়া প্রতিটি দোকান-ঘর থেকে প্রতিমাসে ৫০০ টাকা করে আদায় করে পকেটে ভরছেন প্রধান শিক্ষক আব্দুল কাদের ও সভাপতি আব্দুল হামিদ টুকু। 

সম্প্রতি তারা বিদ্যালয়ের দক্ষিণ-পূর্ব পাশের দেয়াল ভেঙে ও গাছ কেটে মাঠের জায়গায় আরও ৫টি দোকান-ঘর নির্মাণের কাজ শুরু করেছেন। এতে বিদ্যালয়ের শিক্ষার পরিবেশ ও খেলাধুলার পরিবেশ বিঘ্নিত হওয়ায় বুধবার দুপুরে স্থানীয় এলাকাবাসী ওই অবৈধ দোকান-ঘর নির্মাণ কাজ বন্ধ করে দিয়েছেন। এ ঘটনায় এলাকায় চরম উত্তেজনা বিরাজ করছে।

বিদ্যালয়ের অভিভাবক সদস্য রফিকুল ইসলাম ও শফিকুল ইসলাম জানান, প্রধান শিক্ষক আব্দুল কাদের ও সভাপতি আব্দুল হামিদ টুকু বিদ্যালয়ের মাঠে অবৈধভাবে দোকান-ঘর নির্মাণ করে লাখ লাখ টাকা হাতিয়ে নিচ্ছেন। এভাবে অবৈধভাবে দোকান-ঘর নির্মাণ করায় বিদ্যালয়ের মাঠ ছোট হয়ে আসছে। এ কারণে শিক্ষার্থীদের খেলাধুলা করতে প্রতিবন্ধকতার সৃষ্টি হয়েছে। এছাড়া দোকান-ঘরে লোকজনের সমাগম হওয়ায় শিক্ষার পরিবেশও বিঘ্নিত হচ্ছে। তাই বিদ্যালয়ের মাঠে দোকান-ঘর নির্মাণ বন্ধ করতে প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন স্থানীয়রা।

ধুনট উপজেলার খাটিয়ামারী উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আব্দুল কাদের জানান, বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির সিদ্ধান্তে দোকান-ঘর নির্মাণ করা হচ্ছে। তবে এ বিষয়ে ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের কোনো অনুমোদন পাননি। 

ধুনট উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা এসএম জিন্নাহ বলেন, বিদ্যালয়ের মাঠে দোকন-ঘর নির্মাণ করে ভাড়া দেওয়ার কোনো নিয়ম নেই। তাই এ বিষয়ে তদন্ত করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে। 

ধুনট উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা রাজিয়া সুলতানা বলেন, বিদ্যালয়ের মাঠে অবৈধভাবে দোকন-ঘর নির্মাণের মৌখিক অভিযোগ পেয়েছি। তাই এ বিষয়ে দ্রুত ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে জানান তিনি। 


বিডি-প্রতিদিন/বাজিত হোসেন


আপনার মন্তব্য